user-avatar

DreamAchive

◯ DreamAchive

পুষ্টিকর খাবার বেশি করে খান ৷ আর ১ম বারের তুলনায় ২য় বার বীর্য কম বের হয় এটাই স্বাভাবিক ভাই৷ কারন ১ম বারের উত্তেজনা আর ২য় বারের উত্তেজনা কিছুটা কম হয় আর এর জন্য বীর্য কম বের হয়। তাছাড়া পেনিসে ১ম বারের থেকে ২য় বারে শক্তি কিছুটা হ্রাস পায় তার জন্য এমন হতে পারে। ।


আশা করি বুঝতে পেরেছেন । 

এটি হরমোনের জন্য ভাই ।এটা কোনো সমস্যা না৷ আর এটি বংশগত কারনেই হয়৷। হরমোনের জন্যই কারো লোম বেশি কারও লোম কম।    

যেসব বন্ধুরা আপনাকে ছোট করে ,আপনাকে নিয়ে হাসি ঠাট্টা করে, বা তার কোনো দোষ থাকলেও তাকে তা ধরিয়ে না দিয়ে বা তাকে সংশোধনের সুযোগ না দিয়ে বরং আরও অপমান বা মজা করা, বা হাসি ঠাট্রা করে তারা প্রকৃত বন্ধু নয় ।। আপনি ওদের কে একটু এড়িয়ে চলুন ।। ওদের সাথে কথা বন্ধ করবেন না বা এদের সাথে খারাপ ব্যবহারও করবেন না। কিন্তু ওদের সাথে আড্ডা দেওয়া বা কোনো কিছু শেয়ার করা বন্ধ করে দিন। ওদের থেকে নিজেকে দূরে রাখবেন।। ভালো বন্ধুদের সাথে চলাফেরা করুন না থাকলে এখন থেকে ভালো ব্যক্তি যারা তাদের সাথে চলাফেরা করুন ।যারা অন্যকে সম্মান করে , অন্যকে সহযোগিতা করে, ভুল হলে তা সংশোধনের জন্য বলবে। এই ধরনের ব্যক্তিদের সাথে বন্ধুত্ত্ব করুন। আপনি সম্মানিত হবেন আর ভালো ব্যক্তিদের সাথে বন্ধুত্ত্ব করলে ভালো কিছুই শিখবেন৷ আমি তার একটি বড় উদাহরণ ভাই৷ আলহামদুলিল্লাহ আমি এখন ভালো ব্যক্তিদের সাথে চলি আর খুব ভালো আছি।। তাদেরকে আমি খুব সম্মান করি তারাও আমাকে খুব সম্মান করে ৷আর যারা আমাকে নিয়ে মজা করত, হাসি ঠাট্রা করত তাদের সাথে এমনি যোগাযোগ আছে কিন্তু ওদের সাথে আগের মত আড্ডা দেওয়া, ঘুরতে যাওয়া বা কোনো কিছু শেয়ার একদমি করি না৷ তারা আমার পরিবর্তন দেখে নিজেরা খুব লজ্জিত।।  


আশা করি বুঝতে পেরেছেন ।


ধন্যবাদ,,, 

ভাই আপনি তাকে তালাক দিবেন না। কারন সে নিজ থেকে বলছে না অন্যের কথায় কান দিয়ে আপনাকে ভুল বুঝছে। আপনি আপনার স্ত্রীকে নিয়ে একজন মনো বিশেষজ্ঞ বা যৌন বিশেষজ্ঞের কাছে যান তাদের কাছে গিয়ে বিস্তারিত বলুন তারা আপনাকে সমাধান দিবে ।এতে আপনার স্ত্রীরও ভুল ভাংবে। আপনি তাকে যেকোনো উপায় বুঝিয়ে এই কাজটি করেন। তবে আপনাকে শান্ত থাকতে হবে। আপনি নিজেকে নিয়ন্ত্রণে রাখুন ।হস্তমৈথুন করলে তো আপনার লিংগ আরও দুর্বল হয়ে যাবে ৷ নিজের পায়ে নিজে কুড়াল মারবেন না। অন্যের কুড়াল মারাকে বরং প্রতিহত করার চেষ্টা করুন ।আর অবশ্যই মানষিকভাবে শক্ত থাকেন। ।      

