mdkawserrand1 (@mdkawserrand1)

বেশী বেশী গান শুনুন,কবিতা পরেন।ছন্দ লেখার অভ্যাস করুন।ছন্দ লিখতে পারলেই গান হবে।বিখ্যাত কবিদের কবিতাগুলো খেয়াল করেন।

সুরমা সম্পর্কে জানতে চায়?

mdkawserrand1
Jan 23, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
সুরমা একটি খণিজ দ্রব্য | মূল উপাদান হলো লিড (২) সালফাইড, যা চূর্ণ করে এটা তৈরী করা হয় | ইসলামে চোখে সুরমা লাগানো বা সুরমা ব্যবহার করা সুন্নত | রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) বলেন, ‘তোমরা ঘুমানোর সময় চোখে ‘ইছমাদ’ সুরমা লাগাও | এতে চোখের দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি হয় এবং ভ্রুতে নতুন লোম গজায়’ (ইবনু মাজাহ হা/৩৪৯৬, ছহীহাহ হা/৭২৪) | অন্য বর্ণনায় তিনি বলেন, এটা চোখের ময়লা দূর করে এবং চক্ষু পরিষ্কার করে (ত্বাবারাণী, ছহীহাহ হা/৬৬৫) | তবে সুরমার ঔষধি গুন থাকলেও, মাত্রাতিরিক্ত সীসার (লেড সালফাইড ও গ্যালোনা) এর উপস্থিতি চোখের জন্য বিপদজনক হতে পারে |
পারমানবিক ব্যাসার্ধ মূখস্থ করতে হবে।এটা বিজ্ঞানীরা পরীক্ষা করে বের করেছেন।তবে ২য় পর্যায় এ দেখেন বাম থেকে ডানে ০.৫ করে বাড়ছে।এভাবেই মনে রাখতে পারেন।
আপনাকে ফল মূল খেতে হবে।আয়োডিন যুক্ত লবন খেতে হবে।তাছাড়া প্রোটিন ও লিপিড খেতে হবে।তাহলে ব্রেইন সুগঠিত হবে।আই কিউ বাড়াতে যা করা উচিত কম্পিউটার আর সেলফোনের পাশাপাশি মানুষের সঙ্গে মেশা। মাঝেমধ্যে এরকম প্রযুক্তির সুইচ অফ করে মনকে আরাম দেয়া। দিনে অন্তত কয়েক ঘণ্টা এসব বন্ধ রেখে ভাবা, হাঁটা, ধ্যান করা, ব্যায়াম করা। বেশি বই পড়া, টিভি কম দেখা। নিয়মিত যোগ, প্রাণায়াম, ধ্যান করা। যা করা উচিত নয় সারাদিন টিভির পরদায় চোখ না রাখা। খুব বেশি তথ্য মাথায় ঢোকাতে না যাওয়া। এক সঙ্গে একাধিক কাজ করতে না যাওয়া। অহেতুক টিভি, কম্পিউটারের সামনে বসে না থাকা। অকারণে মোবাইল ব্যবহার না করা। কাজের সময় মোবাইল না ধরা। বেশি ক্যালকিউলেটর বা কম্পিউটার অথবা মোবাইলে রিমাইন্ডার ব্যবহার না করে মগজটাকে নিয়মিত খাটাতে না ভোলা।
টিভির দোকানে গিয়ে এন্টেনা কিনুন।লম্বা এন্টেনা কিনবেন গোলগুলা ভাল না। আর এন্টেনাটা যত উচুতে লাগাবেন তত ক্লিয়ার আসবে।সাথে টিভির সাথে এন্টেনা কানেক্ট করার প্লাগটাও বদলান।

mobile servicing এর কাজ শিখতে চাই?

mdkawserrand1
Jan 22, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
আপনাকে নিকটস্থ মোবাইল সার্ভিসিং সেন্টার এ যোগাযোগ করতে হবে।অথবা যারা এই কাজ করে তাদের সাথে সময় দিন।শিখতে পারবেন।৬ মাস মেয়াদী কোর্স আছে।আপনি জেলা যুব উন্নয়ন সেন্টার এ কথা বলতে পারেন।

নামাজে তাওউজ তাসমিয়া পরতে হয়?

