রোযা অবস্থায় কি মহিলারা খাবার জিহ্বায় চেখে দেখতে পারবে?
 (26734 পয়েন্ট)

জিজ্ঞাসার সময়

2 Answers

 (26734 পয়েন্ট) 

উত্তরের সময় 

ডাঃ জাকির নায়েকঃ

কোনো ব্যক্তি যে রান্না করে, হোক সে পুরুষ কিংবা নারী তার সম্পর্কে হাদীসের নির্দেশনা হলো যা আমরা সহীহ আল-বুখারীর ৩য় খণ্ডের কিতাবুস সিয়াম এর ২৫ নং হাদীস হতে জানতে পারি যে,

হযরত আব্বাস (রা.) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, “খাবারের কোন অংশ জিহ্বায় দিয়ে দেখলে তাতে রোযা ভঙ্গ হবে না।”

হাদীসটি সহীহ বুখারীতে মুআল্লাক। এছাড়াও হাদীসটি বায়হাকি সহীহ ইবনে সায়বা ও অন্যান্য হাদীসে সহীহ হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।

ইবনু আব্বাস (রা.) আরো বলেন, রোযার স্বাদ ও লবণ চেখে দেখা রোযার জন্য উত্তম। এ হাদীস প্রমাণ করে যে, খাবারের স্বাদ ও লবণ চেখে দেখা জায়েয কিন্তু সতর্ক থাকতে হবে যেন খাবার গলার মধ্যে প্রবেশ না করে এবং খাবার গিলে ফেলা না হয়।

ইবনু আব্বাস আরো বলেন, এটা কেবল প্রয়োজন হলেই জায়েয। অন্যথায় করা যাবে না।

যেমন, ইমাম ইবনু হাম্বল প্রয়োজন না হলে খাবার চেখে দেখাকে মাকরূহ [অপছন্দনীয়] বলেছেন। ইবনু তাইমিয়াহও অপ্রয়োজনে খাবার চেখে দেখাকে মাকরূহ [অপছন্দনীয়] বলেছেন।

যদি কোন রাধুণী মনে করে যে, খাবারের লবণাক্ত বা মিষ্টতা চেখে দেখা দরকার তাহলে সে সামান্য পরিমাণ খাবার তার জিহ্বায় ওপর দিয়ে টেস্ট করবে এবং তা সাথে সাথে ফেলে দিবে। এমনটা করা জায়েয। তবে তা অবশ্যই গিলবে না। তাহলে তার রোযা ভঙ্গ হবে না।

এমন যদি হয় যে, কোনো মা তার সন্তানকে খাবার খাওয়ানোর সময় তার সন্তানের খাবার চিবিয়ে না দিলে সন্তান খেতে পারে না তাহলে ঐ মা খাবার চিবিয়ে দিতে পারবে, তবে অবশ্যই সে খাবার গিলে ফেলা চলবে না। এটাতে তার রোযা ভাঙ্গবে না।

প্রয়োজনে খাবারের স্বাদ চেখে দেখা জায়েয। কিন্তু ক্ষুধার কারণে বা অপ্রয়োজনে খাবার চেখে দেখা মাকরূহ। এর অর্থ এতে রোযা ভাঙ্গবে না কিন্তু এমনটা করা নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। রোযা অবস্থায় প্রয়োজনে খাবার চেখে দেখা জায়েয, তবে সতর্ক থাকতে হবে যেন তা গিলে ফেলা না হয়।

 (129 পয়েন্ট) 

উত্তরের সময় 

জিহবায় চেখে দেখার জন্য কিছু শর্ত ও নিয়ম রয়েছে। শর্ত হল: ১) যদি কাজের বুয়া হয় এবং তার মনিব খাওয়ার ব্যাপারে খুতখুতে হয়, স্বাদ ভালো না হলে মারধর করতে পারে, তাহলে পারবে। ২) কারো স্বামী যদি বদমেজাজী হয় এরূপ যে, খাবারে হালকা ত্রুটিও মেনে না নেয়, তাহলে পারবে। উক্ত শর্তের ভিত্তিতে নিয়ম হল: ১) খুব হালকা পরিমাণ খাদ্য চামচে নিবে। ২) জিহবার যে অংশে স্বাদ আস্বাদিত হয়, সে অংশ পর্যন্ত খাবার নিয়ে যাবে। ৩) স্বাদ বুঝা মাত্রই থুথু দিয়ে ফেলে দিবে। ৪) কোন অবস্থাতেই মুখে যেন না ঢুকে বা গলাধঃকরণ না হয়।
সম্পর্কিত প্রশ্নসমূহ

Loading...

জনপ্রিয় টপিকসমূহ

Loading...