user-avatar

MdFaridurReza

◯ MdFaridurReza

MdFaridurReza এর সম্পর্কে
যোগ্যতা ও হাইলাইট
পুরুষ
Unspecified
Unspecified
প্রশ্ন-উত্তর সমূহ 350.58k বার দেখা হয়েছে এই মাসে 1.68k বার

চালানো যাবে কি?

MdFaridurReza
Feb 18, 03:35 PM
পর্যাপ্ত ভোল্টেজ পেলে এবং ব্যাটারির অ্যাম্পিয়ার-আওয়ার বেশি হলে চালানো যাবে।
না। এটা শুধুমাত্র ফেসবুক কর্তৃপক্ষ দেখতে পাবে।
ব্রাশ দিয়ে সঠিক কায়দায় অর্থাৎ দাঁতের (উপর থেকে নিচে) এভাবে ব্রাশ করতে হবে। ভালো সফট ব্রাশ ব্যবহার করবেন। খুব বেশি চাপ দিয়ে দাঁত ব্রাশ করবেন না। দাঁতের মাড়ির যেকোন সমস্যা থাকলে দন্ত বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিবেন। এক্ষেত্রে অবহেলা করলে ভবিষ্যতে দাঁতের সমস্যা আরো বাড়তে থাকবে।
বেটনোভেট এন ক্রিমটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন দাগযুক্ত স্থানে। এটি বেশ কার্যকর।
আপনি প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে উক্ত স্থানে এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল ম্যাসাজ করলে দাগ হালকা হয়ে যাবে।
মানসিক সমস্যা বা রোগের কারণেও এমনটি হতে পারে। আপনি চেষ্টা করবেন হাসিখুশি থেকে সকলের সাথে মিশতে। মনে রাখবেন খুশির কথা কারো কাছে শেয়ার করলে দ্বিগুণ হয় আর কষ্টের কথা শেয়ার করলে সেটা অর্ধেক হয়ে যায়। তাই ভালো বন্ধুদের সাথে মেশা জরুরি।

ঘাম বের হয় কনো?

MdFaridurReza
Dec 8, 05:46 PM
ঘাম বের হয় শরীরকে ঠান্ডা রাখার জন্য। গরমের দিনে বা কাজকর্মের ফলে শরীর গরম হয়ে গেলে ঘাম নির্গত হতে শুরু করে। ঘাম বাষ্পীভূত হবার সময় দেহ থেকে সুপ্ততাপ গ্রহন করে। ফলে শরীর ঠান্ডা হয়।
এভাবে বাতি জ্বলবেনা। কারণ উক্ত বাতিটি ২৫ ওয়াটের এবং এতে ইনপুট ভোল্টেজ কমপক্ষে ১০০ ভোল্ট বা তার বেশি সাপ্লাই দিতে হবে। ব্যাটারি বা এডাপ্টার দিয়ে আপনি এলইডি বাতি জ্বালাতে পারবেন। অথবা ব্যাটারির সাথে ইনভার্টার লাগিয়ে সেটাকে ডিসি থেকে এসি করে তারপর বাতি জ্বলবে। এক্ষেত্রে আলো কিছুটা কম হবে এবং এটি ব্যায়বহুল।
এগুলো হোয়াইহেডস। মুখ অপরিষ্কার থাকলে অথবা তৈলাক্ত ত্বকে এই সমস্যা দেখা যায়। আপনি নিয়মিত ত্বক স্ক্রাবিং করবেন। মুখ পরিষ্কার রাখবেন। সম্ভব হলে ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বক ফেসিয়াল করতে পারেন মাসে অন্তত একবার। তাহলেই উক্ত সমস্যার সমাধান হবে।
আপনি প্রচুর পানি খাবেন। পাশাপাশি মৌসুমী শাকসবজি ও ফলমূল খাবেন। মুখের রুচি বাড়াতে ভিটামিন সি যুক্ত খাবার যেমন লেবু,আমলকি ইত্যাদি প্রতিদিন খাবেন। তবুও যদি উপকার না হয় তাহলে ভালো চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন।
ফোনে কথা বলার বিষয়টা মেয়েরা সাধারণত প্রকাশ করতে চায়না। হতে পারে সে এতে লজ্জা পায়। অথবা এমনও হতে পারে যে ফোনে কথা বলার বিষয়টা প্রচার হয়ে গেলে তার পরিবার তাকে ফোন ব্যবহার করতে দিবেনা। তখন মেয়েটা খুব কষ্ট পাবে। এরকম ভাবনা থেকেই মূলত সে ফোনে কথা বলার ব্যাপারটি গোপন রাখতে চায়।
লেবুর রসের সাথে চিনি অথবা মধু মিশিয়ে ঠোঁটে লাগান। এতে ঠোঁটের মৃত কোষ দূর হবে। এছাড়া রাতে ঘুমানোর আগে অলিভ অয়েল ব্যবহার করতে পারেন ঠোঁটে। পাশাপাশি প্রচুর পানি খাবেন।
Samsung এর ১৬ জিবি মেমোরি কার্ড কিনতে পারেন। দাম প্রায় ৫০০টাকা। ৬ মাসের ওয়ারেন্টিসহ।
এগুলো হোয়াইটহেডস। নিয়মিত মুখ পরিষ্কার রাখবেন। প্রচুর পানি খাবেন। সপ্তাহে দুই দিন লেবুর রস ও চিনি দিয়ে স্ক্রাবিং করতে পারেন। এছাড়া মাসে একবার পার্লার অথবা ঘরোয়া উপায়ে ফেসিয়াল করলে ত্বক পরিষ্কার থাকবে।

