1 টি উত্তর

ইমের প্রকারভেদ:

১. ফরয ইলম: যেটার মাধ্যমে আল্লাহর ফরয বিধানগুলো জানা যায়। এবং হারাম ও হালাল সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করা যায়।

২. মুস্তাহাব ইলম: ফরয অতিরিক্ত ইলম শিক্ষা করা।যাতে অন্যেরাও তার দ্বারা উপকৃত হতে পারে। এবং এটা নফল ইবাদত থেকে উত্তম।

৩. বৈধ ইলম: উপরোক্ত দুটি থেকে অতিরিক্ত ইলম। যার দ্বারা ইলমের মাঝে শুভা বৃদ্ধি পায়।

৪. নিষিদ্ধ ইলম: যা শিখার মূললক্ষ্য থাকে জ্ঞানী সাথে টক্কর দেয়া এবং অজ্ঞ লোকদেরকে ঘায়েল করা। –তুহফাতুল মুলুক ১/২৬৮

তবে ইসলামী ফিকহ শাস্ত্রের অনবদ্য গ্রন্থ রদ্দুল মুহতার-এ উপরোক্ত শিরনামে ইলমকে ৫ ভাগে ভাগ করা হয়েছে-

১. ফরয আইন: দীনের ‍উপর চলতে যে পরিমান জ্ঞান দরকার হয় তা শিক্ষা করা।

২. ফরযে কিফায়া: উপরোক্ত ইলমের চেয়ে অতিরিক্ত যার দ্বারা অন্যরা উপকৃত হতে পারে।

৩. বৈধ(মানদূব): ইসলমী ফিকহ ও আধ্যাত্মিক শাস্ত্রে বিজ্ঞ হওয়া।

৪. নিষিদ্ধ: দর্শন, ভেল্কিবাজী বিদ্যা, জৈতিশ শাস্ত্র, বালু বিদ্যা, যাদু বিদ্যা, গণক শাস্ত্র, গান-বাদ্যের জ্ঞান ইত্যাদি।

৫. মাকরূহ: বিভিন্ন মনমুগ্ধকর সংগিত ও অহংকর প্রসূত কবিতা ও গান ইত্যাদি। –রদদুল মুহতার ১/৯৯


সাম্প্রতিক প্রশ্নসমূহ