আপনি দ্রুত একজন স্বাস্থ্যবিষয়ক  ডাক্তার দেখান ৷ ডাক্তারকে বিস্তারিত বলুন । 

আশা করি চিকিৎসা নিলে ঠিক হয়ে যাবে। ।  

কোনো ব্যক্তি যদি নিজে নিজে আমল করে সে প্রকৃত অর্থে একজন খাঁটি ঈমানদার ও ফরহেজগার৷ সে আল্লাহর ইবাদতেই বেশির ভাগ সময়ই ব্যয় করে কিন্তু মানুষকে দ্বীনের দাওয়াত দেয় না বা দ্বীনি মেহনতি কাজে নিজেকে জড়ায় না। যেমনঃ ১/নিজে নামাজ পড়ে কিন্তু অন্যকে নামাজের জন্য বলে না। ২/কেউ কোনো অন্যায় কাজ করলে তাকে সাবধান করে না ৩/ নিজে দ্বীন এলেম জানে কিন্তু তা প্রচার করে না ইত্যাদি। কিন্তু তিনি ভালো একজন লোক । এই ব্যক্তি যদি মারা যায় আল্লাহ কি তাকে এর জন্য জাহান্নাম দিবে?? তার আমলগুলো কি আল্লাহ বাতিল করে দিবে?? তাকে কি আল্লাহ শাস্তি দিবে? 

এটা কি গীবত হবে?

DreamAchive
Sep 21, 01:35 AM

ভাই যদি কোনো ব্যক্তি আমার কাছে অন্য ব্যক্তি সম্পর্কে ধারণা পেতে বা জান তে চায় আর ঐ ব্যক্তির মধ্যে( যার সম্পর্কে জানতে চায়) খারাপ মন্দ অভ্যাস থাকে বা লোকটি যদি খারাপ হয় তাহলে তার মন্দ দিক সম্পর্কে কি অন্যকে সতর্কের জন্য জানানোর জন্য বলা যাবে?? উদাহণঃ অনেকে বিবাহের জন্য ছেলে বা মেয়ের খোঁজ খবর নেয় এতে পাত্র অথবা পাত্রী সম্পর্কে তাকে(খোঁজ নেওয়া ব্যক্তিকে) সঠিক খবর জানানো সেটি যদি তার(পাত্র বা পাত্রীর) মধ্যে দোষ থাকে তা বলা যাবে? এটা কি গীবত হবে?

সমাজে কিছু মানুষ আছে যারা সুদখোর । সমাজে সুদখোর নামেই পরিচিত।। সে প্রকাশ্যেই সুদের কাজ করে । আর কিছু মানুষ আছে যারা অন্যের উপর জুলুম করে । অন্যের হোক নষ্ট করে এটাও সমাজের প্রকাশ্যে কিন্তু তার বিরুদ্ধে মানুষ কিছু করতে পারে না। সে ক্ষমতাবান এরুপ ব্যক্তিদের সমালোচনা করা কি জায়েজ??  

দুইটার একটা করতে পারেন। তবে আমার মতে অফিসিয়াল কোর্স যদি করতে চান তাহলে ৬ মাস প্রয়োজন হয় না। ৩ মাসেই শিখতে পারেন । ৬ মাসের কোর্সে যারা ক্লাস করায় এরা ধীরে ধীরে ক্লাস করায় কিছু জিনিস বাড়তি করায় যেগুলো এত প্রয়োজন হয় না।। আর এইগুলা আপনি এমনি পারবেন ।। তাই ৩ মাসের কোর্স আপনি কোনো ক্লাস মিস না দিয়ে আর মনোযোগ দিয়ে অনুুুশীলন করলে আপনি সবকিছু পারবেন ৷। এতে ৬ মাস প্রয়োজন হয় না। 


,,,,ধন্যবাদ 

ভাই আমার ইমুতে অতিরিক্ত মাত্রায় এড আসে। একটা কল দিতে গেলেই বা ইমুতে ঢুকলেই এডের যন্ত্রনায় কিছু করা যায় না । আর বাজে বাজে এড গুলাও আসে। এখন এটা বন্ধ করার কি উপায় আছে?? উপায় বলে সাহায্য করুন. .. 