ক্রিম সর্ম্পকে?

MdFaridurReza
Nov 27, 02:49 AM
হ্যাঁ ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। তবে প্যাকেটের গায়ে লেখা নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যবহার করতে হবে।
মাসিক চলাকালিন যৌনমিলন করা উচিত না। এসময় মেয়েদের শরীর অনেকটা দূর্বল থাকে। তাই এটা ইসলামেও নিষেধ। মাসিক শেষ হয়ে গেলে পুনরায় সহবাস করতে পারবেন।
শারীরিক পরিশ্রম করলে ক্যালরি কমে। হরর মুভি দেখলে ক্যালরি কমার কোন বৈজ্ঞানিক যুক্তি নেই।
ঠিকভাবে খাওয়া দাওয়া করবেন। সময়মতো খাবেন। পেটে ক্ষুধা নিয়ে ঘুমাবেন না। চিন্তামুক্ত থাকতে চেষ্টা করবেন। শুধু কাজের প্রতি মনোযোগ দিতে গিয়ে যদি নিজেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তখন দুই দিকেই আপনার লস হবে। কাজেই নিজের প্রতি যত্নশীল হোন সময় থাকতে।
সমস্যা হবেনা আপাতত। তবে পরবর্তিতে সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই হস্তমৈথুনের অভ্যাস ছেড়ে দিন।
আপনি আপনার বাবা মায়ের সেবা করে তাদের মনকে জয় করতে পারলেই তারা খুশি হবেন। সুখে, দুঃখে, আপদে, বিপদে তাদের পাশে থাকবেন। তাহলেই আপনার বাবা মা আপনার মতো যোগ্য সন্তান পেয়ে খুশি হবেন।
অন্যরা যেভাবে উত্তর দেয় বা প্রশ্ন করে সেভাবে আপনিও চেষ্টা করতে থাকুন। প্রথমে স্যারের সাথে ফ্রি হয়ে নিতে হবে। কোন ভয় রাখা যাবেনা। উত্তর দিতে লজ্জ্বা লাগলে মনে মনে ভাবতে হবে যে ক্লাসে কেউ নেই। এভাবে জোড় বাড়াতে হবে। এভাবেই একদিন পারবেন।
আপনাকে প্রচুর ক্যালরিযুক্ত খাবার খেতে হবে। সাথে ফ্যাট ও চিনিযুক্ত ফাস্টফুড খেতে পারেন। পরিশ্রম কমিয়ে দিন। পর্যাপ্ত বিশ্রামে থাকুন। আশা করি দ্রুত ওজন বাড়বে।
যেকোন দাগ দূর করতে লেবুর রসের বিকল্প নেই। এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট দাগ দ্রুত হালকা করতে সাহায্য করে। প্রতিদিন রাতে দাগযুক্ত স্থানে লেবুর রস লাগিয়ে ঘুমাবেন। পরের দিন ধুয়ে ফেলবেন। নিয়মিত প্রায় ১মাস ব্যবহার করলে আশা করি ফলাফল পাবেন।