mdkawserrand1
Jan 22, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
রুকু সিজদায় তিন তাসবিহ পরিমাণ সময় থাকতে হবে।এই সময় তাউওজ ও তাসমিয়া পড়া সুন্নত।না পরলে গুনাহ হবে।
লেখাপড়া করতে পারবেন।স্কুল এ ভর্তি হতে পারেন।নৈশ বিদ্যালয় আছে।সেখানে দেখতে পারেন।উম্মুক্ত বিদ্যালয় ও দেখতে পারেন।

সকালে শরীরে এত্ত উত্তেজনা আসে কেন?

mdkawserrand1
Jan 22, 2016-এ প্রশ্ন করেছেন
আপনাকে কলেজ এ গিয়ে অধ্যক্ষ বরাবর আবেদন করতে হবে। নির্ধারিত ফি জমা দিলে ২-১ দিনের মধ্যেই কেনসেল করতে পারবেন।তবে ন্যাশনাল ইউনিভারসিটি হলে গাজিপুর থেকে আপনার কাগজ পত্র আনতে হব
আপনাকে কলেজ এ গিয়ে অধ্যক্ষ বরাবর আবেদন করতে হবে।নির্ধারিত ফি জমা দিলে ২-১ দিনের মধ্যেই কেনসেল করতে পারবেন।তবে ন্যাশনাল ইউনিভারসিটি হলে গাজিপুর থেকে আপনার কাগজ পত্র আনতে হবে
শরিয়তের দৃষ্টিতে দাঁড়ি না রাখা আমার্জনীয় অপরাধ। আল্লাহ্পাকের উপর পূর্ণ আস্থা ও আল্লাহ্পাকের ধমক সম্পর্কে পরিপূর্ণ বিশ্বাস স্থাপন করলে, সব মুসলমানের পক্ষেই দাঁড়ি রাখা সম্ভব। যার দিলে আল্লাহ সোবহানাতা’আলার ভয় বিদ্যমান, একমাত্র সেই ব্যক্তি দাঁড়ি রাখতে সক্ষম। যাদের অন্তরে মানুষের ভয় বিদ্যমান, তারা কখনো দাঁড়ি রাখতে পারে না। এ ধরণের লোক মুখে মুখে যত শক্তিই দেখাক, আসলে সে মানুষের ভয়ে প্রচন্ড ভীতু। দাঁড়ি রাখলে অমুকে কি বলবে বা মনে করবে অথবা ভাবীদের আসর থেকে বঞ্চিত হবার ভয়, কিংবা চাকুরি চলে যাবার ভয় - সবসময় তাকে ঘিরে রাখে। পরিপূর্ণ ইসলামিক জ্ঞানের অভাবে - নিজেকে দেখতে কেমন লাগবে অথবা দাঁড়ি রাখলে অন্যে কি মনে করবে ইত্যাদি বহু ধরনের শয়তানের ধোকায় মোহাবিষ্ট হয়ে অনেক মুসলমান ভাইয়েরা ওয়াজিব থেকে বঞ্চিত হয়ে চব্বিশ ঘন্টা গুনাহে জর্জরিত হচ্ছে। এটাই একমাত্র গুনাহ, যা নাকি বান্দার খাতায় রাতদিন চব্বিশ ঘন্টা লেখা হচ্ছে।
আপনার এলাকা নেটওয়ার্ক থেকে খুব দূরে হতে পারে।ফোন সেটিং এ নেটওয়ার্ক কুয়ালিটি আছে।ওখান থেকে 3g বা 2 g এর মেনু আসে।একটা সিলেক্ট করেন

porn দেখার সাথে কি ব্রণ এর সম্পর্ক আছে?

mdkawserrand1
Jan 22, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
না কোন সম্পর্ক নেই।ব্রনের কারন;ব্রণের সুনির্দিষ্ট কারণ সম্পর্কে বিজ্ঞানীরা নিশ্চিত না হলেও সাধারণত দেখা যায় হজমের গোলমাল, সুরাপান, বয়ঃসন্ধিকালে কিংবা অন্যান্য কারণে অনেকের মুখে ব্রণ হয়। আবার অনেকেই বিশেষজ্ঞ মনে করেন, ব্রনের অনেকগূলো কারণের ভিতর বংশগত কারণ একটি অন্যতম কারণ। প্রোপাইনি ব্যাকটেরিয়াম একনিস নামক এক ধরনের জীবাণু স্বাভাবিকভাবেই লোমের গোড়াতে থাকে। এন্ড্রোজেন হরমনের প্রভাবে সেবাম-এর নিঃসরণ ( মাথা, মুখ, ইত্যাদি জায়গায় তেলতেলে ভাব ) বেরে যায় এবং লোমের গোড়াতে উপস্থিত জীবাণু সেবাম থেকে ফ্রী ফ্যাটি অ্যাসিড তৈরি করে। অ্যাসিডের কারণে লোমের গোড়ায় প্রদাহের সৃষ্টি হয় এবং লোমের গোড়ায় কেরাটিন জমা হতে থাকে।