ভাই আমার প্রত্যেক সকাল বেলায় মানি ফজর নামাজ পড়ার পর যখন বিছানায় শুয়ে পড়ি তখন আমার এমন সেক্স উঠে যা নিয়ন্ত্রণ করা খুব কঠিন হয়ে পড়ে । কিন্তু আমি কোনো অশ্লীল কিছু দেখা বা শুনা বা চিন্তা করি না৷ তবে যখন সেক্স চাহিদা উঠে তখন মন চায় সেক্স করতে আর তখন খারাপ চিন্তা চলে আসে তারপরেও আমি আল্লাহর ভয়ে নিজেকে অনেক কষ্টে নিয়ন্ত্রন রাখি।। দিনে বা রাতে অন্য সময় এতটা সেক্স চাহিদা উঠে না কিন্তু সকালে ফজরের পর থেকে অনেক সময় পর্যন্ত লিংগ দাঁড়িয়ে থাকে আর হরমণ আমারে পাগল করে ফেলে । আমি অবিবাহিত। বয়স ২৪ বছর । সর্বদা ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলার চেষ্টা করি। এমন হয় কেনো আর এই অবস্থায় করণিয় কি? 

রাসূল (সঃ) এর যত সুন্নত আছে তার মধ্যে সবচেয়ে বড় সুন্নত এটি । যা কোনো কোনো আলেম বলেছেন ফরজ আবার কেউ বলেছেন ওয়াজিব। আমরা যদি এটিকে ফরজ না ধরে ওয়াজিবও ধরি তাহলেও এটি পরিত্যাগ করা অনেক বড় গুনাহ। কারন ওয়াজিব ফরজের সমতুল্য ধরা হয়। আর দাঁড়ি কাটা বা ছোট করা এমন এক গুনাহ যা মানুষ ঘুমালেও ফেরেশতাগণ তার আমলনামায় গুনাহ লেখতেই থাকে। আর কিয়ামতের দিন যাদের গালে রাসূল(সঃ) এর দাঁড়ি থাকবে না তার দিকে রাসূল তাকাবেনও না। আর যার দিকে রাসূল তাকাবেনও না তাকে আল্লাহ ক্ষমা করবেন এটা কিভাবে বলা যায় তবে তার যদি অন্য আমলগুলো সব ঠিক থাকে তাহলে হয়ত আল্লাহ মাফও করতে পারে এটি সম্পূর্ণ আল্লাহর ইচ্ছা। এটা কবীরা গুনাহ না। তবে এটি ইচ্ছা করা ফেলে দেওয়া মানি রাসূল (সঃ) কে কলিজায় আঘাত করা। তাই ভাই একজন মুসলিম হিসেবে দাঁড়ি রাখা উচিত। কারন রাসূলের সুন্নতকে যে ভালোবাসে তাকে আল্লাহও ভালোবাসেন। আর দাঁড়িওয়ালা মানুষদের চেহারায় অন্যরকম এক নূর আছে । দাঁড়ি আপনাকে অনেক গুনাহ থেকে বাঁচাবে। আমি নিজেই এর প্রকৃত উদাহরণ।  দাঁড়ি একজন পুরুষের সবচেয়ে বড় সৌন্দর্য।। আর ধার্মিক মেয়েরা দাঁড়িওয়ালা পুরুষকে বেশি পছন্দ করে। তাই ভাই দাঁড়ি রাখেন আল্লাহ আপনাকে আখিরাতে অনেক সম্মানিত করবেন।।  

১/সাপে জোঁক পেলে বা সাপকে জোঁয়ালে সাপ রাতে ঘরে চলে আসে এটা কি সত্যি?

