Share

5 টি উত্তর

ভাইয়া আকাশ আসলে কোন কঠিন বস্তু দিয়ে নির্মিত নয় বা এর কোন সীমা নেই অথাৎ এটা অসীম। এছাড়াও প্রতিটি গ্রহ,উপগ্রহ, নক্ষত্র ইত্যাদি মহাকর্ষ বল দ্বারা সীমাবদ্ধ রয়েছে। তাই বলাই যায় আকাশ ভাঙ্গার কথাটা অযৌক্তিক
একটি আকাশ থেকে আরেকটি আকাশের দূরত্ব ৫০০ বছরের পথ,কোন বেগে? আল্লাহ ভালো জানন। স্রষ্টার সৃষ্টি এখানেই শেষ নয়,সাত আকাশের উপরে আল্লাহ বানিয়ে রেখেছে তার আসন কুরসী। এই কুরসীর বিশালত্ব বুঝাতে নবী (সাঃ) বলেন,মরুভূমিতে যদি একটি আংটি রাখা হয়,তবে সে আংটি হবে সাত আকাশ,আর মরুভূমি হলো কুরসী। এখানেই শেষ নয়,কুরসীর পরে আছে আল্লাহর আরশ।আরশের বিশালত্ব বুঝাতে আবার সেই আংটি এবং মরুভূমির উপমা আনা যায়। এক্ষেত্রে আংটি হলো কুরসী,আর মরুভূমি হলো আরশ। আল্লাহ সৃষ্টির আমাদের কল্পনা শক্তিরও অনেক বাইরে।
আকাশ বলে কিছু নেই । দিনের আকাশ আমরা বিভিন্ন কারণে বিভিন্ন রংয়ের দেখি । যেমন, নীল,লাল,কমলা,হলুদ ইত্যাদি । তবে রাতের আকাশটাই প্রকৃত আকাশ । আসলে প্রকৃত আকাশ মানে আকাশ বলতে আমরা যা বুঝি তার প্রকৃত রূপ । পৃথিবীর বাইরের মহাশূন্যকেই আমরা আকাশ মনে করি ।
আকাশ বলে কিছু নেই।রাতের আকাশই প্রকৃত আকাশ।
আকাশ কোন কঠিন পদার্থ দিয়ে তৈরি ছাউনি নয় । এটি কোন আকার নেয় । এটি সাধারণত বায়ুমন্ডল

সাম্প্রতিক প্রশ্নসমূহ