ভিডিও কলে ডাক্তারের পরামর্শ পেতে Play Store থেকে ডাউনলোড করুন Bissoy অ্যাপ

শেয়ার করুন বন্ধুর সাথে
Rt
Call

উপকরণ : জলপাই - ১ কেজি আস্ত রসুন - ৩ টি ( কুচানো ) আস্ত লাল মরিচ - ১০ টি তেজপাতা - ৩ টি এলাচ - ৪ টি দারচিনি - ২ টি পাঁচ ফোড়ন - ৩ টেবিল চামচ সরিষা বাটা - ৩ টেবিল চামচ লাল মরিচের গুঁড়া -১ চা চামচ হলুদের গুঁড়া -২ চা চামচ ভিনেগার - ১ কাপ চিনি - ২ কাপ বা আপনার স্বাদ মত সরিষার তেল - ১/২ লিটার লবণ পদ্ধতি : জলপাই ধুয়ে সিদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে জলপাই গুলা ভর্তা করুন। ভর্তা করা জলপাই এ লবণ , হলুদের গুঁড়া , লাল মরিচের গুঁড়া , সরিষা বাটা ও ৪ টেবিল চামচ সরিষার তেল দিয়ে ভালোভাবে মাখিয়ে নিন ও সূর্যের আলো বা রোদে ৪ ঘণ্টা রাখুন। একটি বড় পাত্রে তেল গরম করে আস্ত লাল মরিচ ,তেজপাতা , রসুন, পাঁচ ফোড়ন , এলাচ ,দারচিনি দিয়ে ৪-৫ সেকেন্ড ভাজুন। তারপর তাতে জলপাই দিয়ে আবার নাড়তে থাকুন। চিনি ও লবণ দিয়ে নেড়ে ৫ মিনিট রান্না করুন। এরপর ভিনেগার দিয়ে অল্প আঁচে আরো ৫ মিনিট রান্না করুন। তৈরী হয়ে গেল জলপাই এর আচার। ঠাণ্ডা হলে কাঁচের জারে সংরক্ষণ করুন।

Yakub Ali
Call

উপকরণ: জলপাই ২৫০ গ্রাম, চিনি ২ টেবিল চামচ, শুকনা মরিচের কুচি ২ টেবিল চামচ, রসুন আস্ত কোয়া ১৫-২০টি, সিরকা ১ বোতল, আদা টুকরা করে কাটা ১০-১৫ টুকরা, লবণ ১ চা-চামচ।

প্রণালি: জলপাইগুলো ধুয়ে-মুছে এক রকম করে কেটে রাখতে হবে। শুকনা মরিচ বিচি ফেলে টুকরা করে কেটে নিতে হবে। রসুনের খোসা ছাড়িয়ে কাপড়ে মুছে নিতে হবে। একটা শুকনা পাত্রে সব একসঙ্গে কাঠের চামচ দিয়ে মাখিয়ে বায়ুরোধী বয়ামে রেখে দিতে হবে। এক মাস ধরে নিয়মিত করে এক মাস রোদে দিতে হবে। এর মধ্যে বয়ামের মুখ খোলা যাবে না। খেয়াল রাখতে হবে, বয়ামের আচার যেন পুরোটা সিরকাতে ভেজানো থাকে। আর কাঠের চামচ ব্যবহার করতে হবে।

===========প্রথম আলো

Manik Raj
Call

image

নানা স্বাদের নানা ঢং এ আচার বানাতে জলপাই সেরা। তাছাড়া কেউ থাকেন জলপাই আচারের প্রথম সারির ভক্ত।

সে সব ভক্তদের মন মজাতে সক্ষম আস্ত জলপাইয়ের টক মিষ্টি ঝাল আচার। তাই আজই শিখে নেয়া যাক সেই আচার বানানোর সহজ পদ্ধতি।