২/ সাপে জোঁয়ালে ঝাড় ফুক করলে নাকি সাপ আর আসবে না? এইগুলা কি সত্যি?

অনেকে বলে তাবলীগ জামাত ভালো, তারা দ্বীন শিখে ও দীনের দাওয়াতের কাজ করে,,,আবার অনেকে বলে এদের কোনো খাইয়া দাইয়া কাজ নাই তাই তারা বিভিন্ন মসজিদে মসজিদে ঘুরে বেড়ায় আর পিকনিক করে,,,এরা নাকি কিচ্ছা কাহিনী বলে বেড়ায় , আর এরা নাকি বেদায়াতি কাজ করে এটা নাকি রাসূল(সঃ) ও তার সাহাবায়ী কেরাম এসব দাওয়াত দিতেন না । তাবলীগের যে কিতাবগুলো পড়ে( ফাজায়েল আমল ও ফাজায়েল সাদাকাত) এইগুলা নাকি ভুল।। তাই তাবলীগ জামাত সম্পর্কে বিস্ময়ে কার কি ধারণা জানতে চাই? এরা কি সঠিক পথে আছে নাকি ভুল পথে? সবার মতামত জানতে চাই?    

ভাই আমার জানার ইচ্ছা মেয়েদের দিকে খারাপ নজরে তাকানো, ও মনে মনে কোনো খারাপ চিন্তা করাটা কি কবীরা গুনাহ নাকি সগীরা গুনাহ?

আপনি স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ একজন ডাক্তার দেখান এবং তাকে আপনার সব সমস্যা শেয়ার  করেন।। উনি যেভাবে বলে তাই করেন।। কারন আপনার সমস্যা কোথায় তা আগে চিহ্নিত করতে হবে।। হয়ত আপনার হরমোনে সমস্যা থাকতে পারে ।তাই তিনি পরীক্ষা নিরীক্ষা করে আপনাকে ঔষুধ দিবে এবং পরামর্শ দিবে কিভাবে চলতে হবে, কি কি খেতে হবে।। তাই আপনি একজন ভালো স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দেখান। 


   ধন্যবাদ।   

আমি আজ ৭ মাস কোনো হস্তমৈথুন করি না। প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়ি ,কোন পাপ কাজের সাথেও জড়িত নয় । কোনো অশ্লীল কিছু দেখা, শুনা ও অশ্লীল চিন্তাভাবনাও করি না । প্রতিদিন রাতে ওযু করে, ২ রাকাত নফল নামাজ ও কুরআন তেলাওয়াত করেও ঘুমাই। আলহামদুলিল্লাহ আমার ঘুম খুব ভালো হয় । ঘুমে আমি কখনই বাজে স্বপ্ন দেখি না। কিন্ত প্রতিমাসে ২/১ বার আমার রাতের বেলায় ঘুমের মধ্যে স্বপ্ন দোষ হয় ,কিন্তু যেদিনই আমার স্বপ্ন দোষ হয় ওই দিনই আমি ঘুমে খুব নোংরা স্বপ্ন দেখি এবং স্বপ্ন দেখা অবস্থায় আমার স্বপ্নদোষ হয়ে যায় এবং সাথে সাথে আমার ঘুম ভেংগে যায়।। স্বপ্নগুলো বেশির ভাগগুলো এমন দেখি যে, (আমি কোনো মেয়ের সাথে সহবাস করছি বা অন্য কেউ করছে)।।   আমার প্রশ্ন হলো ,স্বপ্নদোষ হওয়াটা স্বাভাবিক সেটা ঠিক আছে কিন্তু আমি তো সকল অশ্লীলতা থেকে বিরত আছি এবং আমি আলহামদুলিল্লাহ সুস্থ একজন মানুষ আমার কোনো যৌন সমস্যাও নাই এবং রাতে আল্লাহকে স্বরণ করে ঘুমাই তা স্বত্তেও কেনো আমার যেদিন স্বপ্নদোষ হয় ঐ দিন নোংরা বা অশ্লীল স্বপ্ন দেখি । অন্য কোনো দিন তো এসব অশ্লীল বা নোংরা স্বপ্ন দেখি না?? ভাই তথ্যগুলো ভালো করে পড়ে, বোঝে উত্তর দিবেন? 

