ফাজলামি বা ইয়ার্কির ছলে মিথ্য বলা.!?

ফাজলামি বা ইয়ার্কির ছলে মিথ্য বলা.!?

মনে করেন ফাজলামি বা ইয়ার্কির ছলে মিথ্যা বলা হয়ে যায়

যেমনঃ সুমনা তোর লাভার আমাকে কল করেছিল

এই টা বললাম কিন্ত তার লাভার আমাকে কল করে নাই

কিন্ত আমি তাকে এই কথা টা বললাম তাহলে তো আমি 

মিথ্যা কথা বললাম,,,,এবং বাসায় অনেক সময় ঝগড়া হয়

তখন ২ পক্ষ ই আমার আপন জন।কার হয়ে কথা বলবো!?

তখন ও মিথ্যা বলতে হয়, 

এখন প্রশ্ন হচ্ছেঃ এই মিথ্যার হাত থেকে নিজেকে

বাঁচাবো কেমনে.!???

আর কী ভাবেই বা ফাজলামি ইয়ার্কি করা থেকে

নিজেকে দূরে রাখবো......????????

বিভাগ: 
Share

5 টি উত্তর

ইয়ার্কি বা ঠাট্টা করেও মিথ্যা বলায় নিষেধ করা হয়েছে। মিথ্যা বলা ছাড়াও ঠাট্টা করা যায়। 

টানা কয়েকদিন নিজেকে এজাতীয় মিথ্যা থেকে সংযত রাখুন, বদঅভ্যাস দূর হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।


বাসায় ঝগড়া মেটানোর ক্ষেত্রে মিথ্যা বলা যাবে। তবে মাথায় রাখবেন- কাউকে মিথ্যা অপবাদ দেয়া যাবেনা, মিথ্যাটা নিরপেক্ষ বা মিথস্ক্রিয় হতে হবে।

ইসলামে সবরকমের মজা ঠাট্টা হারাম করা হয়েছে। এমনকি মজা করে মিথ্য বলাও...
কিছু ক্ষেত্রে মিথ্যা বলা যায়।যেমন:- সমপ্র্ক রক্ষার্থে,যুদ্ধ ক্ষেত্রে ইত্যাদি। সুতরাং,বাসায় এরুপ কোন সমস্যা হলে আপনি মিত্যা বলতে পারেন।

কথার ছলে মিথ্যা,  গল্পে গ্লপে মিথ্যা,  মজার করার জন্য মিথ্যা,  হাঁসানোর জন্য মিথ্যা এক কথায় মিথ্যা- তা যে কোন ধরনের মিথ্যা বলা হারাম। 

এথেকে বাঁচার উপায় সব সময় স্মরন রাখা মিথ্যা বলা কবিরা গুনাহ। 

সত্য বলতে অসুবিধা হলে তাকে বুদ্ধিদিয়ে এড়িয়ে যেতে হবে তবুও মিথ্যা বলা যাবে না।

বলা হয়েছে " তোমারা সত্যকে মিথ্যার সাথে সংমিশ্রণ কর না"

হাসি ও ঠাট্টা করে মিথ্যা কথা বলা যাবেনা মিথ্যা বলা মহাপাপ। হাদিসে আছে, মিথ্যা কথা ৩টি জায়গায় বলা যায়।

সাম্প্রতিক প্রশ্নসমূহ