বিয়ে করার জন্য যদি মিথ্যা বলি তা কি ইসলামে জায়েজ হবে?

আমি একটি মেয়েকে ভালবাসি তাকে বিয়ে করতে চাই কিন্তু বাবা মা তাকে মানবে না তাই আমি একটি মিথ্যার আশ্রয় নিতে চাই এটা কি জায়েজ হবে আর মিথ্যা কথা টি বলব তা একটি কবিরাহ্ গুনাহ্। একটি ভাল সম্পর্ক স্থাপনের জন্য এটি কি ইসলাম সম্মত কাজ হবে জানতে চাই

বিভাগ:
5 টি উত্তর

‌মিথ্যা বলা হারাম ক‌বিরাহ গুনাহ ত‌বে য‌দি কোন মিথ্যা বলায় কা‌রো কোন ক্ষ‌তি না হয় এবং কা‌রো বি‌শেষ কোন উপকার হয় তাহ‌লে হয়‌তো সেই মিথ্যা বলাটা গ্রহন‌যোগ্য হ‌তেও পা‌রে ত‌বে কেবল নিজ স্বা‌র্থে মিথ্যা ব‌লে কাউ‌কে ধোকা দেয়া উ‌চিৎ নয়।

অবিবাহিত নর নারীর প্রেম সম্পূর্ণ হারাম বলেছেন ইসলামে, কারণ এখানে শয়তান উপস্থিত থাকে। আবার তার উপর মা বাবার সাথে মিথ্যা বলা, ঠিক হবে না। মিথ্যা না বলে পারলে মায়ের সাথে সরাসরি আলোচনা করুন, কারণ মা হলো সবচেয়ে ভালো বন্ধু।
মিথ্যা বলা কোনো অবস্থাতেই জায়েজ নেই। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের ভাষ্য অনুযায়ী মুসলমান কখনোই মিথ্য বলতে পারে না। মিথ্যা বলা কাফের ও মুনাফিকদের কাজ। কুরআনের ভাষ্য অনুযায়ী মিথ্যা বলা শয়তানের কাজ। আপনি কেন মুসলমান হয়ে মিথ্যা বলবেন? আপনি বলছেন, একটি ভালো সম্পর্কের জন্য ... কিন্তু ইসলাম বলছে, একটি অবৈধ সম্পর্কের জন্য! কেননা, ইসলামে বিবাহপূর্ব প্রেম ভালোবাসা হারাম। হ্যাঁ, আপনি যেহেতু অবৈধ সম্পর্কটাকে বৈধতার রূপ দিতে চাচ্ছেন, তাহলে সে সুযোগ আপনার রয়েছে। কিন্তু এজন্য মিথ্যা বলা ঠিক হবে না। মা বাবার কাছে সত্য কথাটাই বলুন। মা বাবা মেয়েটাকে মানবে না কেন? সে আপনার যোগ্য নয়? যদি যোগ্য না হয়, তাহলে এক্ষেত্রেও ইসলাম অনুযায়ী আপনার মা বাবার কথা মেনে আপনার জন্য যোগ্য যে মেয়ে, সে মেয়েকে বিয়ে করা কর্তব্য।
মিথ্যা বলা মহাপাপ ইসলামে সেটা যার জন্যই বলা হোক না কেন
মিথ্যা কথা বলে বিয়ে করা ইসলামে জায়েজ না ।