আমি আর পারছি না?

আমি আর পারছি না?

আমি আর পারছি না।

পড়তে তো মন ই বসে না।

কী করবো.!???

প্লিজ সাহায্য করুন.!???

আমার ১ এপ্রিল এ পরিক্ষা।

পড়তে বসলে মোবাইল ডাকছে আমাকে।

আমি পাগল হয়ে গেলাম।।।।।।।।।।।।।।।।।।।


বিভাগ: 
Share

6 টি উত্তর

একটা রুটিন তৈরি করুন এবং সেই অনুযায়ী কাজ করুন রুটিনে ১ ঘন্টার বেশি মোবাইল ব্যবহার করবেন না পড়ায় মনযোগ দেওয়ার জন্য দরকার আত্মবিশ্বাস এবং নিজের মনকে বুঝান এবং পড়ার সময় একলাগাতারে না পড়ে ৫ মিনিট ব্রেক নিন তারপর আবার পড়ুন পড়তে মন না চাইলে জোর করে পড়ুন না হলে একটু হেটে হেটে পড়ুন ৷

আপনি আপনার ফোনটিকে বন্ধ করে তালা দিয়ে দিন। আর চাবিটি অন্য কাউকে দিয়ে দেন। 

পড়ার সময় চুইংগাম চিবোতে পারেন। আমি দ্বারা পরীক্ষিত যে এতে পড়ায় অনেক মন লাগে।

আর সবচেয়ে বড় কথা আপনার নিজেকেই বুঝাতে হবে। 

। মনে করেন, আপনি চাইছেন এবারের পরীক্ষায় যে করেই হোক একটা আকাক্ষিত পয়েন্টে নিয়ে যাবেন আপনার রেজাল্ট। এই লক্ষ্যে পূরণ করতে একটু নিবিষ্ট হন। দেখবেন আপনার মাঝে একটা জিদের উদ্ভব হয়েছে এবং আপনি আবারো পড়ায় মন দিতে পারছেন।যা পড়ছেন ভালোভাবে বুঝে পড়ার চেষ্টা করুন। না বুঝে পড়লে কাজে আসবে না। আরেকটি বিষয় লক্ষ রাখতে হবে, যত অল্প কিংবা বেশি পড়েন না কেন, তা যেন মনযোগ সহকারে হয়। তবে, পড়ার পরিবেশটা যেন সুন্দর হয়।।


 আর এই মোবাইলের আসক্তি কমানোর জন্য আপনি কত গুলো উপায় জেনে নিনঃ


 ১.নিজের মনকে স্থির করতে হবে এবং বলতে হবে 'আমি আমার মোবাইল ফোনটি প্রতিদিন এক ঘন্টার বেশি ব্যবহার করবো না' এবং কোনোভাবেই এই চিন্তার বাইরে যাওয়া যাবে না।।। 

২.খুব বেশি জরুরি প্রয়োজন না হলে মোবাইল ফোনটি একেবারে কাছে রাখার দরকার নেই। শুয়ে-বসে হাত বাড়ালেই ফোনটি পাবেন, আসক্তি দূর করতে চাইলে এমন নৈকট্য পরিহার করুন।

 ৩.আপনি আপনার মোবাইলটি আপনার কাছ থেকে দূরে রাখতে পারেন।।যদি কাছে রাখেন তাহলে আপনি ভাববেন যে চটজলদি ফোনটা একনজরে দেখেই রেখে দেবেন? এবং তারপর ঘন্টার পর ঘণ্টা কেটে গিয়েছে। এমনটা করা থেকে বিরত থাকুন।।। 


প্রসঙ্গত কারণে আমরা চাইলেও মোবাইল থেকে দূরে থাকতে পারিনা। যেহেতু আপনার সামনে পরীক্ষা আপনার মনকে স্থির রাখুন মোবাইল ব্যবহার করা থেকে বিরত রাখুন।
আপনি যদি মনে করেন যে মোবাইল আপনার পরীক্ষার শত্রু হতে চলেছে, তাহলে আপনি আপনার মোবাইলটি আপনার বাবা কিংবা এমন ব্যক্তিকে দিয়ে দিন যাতে মোবাইল আপনাকে ডাকলেও আপনি মোবাইলের কাছে যেতে পারবেন না। তাহলেই আপনা সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। প্রয়োজনে ব্যবহার করবেন।
মন যেটা চাবে, সেটা করা যাবে না। মনের খেয়াল খুশি মতো চললে কখনোই জীবনে উন্নতি করা সম্ভব নয়। আপনাকে সমাধানের উপায় বলার মতো কিছু নেই। যদি না আপনি মোবাইলের আসক্ততা ত্যাগ করতে না পারেন। আপনি মোবাইল ত্যাগ করুন । এবং পড়ায় মনোযোগ দিন। এটাই একমাত্র সমাধান। (তবে বিনদন হিসাবে কিছু সময় মোবাইল ব্যবহার করতে পারেন।)

আপনি যদি সময়কে সঠিক ভাবে কাজে লাগাতে চান তাহলে রুটিনের বিকল্প নেই। আর একটি রুটিন মানুষকে পূরোপুরি পরিবর্তন করে দিতে পারে। আপনিও পারবেন সবকিছু ঠিকঠাক করতে। আপনি কখনো বলবেন না আমি চেষ্টা করবো বরং বলুন আমি করব। চেষ্টা করা আর করার মধ্যে পার্থক্য বুঝতে চেষ্টা করুন এবং জীবনকে নিজের মতো করে সাজিয়ে তুলুন। নিজের মনকে শয়তানের হাতে তুলে দিবেন না। আপনার মনকে নিজেই নিয়ন্ত্রণ করুন যেমন ইচ্ছা তেমন করে। মনকে আপনার গোলাম বানান, যেন তাকে যা হুকুম করবেন তাই যেন শুনতে বাধ্য থাকে।

সাম্প্রতিক প্রশ্নসমূহ