কাদের যাকাত দেয়া প্রয়োজন?

mdkawserrand1
Jan 22, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
নিম্নলিখিত আট খাতে যাকাতের অর্থ ব্যয় করা ফরয। পবিত্র কুরআন শরীফ-এ আল্লাহ পাক তিনি বলেন, “যাকাত কেবল ফকির, মিসকিন ও যাকাত আদায়কারী কর্মচারীদের জন্য, যাদের চিত্ত আকর্ষণ করা প্রয়োজন তাদের জন্য অর্থাৎ নও মুসলিম, দাস মুক্তির জন্য, ঋণে জর্জরিত ব্যক্তিদের ঋণমুক্তির জন্য, আল্লাহ পাক উনার রাস্তায় জিহাদকারী এবং মুসাফিরদের জন্য। এটা আল্লাহ পাক উনার নির্ধারিত বিধান এবং আল্লাহ পাক সর্বজ্ঞ প্রজ্ঞাময়।” (সূরা তওবা : আয়াত শরীফ- ৬০) ১। ফকির : ফকির ওই ব্যক্তি যার নিকট খুবই সামান্য সহায় সম্বল আছে। ২। মিসকীন : মিসকীন ওই ব্যক্তি যার আয়ের চেয়ে ব্যয় বেশি এবং আতœসম্মানের খাতিরে কারো কাছে হাত পাততে পারে না। ৩। আমিল বা যাকাত আদায় ও বিতরণের কর্মচারী। ৪। মন জয় করার জন্য নওমুসলিম : অন্য ধর্ম ছাড়ার কারণে পারিবারিক, সামাজিক ও আর্থিকভাবে বঞ্চিত হয়েছে। অভাবে তাদের সাহায্য করে ইসলামে সুদৃঢ় করা। ৫। ঋণমুক্তির জন্য : জীবনের মৌলিক বা প্রয়োজনীয় চাহিদা পূরণের জন্য সঙ্গতকারণে ঋণগ্রস্ত ব্যক্তিদের ঋণ মুক্তির জন্য যাকাত প্রদান করা যাবে। ৬। দাসমুক্তি : কৃতদাসের মুক্তির জন্য। ৭। ফি সাবিলিল্লাহ বা জিহাদ : অর্থাৎ ইসলামকে বোল-বালা বা বিজয়ী করার লক্ষ্যে যারা কাফির বা বিধর্মীদের সাথে জিহাদে রত সে সকল মুজাহিদদের প্রয়োজনে যাকাত দেয়া যাবে। ৮। মুসাফির : মুসাফির অবস্থায় কোন ব্যক্তি বিশেষ কারণে অভাবগ্রস্থ হলে ওই ব্যক্তির বাড়িতে যতই ধন-সম্পদ থাকুক না কেন তাকে যাকাত প্রদান করা যাবে।
দানন খয়রাত করাকে সাদকাহ বলে।সাদকা দুই প্রকার।১)সাধারণ সাদকা২)সাদকা জারিয়া।টাকা পয়সা,ভাল ব্যবহার করা সাধারণ সাদকা। সাদকা জারিয়া উন্নয়ন মুলক কাজ।রাস্তা নির্মাণ, স্কুল কলেজ,মাদ্রাসা নির্মান ইত্যাদি। আবু হুরায়াহ (রাঃ) বর্ণিত হাদিসে এসেছে, রাসুল পাক (সাঃ) বলেন: “যখন কোন ব্যক্তি মৃত্যুবরন করে, তাঁর সকল আমল বন্ধ হয়ে যায়, তিনটি ব্যতিতঃ ছাদকায়ে জারিয়া, উপকারী জ্ঞান অথবা সৎকর্মশীল পুত্র যে তার জন্য দুয়া করে”। (সহিহ মুসলিম শরীফ, হাদিস নং-১৬৩১) ইমাম আন-নববী (রঃ)এই হাদিস খানার উপর মন্তব্য করতে যেয়ে বলেছেন: “ছাদকায়ে জারিয়া হল ওয়াকফ”। (শরহে মুসলিম -১১/৮৫)।
মান্দারিন (চীনা ভাষা)....
আপনি দূরে গেল আপনার অভাবটা সে বুঝতে পারে।হয়ত সে খুব রাগি।তাই এমন হচ্ছে।আপনারা নিজেরা ভালবাসার মাধ্যমে এই সনস্যা দূর করতে পারেন।

