গোছল করার কারণ সম্পর্কে জানতে চাই। দয়া করে বিস্তারিত প্রশ্নটা পড়ে উত্তর দিবেন?

Asked on

লজ্জা লাগলেও জানার জন্য প্রশ্নটি জিজ্ঞেস করছি। কমোডে যখন বসে হাগু করি, হাগু করা শেষ হলে আমি পানি দিয়ে হাগুর স্থান এবং লজ্জাস্থান ধৌত করার আগে বদনার পানি দিয়ে কমোডে থাকা ময়লাগুলো সরিয়ে দেই। মানে বদনার পানি দিয়ে ঠেলে ময়লা ভিতরের দিকে পাঠিয়ে দেই। তারপর আগে লজ্জাস্থান ধুই তারপর হাগুর স্থান ধুই। যাইহোক যখন বদনার পানি দিয়ে ময়লা ভিতরের দিকে পাঠিয়ে দেই তখন ময়লা ঠাস করে পাইপের ভিতরে পড়া মাত্রই ভিতরে জমে থাকা পানি থেকে ছিঁটকা উঠে আসে। ছিঁটকা পাছার দাবনার আশেপাশে পড়ে। আমার প্রশ্ন হচ্ছে যেহেতু কমোডের ভিতরের পানিগুলো নাপাক সেহেতু পানি শরীরে লাগার কারণে কি আমার গোছল করতে হবে নাকি যেখানে ছিঁটা লেগেছে সেখানে ধুয়ে ফেললেই যথেষ্ট হবে??? আর এ অবস্থায় নামাজ হবে কিনা???

2 Answer

Answered on 

এজন্য আপনাকে গোসল করতে হবেনা। যেখানে ছিঁটা লেগেছে সেখানে ধুয়ে ফেললেই যথেষ্ট হবে। এই অবস্থা থেকে নাপাকি জায়গা ধুয়ে অজু করলেই নামাজ হবে।

Answered on 

সাধারনত ৪ টি কারণে গোসল ফরজ হয়.... ১.স্বপ্নদোষ বা উত্তেজনাবশত বীর্যপাত হলে। ২.নারী-পুরুষ মিলনে (সহবাসে বীর্যপাত হোক আর নাই হোক)। ৩. মেয়েদের হায়েয-নিফাস শেষ হলে। ৪. ইসলাম গ্রহন করলে(নব-মুসলিম হলে)। এই ৪ টির যে কোন একটি হলে আপনাকে গোসল করে নামাাজ পড়তে হবে।অন্য কোোন কাারণ হলে শুধু মাত্র নাপাাক জায়গাটি ধৌত করে নামাজ পড়তে পারবেন।
Recent Questions
Loading interface...