ভাই আমি বাংলা ব্যাকরণ একেবারে পারি না আর বুঝতেও কষ্ট হয় । যেমনঃ সমাস ,বিভক্তি ,পদ ইত্যাদি কিন্তু শেখাটা জরুরী হয়ে পড়েছে । এখন কিভাবে শেখা যায়? অনলাইনে শিখতে চাই, কিভাবে সহজে ধারাবাহিকভাবে ভালোভাবে শিখতে চাই? কোন ওয়েবসাইট বা ইউটুবে কোন চ্যানেলকে অনুসরণ করে শিখা যায়?        

যে ঘরে টেলিভিশন থাকে সে ঘরে রহমতের ফেরেশতা প্রবেশ করে না? এটা কতটুকু সত্য? টেলিভিশনে যদি কোনো অশ্লীল কিছু না দেখে শুধু খবর ,খেলা দেখা, ওয়াজ শোনা ,ও অন্যান্য ভালো জ্ঞান অর্জনের জন্য কোনো কিছু দেখলেও কি রহমানের ফেরেশতা ঘরে প্রবেশ করবে না? আর যদি সেটি হাদিসে থাকে কোন হাদিসে আছে রেফারেন্স দিবেন? ধন্যবাদ।   

মেয়েদের দিকে খারাপ নজরে চিন্তা করা ও মনে মনে কোনো খারাপ চিন্তা করাটা কি কবীরা গুনাহ নাকি সগীরা গুনাহ?

দাঁড়ি আল্লাহর দেয়া একটা বিশেষ নেয়ামত । কারো দাঁড়ি বড় হয় ,কারো ছোট, কারো গাল ভর্তি দাঁড়ি ওঠে ,কারো জামির দিক দিয়ে শুধু লম্বা হয় ,কারো পাতলা হয়, কারো ঘন হয়, কারো তাড়াতাড়ি ওঠে, কারো অনেক দেরিতে উঠে এইগুলা ভাই আল্লাহ যখন ইচ্ছে যাকে তখন দান করেন । তবে এইগুলা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই জেনেটিক অর্থ্যাৎ বংশগত কারনেও হয়। আপনার বাবা, দাদা এদের দাঁড়ি দেরিতে উঠলে ও তাদের যেমন উঠবে আপনারও তেমন উঠার সম্ভাবনা বেশি। তবে সবার ক্ষেত্রে নয়। কিছু ব্যতিক্রমও আছে। তাই এটাকে নিয়ে না চিন্তা করে ধৈর্য্য ধরুন। আর এটির কোন তৈল বা ওষুধ বা অন্য কোন পদ্ধতি নেই যাতে আপনার দাঁড়ি তারাতারি গজাবে । তবে অনলাইনে অনেক বিজ্ঞাপন বা এড দেখবেন দাঁড়ি গজানোর ক্রিম বা অন্য কিছু যাতে দাঁড়ি গজায়। তবে সাবধান এইগুলা একদম ব্যবহার করবেন না এটিতে আপনি মারাত্মক ঝুঁকিতে পড়বেন ।এইগুলোতে মারাত্মক প্বার্শপ্রতিক্রিয়া আছে।। তাই আপনি এটি আল্লাহর উপর ছেড়ে দিন আর ধৈর্য্য ধরুন ।


   ধন্যবাদ।  

কিস্তিতে কোনো পণ্য নিলে কি আমার গুনাহ হবে? এটা কি জায়েজ হবে? আমার পরিবারের জন্য একটা ফ্রিজ খুব প্রয়োজন। কিন্তু তা সম্পূর্ণ নগদ অর্থে কিনার মত টাকা নেই । তাই কিস্তিতে নিবো ভাবছি , এখন এটাতে কি আমার গুনাহ হবে? 