স্বপ্নদোষ হলে কি করা উচিত?

mdkawserrand1
Jan 22, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
এটা প্রাকৃতিক ঘটনা।এমন হলে আপনার ফরজ গোসল করে পবিত্র হতে হবে।এটা স্বভাবিক ভাবতে হবে
আপনি যে কম্পানির ফোন কিনবেন তার কাস্টমার কেয়ার এ যোগাযোগ করেন।স্যামসাং,ওকাপিয়া,সিম্পফনি কিস্তিতে মোবাইল দেয়। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, ব্র্যাক ব্যাংক এবং সিটি ব্যাংকের অ্যামেক্স ক্রেডিট কার্ডের সাহায্যে গ্রাহকেরা মাসিক কিস্তির টাকা শোধ করতে পারবেন। কাছের সব স্যামসাং স্টোরে এ সুবিধা পাওয়া যাবে।
জিম এ যেতে পারেন ।সেখানে রোলিং এ ঝুলে ব্যায়াম করেন।লম্বা হতে পারবেন।

garments এর কাজ শিখতে চাই?

mdkawserrand1
Jan 21, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
মার্সেন্ডাইজিং এর জন্য ৬ মাস মেয়াদি কোর্স আছে.।নিটা থেকে করতে পারবেন।১০-১৫ হাজার লাগতে পারে।টেস্টটাইল বিষয়ক সকল কোর্স নিটায় কিরা জায়

symphony v80 সম্পর্কে একটু বলুন?

mdkawserrand1
Jan 21, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
Networks: SIM: Dual SIM, Dual Standby 2G: GSM 850 / 900 / 1800 / 1900 MHz 3G: HSDPA 2100 MHz Chipset: CPU: 1.3 GHz Quad-Core GPU: Mali 400 Display: Size: 4.7 inch Type: IPS Resolution: qHD [960 x 540] Camera: Back Camera: 8 MP Zoom: Up to 4X Front Camera: 2 MP Flash: Yes Auto Focus: Yes (Back Camera) Features: Auto Focus, Flashlight, Continuous Shot, Zoom up to 4X Memory: RAM: 1GB ROM: 8GB Micro SD Card: Yes, Expandable up to up to 32 GB Phonebook Entries: Unlimited

সিনকারা খেলে কি helth বাড়ে?

mdkawserrand1
Jan 21, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
সিনকারা মুখের রুচির জন্য সেবন করা হয়।ফলে খাবার খেতে ভাল লাগবে।তখন সাস্থ্য বাড়বে।ভিটামিন পাবেন।
এটা খুব কঠিন ব্যাপার। তবে চেস্টা করেন।প্রতিটা গ্রুপ মনে রাখার কিছু ছন্দ আছে।যেমন ১ম গ্রুপ :লি না কে রুবি সাজিয়ে ফেলল।এভাবে ছন্দ তৈরি করুন।

কি ভাবে call record করব?

mdkawserrand1
Jan 20, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
প্লে স্টোর এ অটো কল রেকর্ডার এর অনেক এপ আছে।এগুলো ভাল কাজও করে।
লেকচার বেশি ভাল।এতে অনেক প্রশ্ন থাকে আর ভূল কম থাকে।তাছাড়া অনেক তথ্যবহুল আর সুন্দর ভাবে সাজানো।
কই মাছ এর প্রান খুব লাপালাপি করে।কাটার পর গরম তেলে দিলেও লাপালাপি করে।

কি ভাবে Facebook এ বেশি like পাওয়া যায়?

