user-avatar

ArafatIslam2002

ArafatIslam2002

ArafatIslam2002 এর সম্পর্কে
যোগ্যতা ও হাইলাইট
পুরুষ
Unspecified
Unspecified
প্রশ্ন-উত্তর সমূহ 7.88k বার দেখা হয়েছে
জিজ্ঞাসা করেছেন 5 টি প্রশ্ন দেখা হয়েছে 7.88k বার
দিয়েছেন 0 টি উত্তর দেখা হয়েছে 0 বার
0 টি ব্লগ
7 টি মন্তব্য

আসসালামু আলাইকুম। এই প্রশ্নটি বিভিন্ন গ্রুপে করেছি কিন্তু সম্পূর্ণ উত্তর পাই নি। প্রশ্নটি হলোঃ আল্লাহ তায়ালার নামে শিরকমূলক এবং গালিমূলক কথা বলার আগে এবং পরে শিরকমূলক এবং গালিমূলক কথা বলার জন্য যদি কেউ নিজেই নিজের জন্য আল্লাহর কাছে শাস্তি চায় এবং আল্লাহকে বলে " আমি যে শাস্তি চাইলাম এই শাস্তি বিষয়ক কোনো কথা যেমন নিজের কামনাকৃত শাস্তিটি মওকুফ বিষয়ক কোনো কথা তুমি (আল্লাহ) গ্রহণ করবা না।" এরপর সে নিজের কামনাকৃত শাস্তিটি থেকে বাঁচতে কি করতে পারে? যদি সে উক্ত পুরো বিষয়টি বারবার করতে থাকে যেমনঃ বারবার নিজের জন্য শাস্তি চাইতে থাকে এবং সেটা ইচ্ছাকৃতভাবে তাহলে সে কিভাবে নিজের কামনাকৃত শাস্তি থেকে বাঁচতে পারবে? সকল মাজহাব,ইমাম এবং ইসলামের সকল দল উপরোক্ত প্রশ্নসমূহের ক্ষেত্রে কি একই উত্তর দেয়?

আসসালামু আলাইকুম। আমার প্রশ্ন হলোঃ" মহান  আল্লাহ তায়ালার সাথে সম্পর্কিত যেকোনো শাস্তি তওবা করলে শাস্তিটি আল্লাহ তায়ালা মাফ করে দেন" এ বিষয়টি কি যেকোনো মাজহাব এবং ইসলামের সকল দল মত নির্বিশেষে কি সমর্থিত? নাকি এ বিষয়টি নিয়ে মতভেদ আছে?

১.ধরুন কেউ মহান আল্লাহ তায়ালাকে গালি দিল অথবা তার সাথে কাউকে শরীক করলো(নাউজুবিল্লাহ)।এরপর যদি সে বলে আমার এই গালি অথবা শরীক করার জন্য তুমি আমাকে অমুক শাস্তিটি দিবা এমন বিষয় কি কবুল হয় কোনো কারণে? আল্লাহ যদি ক্রোধবশত তার কামনাকৃত শাস্তিটি দিয়ে দেন? কিন্তু পরবর্তীতে সে যদি এই গালি দেওয়া অথবা এরূপ কাজের জন্য মহান আল্লাহর কাছে ক্ষমা চায় তাহলে তা ক্ষমা করা হবে কি না? ২.যেকোনো শাস্তি থেকে বাঁচার জন্য কেউ যদি এভাবে বলে " তুমি যদি সত্যি আল্লাহ হও তাহলে আমাকে এই শাস্তি/(মানতের মাধ্যমে অথবা অন্য ভাবে নিজের জন্য ক্ষতিকর এমন জিনিস যা চাওয়া হয়েছিলো) তা দিবানা।" তবে কি তার শাস্তি মাফ হয়ে যায়?

পারলে রেফারেন্স সহ উত্তর দিন!

আসসালামু আলাইকুম,
নিম্নে প্রশ্নগুলো দিলাম।প্রশ্নগুলোর সঠিক উত্তর পেলে কৃতজ্ঞ থাকবো।

১.কেউ যদি এভাবে আল্লাহকে বলে যে "আমি এই কাজটা করবো এবং এর জন্য তুমি(আল্লাহ) আমাকে এটা দিবা ওটা দিবা" এরপর যদি সে কাজটি করে ফেলে এবং আল্লাহর কাছ থেকে ওই নিদ্রিষ্ট বিষয়টি আশা করে। এরকম বিষয় কি কোনো অবস্থায় কবুল হয়?এটা কি যদি নিজের ক্ষতির জন্য করা হয় তাও কি কবুল হয়?যেমনঃআল্লাহকে গালি দিয়ে বলে আমার গালির শাস্তি হিসেবে ওমুক জিনিস দিবা অথবা এই গালির জন্য আমার এই ক্ষতি করবা এমন কিছু কি কবুল হয়?.আল্লাহর সাথে সম্পর্কযুক্ত পাপ কাজ যেমন শিরক এর ক্ষেত্রে কেউ যদি পূর্বে বলে যে"আল্লাহ আমি মনে মনে যে শিরকের কথা বলবো এগুলো তুমি শিরক হিসেবে ধরো না"এরকম দোয়া আল্লাহ কবুল করেন কি না?
৩.শপথ অথবা মানত যদি নিজেরই ক্ষতি করার জন্য করা হয় তবে তা আল্লাহর দরবারে কবুল হয় কি না?
৪. এমন কোনো পাপ আছে কি যা তওবা করার পরও মাফ হয়না?
৫.কেউ যদি নিজেকে বাচাঁনোর জন্য যদি এভাবে আল্লাহকে বলে "তুমি যদি সত্যি আল্লাহ হও তাহলে আমাকে এই শাস্তি/(মানতের মাধ্যমে অথবা অন্য ভাবে নিজের জন্য ক্ষতিকর এমন জিনিস যা চাওয়া হয়েছিলো) তা দিবানা।" এরকম জিনিস করা ঠিক কি। ঠিক না হলে কি করতে হবে?