ভাই আমি আগে অনেক খারাপ ছিলাম, অনেক পাপ কাজ করেছি। আগে অলসতার জন্য ,শয়তানের ধোকায় পড়ে ইচ্ছা অনিচ্ছায় অনেক নামাজ ত্যাগ করেছি। কিন্তু আলহামদুলিল্লাহ আমি খাঁটি মনে তওবা করেছি এবং আল্লাহ রহমতে আমি এখন সব পাপ কাজ ছেড়ে দিয়েছি। আমি আজ ৭ মাস কোনো ওয়াক্ত নাম মিস দিই নাই ,ও সকল পাপ কাজ থেকে নিজেকে বিরত রাখার চেষ্টাও করছি ।এখন প্রশ্ন হলো ভাই ,আমি যে তওবা করার পূর্বে অনেক নামাজ ত্যাগ করেছি তা কি আল্লাহ আমাকে মাফ করবে নাকি আমাকে এইসব নামাজ কাযা আদায় করতে হবে? আর আমি তো অনেক নামাজ ত্যাগ করেছি যার কোনো হিসাব নেই । আর যদি ক্বাযা করতে হয় তাহলে এত নামাজ কিভাবে ক্বাযা করব? এর আগে যদি আমার মৃত্যু হয়ে যায় তাহলে আমি কি জাহান্নামী হয়ে যাবো? আল্লাহ কি আমাকে কে ক্ষমা করবে না?? 

ভাই আমি প্রায় ২ মাসের মত। দিনে ২ বার সকালে ও রাতে পানের সাথে কালোজিরা জিবিয়ে খেতাম। পানপাতার সাথে কিন্তু কোনো সুপারি ও চুন এইগুলা খাই নাই ।শুধু পানপাতার সাথে কালোজিরা খেতাম। এখন আমার মুখের ভিতর সামনের দাঁতগুলোর ২ টি দাঁতে হালকা হালকা দাগ পড়ে গেছে । যা দেখতে খারাপ লাগে। আমার হাসি কিন্তু খুব সুন্দর কারন আমার দাঁতও আগে সুন্দর ছিলো। কিন্তু ইদানিং এই ২ টি দাগ পড়া দাঁতের জন্য আমার হাসি আমার নিজের কাছে খারাপ লাগে। এর জন্য ভাই কি করা যায়? দাঁতের এই দাগগুলো কিভাবে দূর করব? এর কি কোনো ক্রিম বা কোনো পদ্ধতি জানা আছে আপনাদের? জানালে আমার খুব উপকার হবে?  

১/মেথি খালি পেটে বেশি খেলে উপকার নাকি ভরা পেটে?

২/ মেথি কাচা চিবিয়ে খেলে উপকার বেশি নাকি সারারাত ১ গ্লাস পানিতে ১/২ চামচ মেথি ভিজিয়ে রেখে সকালে খালি পেটে সে পানি খেলে বেশি উপকার?

৩/ মেথি কি যৌনশক্তি বৃদ্ধি করে?

উত্তর দিবেন প্লিজ,,,


আলহামদুলিল্লাহ আমি প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ , কুরআন তেলাওয়াত ও আল্লাহর জিকির করে খুব আনন্দ অনুভব করি,,,,যা অন্য কিছুতে মনে ও মস্তিষ্কে এত প্রশান্তি পাই না,,,,   

আমার বাসায় wifi আছে। এখন কেউ যদি আমার wifi এর পাসওয়ার্ড জেনে wifi ব্যবহার করে তাহলে কে কে ব্যবহার করছে বা কতজন ব্যবহার করছে এটা কিভাবে বের করব বা এটি বের করার কি কোনো সিস্টেম আছে?? জানা থাকলে বলবেন প্লিজ।।   

কিস্তিতে কোনো পণ্য নিলে কি আমার গুনাহ হবে? এটা কি জায়েজ হবে? আমার পরিবারের জন্য একটা ফ্রিজ খুব প্রয়োজন। কিন্তু তা সম্পূর্ণ নগদ অর্থে কিনার মত টাকা নেই । তাই কিস্তিতে নিবো ভাবছি , এখন এটাতে কি আমার গুনাহ হবে?