mdkawserrand1
Jan 20, 2016-এ উত্তর দিয়েছেন
ফেসবুক লাইক আসে আপনি বন্ধুদের মধ্যে কতটা জনপ্রিয় এর উপর নির্ভর করে।তাছাড়া আপনার ফ্রেন্ড লিস্টে অনেক বন্ধু থাকতে হবে।এবং আপ্নাকেও অন্যের পোস্টে লাইক দিতে হবে
বাসরঘরে স্ত্রীর মাথার অগ্রভাগে ডান হাত রাখা এবং দু’আ পড়াঃ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি বলেনঃ ﺇِﺫَﺍ ﺃَﻓَﺎﺩَ ﺃَﺣَﺪُﻛُﻢُ ﺍﻣْﺮَﺃَﺓً ﺃَﻭْ ﺧَﺎﺩِﻣًﺎ ﺃَﻭْ ﺩَﺍﺑَّﺔً ﻓَﻠْﻴَﺄْﺧُﺬْ ﺑِﻨَﺎﺻِﻴَﺘِﻬَﺎ ﻭَﻟْﻴُﺴَﻢِّ ﺍﻟﻞَّ ﻩَ ﻋَﺰَّ ﻭَﺟَﻞَّ ﻭَﻟْﻴَﻘُﻞِ ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ﺇِﻧِّﻰ ﺃَﺳْﺄَﻟُﻚَ ﺧَﻴْﺮَﻫَﺎ ﻭَﺧَﻴْﺮَ ﻣَﺎ ﺟُﺒِﻠَﺖْ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺃَﻉُﻭﺫُ ﺑِﻚَ ﻣِﻦْ ﺷَﺮِّﻫَﺎ ﻭَﺷَﺮِّ ﻣَﺎ ﺟُﺒِﻠَﺖْ ﻋَﻠَﻴْﻪِ . তোমাদের কেউ যখন কোনো নারী, ভৃত্য বা বাহন থেকে উপকৃত হয় (বিয়েবা খরিদ করে) তবে সে যেন তার মাথার অগ্রভাগ ধরে, বিসমিল্লাহ পড়ে এবং বলেঃ ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ﺇِﻧِّﻰ ﺃَﺳْﺄَﻟُﻚَ ﺧَﻴْﺮَﻫَﺎ ﻭَﺧَﻴْﺮَ ﻣَﺎ ﺟُﺒِﻠَﺖْ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺃَﻋُﻮﺫُ ﺑِﻚَ ﻣِﻦْ ﺷَﺮِّﻫَﺎ ﻭَﺷَﺮِّ ﻣَﺎ ﺟُﺒِﻠَﺖْ ﻋَﻠَﻴْﻪِ . (হে আল্লাহ পাক আমি আপনার কাছে আমার স্ত্রীর এবং উনার স্বভাবের কল্যাণ প্রার্থনা করছি এবং উনার ও উনার স্বভাবের অকল্যাণ থেকে আশ্রয় প্রার্থনা করছি।)’ ২- স্বামী-স্ত্রী উভয়ে একসঙ্গে দুই রাকা‘ত সালাত আদায় করাঃ আবদুল্লাহ ইবন মাসঊদ রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি ইরশাদ করেন, স্ত্রী যখন স্বামীর কাছে যাবে, স্বামী তখন দাঁড়িয়ে যাবেন। আর স্ত্রীও দাঁড়িয়ে যাবেন তার পেছনে। অতপর তারা একসঙ্গে দুই রাকা‘ত সালাত আদায় করবেন এবং বলবেনঃ ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ﺑَﺎﺭِﻙْ ﻟِﻲ ﻓِﻲ ﺃَﻫْﻠِﻲ، ﻭَﺑَﺎﺭِﻙْ ﻟَﻬُﻢْ ﻓِﻲَّ، ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ﺍﺭْﺯُﻗْﻨِﻲ ﻣِﻨْﻬُﻢْ ﻭَﺍﺭْﺯُﻕْ ﻫُﻢْ ﻣِﻨِّﻲ، ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ﺍﺟْﻤَﻊَ ﺑَﻴْﻨَﻨَﺎ ﻣَﺎ ﺟَﻤَﻌْﺖَ ﺇِﻟَﻰ ﺧَﻴْﺮٍ، ﻭَﻓَﺮِّﻕْ ﺑَﻴْﻨَﻨَﺎ ﺇِﺫَﺍ ﻓَﺮَّﻕْﺕَ ﺇِﻟَﻰ ﺧَﻴْﺮٍ . ‘হে আল্লাহ পাক আপনি আমার