নতুন চুল গজানো সহ ঔষধি আদার সম্পূর্ণ ভিন্নধর্মী গুন - দেখুন ব্যবহার পদ্ধতি?
 (26721 পয়েন্ট)

জিজ্ঞাসার সময়

1 Answer

 (26721 পয়েন্ট) 

উত্তরের সময় 

#9 রান্নার অতি পরিচিত একটি মশলার নাম “আদা”। আদা শুধু রান্নার স্বাদ বৃদ্ধি করে না, এর ঔষধি গুণও অনেক। ঠান্ডা, সর্দি কাশি, পেটের ব্যথা আরো অনেক রোগ নিরাময় করতে আদা বেশ কার্যকরী। কিন্তু আপনি কি জানেন এই বহুগুণী আদার রয়েছে কিছু সৌন্দর্য উপকারিতা! কি অবাক হচ্ছেন? অবাক হওয়ার কিছু নেই, চুল এবং ত্বক পরিচর্চায় আদার রয়েছে নানা গুণ।


১। বয়সের ছাপ রোধ করতে :- আদাতে প্রায় ৪০টির বেশি অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান আছে যা ত্বকে বয়সের ছাপ পড়া রোধ করে। এর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান দেহের টক্সিন এবং বিষাক্ত উপাদান দূর করে দেহে রক্ত চলাচল সচল রাখে। এবং ত্বক রাখে সতেজ এবং ফ্রেশ। প্রতিদিন কিছু পরিমাণের আদা চিবিয়ে খাওয়ার অভ্যাস করুন।

২। বডি স্ক্রাব :- ১/২ টেবিল চামচ চিনির গুঁড়ো, ১/৪ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল, ২ চা চামচ আদা কুচি, একটি লেবুর রস। সবগুলো উপাদান মিশিয়ে নিন। এবার গোসলের সময় এটি স্ক্রাব হিসেবে ব্যবহার করুন। অব্যশই এটি ফ্রিজে সংরক্ষণ করুন। এক সপ্তাহ পর্যন্ত সংরক্ষণ করতে পারবেন।

৩। চুলের আগা ফাটা রোধে :- চুলের আগা ফাটা সমস্যায় প্রায় সব মেয়েদের পড়তে হয়, এই সমস্যা সমাধান করে দিবে আদা। শ্যম্পুর সাথে আদার তেল মিশিয়ে নিয়ে সেটি ব্যবহার করুন। এটি আগা ফাটা দূর করে চুলকে ময়েশ্চারাইজড করে তুলবে।

৪। নতুন চুল গজাতে :- ২ টেবিল চামচ আদার রস, ৬ টেবিল চামচ জোজেবা অয়েল মিশিয়ে মাথার তালুতে ভাল করে ম্যাসাজ করে নিন। এরপর এটি সারারাত অথবা ২০ মিনিট রাখুন। তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন। আদা ত্বকের রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করে নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে।

৫। টোনার হিসেবে :- ২ চা চামচ আদা কুচি, ২ টেবিল চামচ মধু এবং ১ চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে ৩০ মিনিট ফ্রিজে রেখে দিন। এটি ত্বকে ভাল করে লাগিয়ে নিন। ৩০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ত্বক ধুয়ে ফেলুন। আদাতে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, টোনিং উপাদান আছে যা ত্বকের টোনার হিসেবে কাজ করে থাকে।

সম্পর্কিত প্রশ্নসমূহ
Loading interface...
জনপ্রিয় টপিকসমূহ
Loading interface...