বিজ্ঞাপন

নামাজে পুরোপুরি মন বসে না। খেয়াল অন্য দিকে যায় কিভাবে পুরোপুরি মন দেব? নামাজে পুরোপুরি মন বসে না। খেয়াল অন্য দিকে যায় কিভাবে পুরোপুরি মন দেব?
জিজ্ঞাসা করেছেন
বিজ্ঞাপন
2 টি উত্তর
দিয়েছেন
হাদীসে এসেছে, তুমি এমনভাবে ইবাদাত করো যেন তুমি আল্লাহকে দেখছো। যদি তাঁকে না দেখে থাকো তবে অন্তত এতুটকু চিন্তা করো তিনি তোমাকে দেখছেন। হাদীসের এ মূলনীতির উপর আমল করা হলে আশা করা যায় নামাজে পুরোপুরি মন বসবে। সাথে নামাজে পঠিতব্য জিকর ও কিরাতের অর্থের দিকে চিন্তা করুন। সাথে সাথে নামাজকে পরিপূর্ণ সুন্নাহ মোতাবেক আদায়ের চেষ্টা করুন। আর মন অন্যদিকে চলে গেলে সাথে সাথে নামাজের ভিতরে নিয়ে আসুন।
দিয়েছেন

নামাজে পুরোপুরি মনযোগ না হওয়া একটা স্বাভাবিক বিষয় কেননা, মানুষকে পথভ্রষ্ট করার জন্য শয়তান আল্লাহর সাথে চ্যালেঞ্জ করেছে। তাই সর্বদা সে মানুষকে বিভ্রান্ত করার অ-পতৎপরতায় লিপ্ত রয়েছে। সে তার প্রচেষ্টা বাস্তবায়নের জন্য বিভিন্ন পথ-পন্থা ও কৌশল অবলম্বন করে বান্দার নামাজের মনযোগ নষ্ট করে দেয়।


আল্লাহ বলেন, আমি আমার বান্দাদেরকে আমার প্রতি একনিষ্ঠ রূপে সৃষ্টি করেছি। অতঃপর শয়তান তার পিছে লেগে তাকে আল্লাহর পথ থেকে দূরে নিয়ে যায়।

শয়তানের কুমন্ত্রণা যদি তোমাকে প্ররোচিত করে, তবে তুমি আল্লাহর আশ্রয় প্রার্থনা কর,শয়তান যখনই মানুষকে ধোঁকা দেওয়ার চেষ্টা করবে তখন আল্লাহর কাছে আশ্রয় চাইতে হবে।


আল্লাহ বলেন, শয়তানের কুমন্ত্রণা যদি তোমাকে প্ররোচিত করে, তবে তুমি আল্লাহর আশ্রয় প্রার্থনা কর, তিনি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞ। (আরাফ ৭-২০০)


নামাজে পরিপূর্ণ মনযোগী হওয়ার জন্য আল্লাহর "তাকওয়া" অবলম্বন করতে হবে। কিয়ামতের কঠিন আজাবের কথা সবসময় স্বরণ করুন তাহলেই নামাজে মনযোগী হতে পারবেন।



Sabirul Islam জ্ঞান অন্বেষনে তৃষ্ণার্ত! জ্ঞানের জন্য জ্ঞানকে ভালোবাসি, জ্ঞানের জন্যই সাধনা-সিদ্ধির প্রচেষ্টা করি। অভূতপূর্ব সংগ্রামের অভিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানোর সাফল্যে সর্বদা অগ্রগামী।
আমার বয়স ১৮।আসলে একদিন আমি এশার নামাক পড়িতেছিলাম।নামাজ পড়তে পড়তে হঠাৎ করে ভয় পেয়ে যায়।তারপর আমার বুক ধরফর করে উঠে।আমি চারদিকে অন্ধকার দেখতে পেলাম । ভয় পেয়ে আমি আম্মুর কাছে দৌড় দি।এরপর থেকে মনে হয় আমি নিশ্বাস নিতে পারছিনা।মনে হয় আমার অসস্থি হচ্ছ।রাতে পরতে বসলে মন দিয়ে পড়তে পারিনা।খালি নিশ্বাস এর দিকে খেয়াল হয় । আগে কখনও এমন হত না । ভয় পেয়েছি এখন ৬ মাস।এই ৬ মাস ধরে এমন হয়।আমি পুরাে শরীরের পরীক্ষা করিয়েছি আল্লাহর রহমতে কোনাে রােগ নেই।আপনি আমাকে উপদেশ দিন আমি কিভাবে নিশ্বাস এর দিকে কেয়াল না করে থাকব।আর নিশ্বাস এর দিকে খেয়াল না করলে কি নিশ্বাস আসা যাওয়া ঠিক থাকবে ?