জন্য আমার পরিবারে বরকত দিন আর আমার ভেতরেও বরকত দিন পরিবারের জন্য। আয় আল্লাহ পাক, আপনি উনাদের থেকে আমাকে রিযিক দিন আর আমার থেকে উনাদেরও রিযিক দিন। হে আল্লাহ পাক আপনি আমাদের যতদিন একত্রে রাখেন কল্যাণেই একত্র রাখুন আর আমাদের মাঝে যখন বিচ্ছেদ ঘটিয়ে দেবেন তখন কল্যাণের পথেই বিচ্ছেদ ঘটাবেন।’ ৩- স্ত্রীর সঙ্গে সহবাসের সময় পড়ার দু‘আ। স্ত্রী সহবাসকালে নিচের দু’আ পড়া সুন্নত। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি বলেন, ﻟَﻮْ ﺃَﻥَّ ﺃَﺣَﺪَﻛُﻢْ ﺇِﺫَﺍ ﺃَﺭَﺍﺩَ ﺃَﻥْ ﻳَﺄْﺗِﻲَ ﺃَﻫْﻠَﻪُ ﻓَﻘَﺎﻝَ ﺑِﺎﺳْﻢِ ﺍﻟﻠﻪِ ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ﺟَﻨِّﺒْﻨَﺎ ﺍﻝ ﺷَّﻴْﻄَﺎﻥَ ﻭَﺟَﻨِّﺐِ ﺍﻟﺸَّﻴْﻄَﺎﻥَ ﻣَﺎ ﺭَﺯَﻗْﺘَﻨَﺎ ، ﻓَﺈِﻧَّﻪُ ﺇِﻥْ ﻳُﻘَﺪَّﺭْ ﺑَﻴْﻨَﻬُﻤَﺎ ﻭَﻟَﺪٌ ﻓِﻲ ﺫَﻟِﻚَ ﻟَﻢْ ﻳَﻀُﺮُّﻩُ ﺷَﻴْﻄَﺎﻥٌ ﺃَﺑَﺪًﺍ . ‘তোমাদের কেউ যদি স্ত্রী সঙ্গমকালে বলেনঃ ﺑِﺎﺳْﻢِ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ﺟَﻨِّﺒْﻨَﺎ ﺍﻟﺸَّﻴْﻄَﺎﻥَ ﻭَﺟَﻨِّﺐِ ﺍﻟﺸَّﻴْﻄَﺎﻥَ ﻣَﺎ ﺭَﺯَﻗْﺘَﻨَﺎ (আল্লাহ পাক উনার নামে শুরু করছি, হে আল্লাহ পাক আপনি আমাদেরকে শয়তানের কাছ থেকে দূরে রাখুন আর আমাদের যা দান করেন তা থেকে দূরে রাখুন শয়তানকে।) তবে সে মিলনে কোনো সন্তান দান করা হলে শয়তান কখনো উহার ক্ষতি করতে পারবে না।’ ৪- নিষিদ্ধ সময় ও জায়গা থেকে বিরত থাকাঃ আবূ হুরায়রা রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি বলেনঃ ﻣَﻦْ ﺃَﺗَﻰ ﺣَﺎﺋِﻀًﺎ ، ﺃَﻭْ ﺍﻣْﺮَﺃَﺓً ﻓِﻲ ﺩُﺑُﺮِﻫَﺎ ، ﺃَﻭْ ﻛَﺎﻫِﻨًﺎ ﻓَﺼَﺪَّﻗَﻪُ ﺑِﻤَﺎ ﻳَﻘُﻮﻝُ ، ﻓَﻘَﺪْ ﻛَﻔَﺮَ ﺑِﻤَﺎ ﺃَﻧْﺰَﻝَ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻠَﻰ ﻣُﺤَﻤَّﺪٍ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ . যে ব্যক্তি কোনো ঋতুবতী মহিলার সঙ্গে কিংবা স্ত্রীর মলদ্বারে সঙ্গম করে অথবা গণকের কাছে যায় এবং তার কথায় বিশ্বাস স্থাপন করে, সে যেন মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উনার প্রতি যা অবতীর্ণ হয়েছে তা অস্বীকার করলো।’ ৫- ঘুমানোর আগে অযূ বা গোসল করাঃ স্ত্রী সহবাসের পর সুন্নত হলো অযূ বা গোসল করে তবেই ঘুমানো। অবশ্য গোসল করাই উত্তম। আম্মার বিন ইয়াসার রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি বলেনঃ ﺛَﻼَﺛَﺔٌ ﻻَ ﺗَﻘْﺮَﺑُﻬُﻢُ ﺍﻟْﻤَﻼَﺋِﻜَﺔُ ﺟِﻴﻔَﺔُ ﺍﻟْﻜَﺎﻓِﺮِ ﻭَﺍﻟْﻤُﺘَﻀَﻤِّﺦُ ﺑِﺎﻟْﺨَﻠُﻮﻕِ ﻭَﺍﻟْﺠُﻨُﺐُ ﺇِ ﻻَّ ﺃَﻥْ ﻳَﺘَﻮَﺿَّﺄَ . ‘তিন ব্যক্তির কাছে ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনারা আসেন নাঃ কাফের ব্যক্তির লাশ, জাফরান ব্যবহারকারী এবং অপবিত্র শরীর বিশিষ্ট ব্যক্তি, যতক্ষণ না সে অযূ করে।’ ৬- ঋতুবতীর স্ত্রীর সঙ্গে যা কিছুর অনুমতি রয়েছেঃ হ্যা, স্বামীর জন্য ঋতুবতী স্ত্রীর সঙ্গে সঙ্গমপথ ব্যবহার ছাড়া অন্য সব আচরণের অনুমতি রয়েছে। স্ত্রী পবিত্র হবার পর গোসল করলে তার সঙ্গে সবকিছুই বৈধ। কারণ, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি বলেনঃ ﺍﺻْﻨَﻌُﻮﺍ ﻛُﻞَّ ﺷَﻲْﺀٍ ﺇِﻻَّ ﺍﻟﻨِّﻜَﺎﺡَ . সবই করতে পারবে কেবল সঙ্গম ছাড়া। ৭- বিয়ের নিয়ত শুদ্ধ করাঃ নারী-পুরুষের উভয়ের উচিত বিয়ের মাধ্যমে নিজকে হারামে লিপ্ত হওয়া থেকে বাঁচানোর নিয়ত করা। তাহলে উভয়ে এর দ্বারা ছাদকার ছাওয়াব লাভ করবেন। কারণ, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি বলেনঃ ﻭَﻓِﻲ ﺑُﻀْﻊِ ﺃَﺣَﺪِﻛُﻢْ ﺻَﺪَﻗَﺔً ، ﻗَﺎﻟُﻮﺍ : ﻳَﺎ ﺭَﺳُﻮﻝَ ﺍﻟﻠﻪِ ، ﺃَﻳَﺄْﺗِﻲ ﺃَﺣَﺪُﻧَﺎ ﺷَﻬْﻮَ ﺗَﻪُ ، ﻭَﻳَﻜُﻮﻥُ ﻟَﻪُ ﻓِﻴﻪِ ﺃَﺟْﺮٌ ؟ ﻗَﺎﻝَ : ﺃَﺭﺃَﻳْﺘُﻢْ ﻟَﻮْ ﻭَﺿَﻌَﻬَﺎ ﻓِﻲ ﺍﻟْﺤَﺮَﺍﻡِ ﺃَﻛَﺎﻥَ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻓِﻴﻬَﺎ ﻭِﺯْﺭٌ ؟ ﻓَﻜَﺬَﻟَﻚَ ﺇِﺫﺍ ﻭَﺿَﻌَﻬَﺎ ﻓِﻲ ﺍﻟْﺤَﻼﻝِ ﻛَﺎﻥَ ﻟَﻪُ ﻓِﻴﻬَﺎ ﺃَﺟْﺮٌ . তোমাদের সবার স্ত্রীর সঙ্গমপথে রয়েছে ছাদকা। সাহাবায়ে কেরাম রাদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগন উনারা জিজ্ঞেস করলেন ইয়া রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের কেউ কি তার জৈবিক চাহিদা মেটাবে আর তার জন্য সে কি নেকী লাভ করবে? তিনি বললেন, ‘তোমরা কি মনে করো যদি সে ওই চাহিদা হারাম উপায়ে মেটাতো তাহলে তার জন্য কোনো গুনাহ হত না? (অবশ্যই হতো) অতএব তেমনি সে যখন তা হালাল উপায়ে মেটায়, তার জন্য নেকী লেখা হয়।’ ৮- স্ত্রী সান্বিধ্যের গোপন তথ্য প্রকাশ না করাঃ বিবাহিত ব্যক্তির আরেকটি কর্তব্য হলো স্ত্রী সংসর্গের গোপন তথ্য কারো কাছে প্রকাশ না করা। র

Loading...