যা যা লাগবে

জলপাই ১ কেজি, হলুদ ১ চা চামচ, সরিষার তেল ২০০ গ্রাম, পাঁচফোড়ন ১ চা চামচ, কালিজিরা আধা চা চামচ, চিনি ১ কাপ, সিরকা ৪ টেবিল চামচ, বিট লবণ আধা চা চামচ, রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ, রসুন ফালি এক টেবিল চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, এলাচ-দারুচিনি-লবঙ্গ-গোলমরিচ-পাঁচফোড়ন ভাজা গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন

জলপাই ধুয়ে তাতে লম্বালম্বি তিনটা চির দিয়ে ১ টেবিল চামচ লবণ দিয়ে পানিতে ২ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। পানি থেকে তুলে লবণ ও হলুদ মাখিয়ে ১ দিন রোদে উল্টেপাল্টে শুকিয়ে নিতে হবে। এবার কড়াইয়ে তেল গরম করে পাঁচফোড়ন, কালিজিরা, তিল, আদা, রসুন দিয়ে একটু কষিয়ে জলপাই ঢেলে দিন। একটু নেড়ে চিনি, সিরকা দিয়ে আবার ভালো করে নাড়তে হবে। এরপর মরিচ গুঁড়া দিয়ে আবারও নাড়তে হবে। নিজের পছন্দমতো টক, ঝাল, মিষ্টির পরিমাণটা ঠিক করে নিতে পারেন। জলপাই সেদ্ধ হলে চুলা কমিয়ে দমে রাখুন ১৫ থেকে ২০ মিনিট। নামানোর আগে ভাজা মসলার গুঁড়া ছিটিয়ে দিন। আচার তৈরির পর কড়া রোদে কয়েক দিন রেখে কাচের বয়ামে সংরক্ষণ করলে প্রায় সারা বছরই ভালো থাকে। জলপাই আচারের ভালো রাখা নিশ্চিত করতে মাঝেমধ্যেই রোদে দিতে পারেন। এবার ভাজি, ভর্তা বা খিচুড়ির সঙ্গে পরিবেশন করতে পারেন মজার স্বাদের জলপাই আচার। চাইলে কেউ শুধু খেতে পারেন টক ঝাল মিষ্টি আচার।

afruja
Call

উপকরণ :

জলপাই - ১ কেজি 

আস্ত রসুন - ৩ টি ( কুচানো )

আস্ত লাল মরিচ - ১০ টি 

তেজপাতা - ৩ টি 

এলাচ - ৪ টি 

দারচিনি - ২ টি

পাঁচ ফোড়ন  - ৩ টেবিল চামচ 

সরিষা বাটা - ৩ টেবিল চামচ

লাল মরিচের গুঁড়া -১ চা চামচ 

হলুদের গুঁড়া -২ চা চামচ 

ভিনেগার - ১ কাপ 

চিনি - ২ কাপ বা আপনার স্বাদ  মত 

সরিষার তেল - ১/২ লিটার 

লবণ 

পদ্ধতি :

জলপাই ধুয়ে সিদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে জলপাই গুলা ভর্তা করুন।  

ভর্তা করা জলপাই এ  লবণ , হলুদের গুঁড়া , লাল মরিচের গুঁড়া , সরিষা  বাটা ও ৪ টেবিল চামচ সরিষার তেল দিয়ে ভালোভাবে মাখিয়ে নিন ও সূর্যের আলো  বা রোদে  ৪ ঘণ্টা  রাখুন। 

একটি বড় পাত্রে তেল গরম করে আস্ত লাল মরিচ ,তেজপাতা , রসুন, পাঁচ ফোড়ন  , এলাচ ,দারচিনি দিয়ে ৪-৫ সেকেন্ড ভাজুন।  তারপর তাতে জলপাই দিয়ে আবার নাড়তে থাকুন। চিনি ও লবণ  দিয়ে নেড়ে ৫ মিনিট রান্না করুন। 

এরপর ভিনেগার দিয়ে অল্প আঁচে আরো ৫ মিনিট রান্না করুন।   

তৈরী হয়ে গেল জলপাই এর আচার। ঠাণ্ডা  হলে কাঁচের জারে  সংরক্ষণ করুন।