আপনি যার কথা বলছেন তাকে আপনি দিনের বেলা দেখেছিলেন একদিন। তার সাথে শারীরিক সম্পর্কও করেছেন বহুবার। তাহলে তাকে চিন্তে না পারার কোন কারণ দেখছিনা। তবে এরকম মেয়েদের থেকে দূরে থাকাই ভালো হবে আপনার। নাহলে যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে আপনি ফেঁসেও যেতে পারেন।
শুক্রাণু তৈরীর প্রক্রিয়া থেমে থাকেনা। এটা প্রতিনিয়ত তৈরী হয়েই চলেছে। কাজেই স্বাভাবিক জীবনযাপন ও পুষ্টিকর খাবার গ্রহন করলে শুক্রাণুর সংখ্যাও স্বাভাবিক থাকে।
অনলাইনের রিলেশনগুলো বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ফেক হয়। তবে কিছু ক্ষেত্রে সেটা রিয়াল। আপনি ভেবে দেখেন বিষয়টা আগে ভালোভাবে। আপনারা ফোনে কথা বলতে পারেন। এতে ভালোভাবে কথা বলতে পারবেন। যেহেতু দেখা করেননি তাই ছেলেটা কেমন সেটা সিওর হওয়া যাচ্ছেনা। তবে ছেলেটি যেহেতু আপনাকে ভালো পরামর্শ দিচ্ছে তাই সেটা মেনে চলুন। ভাগ্যে থাকলে তাকেই একদিন জীবনসঙ্গী হিসেবে পাবেন। এক্ষেত্রে সতর্কতা ও ধৈর্য্যধারণ করা জরুরী।
আপনি যেহেতু আপনার সমস্যার কথা নির্দিষ্ট করে বলেননি তাই আপনার উচিত হবে ভালো কোন যৌন বিশেষজ্ঞের কাছে গিয়ে তাকে বিস্তারিত সব খুলে বলা। তাহলেই আপনার সমস্যার সমাধান পাবেন।
মেয়েটার বয়স এখনও অনেক কম। আর এই বয়সে মেয়েরা একটু আবেগপ্রবণ হয়ে থাকে। হয়তো সে বুঝতে পারে যে আপনি তাকে পছন্দ করেন। তাই সে আপনার দিকে তাকিয়ে থাকে। আমার মতে মেয়েটিও আপনাকে কিছুটা পছন্দ করে। তাই তার সাথে বন্ধুত্ব করতে পারেন। কোনএকদিন সুযোগ বুঝে তাকে প্রোপোজ করলে হয়তো সে খুশি হবে।
কোন বস্তু পানিতে তখনই ডুবে যায় যখন বস্তুটি দ্বারা অপসারিত পানির ওজনের চেয়ে বস্তুর ওজন বেশি হয়। এ কারণেই স্বাভাবিক অবস্থায় মানুষ পানিতে ডুবে যায়। তবে সাঁতার কাটার সময় মানুষ এই ডুবে যাওয়াকে আটকানোর জন্য হাত ও পা দিয়ে পানির ভেতর নিচের দিকে একটা বল প্রয়োগ করে। ফলে বিপরীত দিকে ভেসে থাকার জন্য প্রয়োজনীয় শক্তি পেয়ে যায়। তাই সাতার কাটলে মানুষ ডোবেনা।
আপনার যেসময় অবসর থাকে সেসময় আপনি ফোনটাকে বন্ধ করে পড়ার টেবিল থেকে দূরে রাখবেন। তারপর ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে আপনি মনোযোগ দিয়ে অন্তত ১ ঘন্টা করে সকালে ও রাতে পড়াশুনা করবেন। এতেই উপকার পাবেন।