তোমরা যদি কোন বিষয়ে বিভ্রান্তিতে পড় তাহলে তোমরা ইবনে মাসউদ (রাঃ) এর হাদিসকে প্রাধান্য দেবে?
 (11523 পয়েন্ট) 

জিজ্ঞাসার সময়

এই রকম একটা হাদিস রয়েছে! যা খুব-ই দরকার কেউ হেল্প করবেন।

1 Answers

 (952 পয়েন্ট) 

উত্তরের সময় 

হুযায়ল ইব্‌নু শুরাহ্‌বীল (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ তিনি বলেন, একবার আবূ মূসা (রাঃ)- কে কন্যা, পুত্রের কন্যা এবং ভগ্নির (মীরাস) সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হল। তখন তিনি বললেন, কন্যার জন্য অর্ধেক আর ভগ্নির জন্য অর্ধেক। (তিনি বললেন) তোমরা ইব্‌নু মাস'ঊদ (রাঃ)- এর কাছে যাও, তিনিও হয়ত আমার মতই বলবেন। অতঃপর ইব্‌নু মাস'ঊদ (রাঃ)- কে জিজ্ঞেস করা হল এবং আবূ মূসা (রাঃ) যা বলেছেন সে সম্পর্কে তাঁকে জানানো হল। তিনি বললেন, (ও রকম সিদ্ধান্ত দিলে) আমি তো পথভ্রষ্ট হয়ে যাব, হেদায়েতপ্রাপ্তদের অন্তর্ভুক্ত থাকব না। আমি এ ব্যাপারে ঐ ফায়সালাই দিচ্ছি, যে ফায়সালা নবী (সাল্লাল্লাহু 'আলাইহি ওয়া সাল্লাম) প্রদান করেছিলেন। কন্যা পাবে অর্ধাংশ। আর পৌত্রী পাবে ষষ্ঠাংশ। এভাবে দু’তৃতীয়াংশ পূর্ণ হবে। বাকী এক তৃতীয়াংশ পাবে বোন। এরপর আমরা আবূ মূসা (রাঃ)- এর কাছে আসলাম এবং ইব্‌নু মাস'উদ (রাঃ) যা বললেন, তা তাকে জানালাম। তখন তিনি বললেনঃ এ অভিজ্ঞ মনীষী যতদিন তোমাদের মাঝে থাকবে ততদিন আমার কাছে কিছু জিজ্ঞেস করো না। বুখারী শরীফ হাদীস নং 6736
Recent Questions
Loading interface...