সপ্ন দোষের সমস্যাটা সমাধান দেন? অামার প্রায় ৭ দিন দরে প্রতিদিন শেষ রাতে সপ্নদোষ হয়। তাছাড়া অামি সপ্নের মাজে পর্ন ছবি গুলো ভেসে অাসে ফলে সপ্নদোষ হচ্চে। অামি এই ৭ দিনে, দিনে কখনো কোন খারাপ মুভি দেখিনি অার হস্তমৈতুন করিনি। ভাবিলাম ছেড়ে দিতে। তাছাড়া অামার বয়স ১৭+। অামার প্রায় ৭ দিন দরে প্রতিদিন শেষ রাতে সপ্নদোষ হয়। তাছাড়া অামি সপ্নের মাজে পর্ন ছবি গুলো ভেসে অাসে ফলে সপ্নদোষ হচ্চে। অামি এই ৭ দিনে, দিনে কখনো কোন খারাপ মুভি দেখিনি অার হস্তমৈতুন করিনি। ভাবিলাম ছেড়ে দিতে। তাছাড়া অামার বয়স ১৭+।
জিজ্ঞাসা করেছেন
বিভাগ:
3 টি উত্তর

আপনি নিকটস্থ কোনো ডাক্তারের
পরামর্শ নিন
আর আপনাকে প্রথমে  স্বপ্নদোষ যাতে
না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
আর স্বপ্নদোষ না হওয়ার জন্য আপনাকে
নিম্নের নিয়ম অনুসরন করতে হবে
১. আপনি যদি পর্ণ দেখেন তাহলে আজ থেকে
প্রতিজ্ঞা করুন আর পর্ণ দেখবেননা
২. নিয়মিত নামায পড়ুন
৩. ঘুমানোর আগে  বিভিন্ন সূরা ও দোয়া পড়ুন
৪. উপর হয়ে ঘুমাবেননা

অনেকে স্বপ্নদোষ হওয়াকে মারাত্মক

রোগ বলে মনে করেন,আসলে এটা ঠিক নয়

আমাদের টেস্টিকলে বীর্য প্রতিনিয়ত উৎপন্ন হচ্ছে।

যার কারণে  বীর্য থলি পরিপূর্ণ হয়ে যায়।

আর সেগুলো কমানোর করার দরকার পড়ে।

তাই শরীর নিজে নিজেই এগুলোকে শরির

বের করে দেয়। সেটি স্বপ্নদোষের মাধ্যমে,

পায়খানা, অথবা প্রসাবের সাথেও শরির সেই

বাড়তি বীর্য বের করে দেয়।

সপ্তাহে দুইবার সপ্নদোষ হওয়া সাভাবিক।

যা শরিরের জন্য উপকারী।

তবে বেশি মাত্রা বা সপ্তাহে দু বারের বেশি

সপ্নদোষ হলে সমস্যা বলে বিবেচিত হবে।

√√স্বপ্নদোষ থেকে মুক্তি পেতে

*মুক্তির পথ ও পদ্ধতির মধ্যে প্রথমটি হল

নিজের খেয়াল ও ধ্যান ধারণাকে সব সময়

পাক সাফ রাখবেন। নিজের মনকে নিজের

আয়ত্বে রাখতে আপ্রাণ চেষ্টা করবেন ।

*শেষ রাতে প্রসাবের বেগ হলেই উঠে প্রসাব

করে 

নিবেন স্বপ্নদোষ রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা

কোন প্রকার খারাপ চিন্তা মনে আনবেন না।

*প্রতিদিন সামান্য করে হলেও পুদিনা পাতা

খাওয়ার অভ্যাস করুন।

*আয়াতুল কুরসি পড়ে ঘুমান।

আপনি সম্ভবত পর্ণগ্রাফি তে আসক্ত|তাই ঘুমের মাঝেও এরুপ খারাপ দৃশ্য ফুটে উঠে|প্রথমত, পর্ণগ্রাফি দেখা একেবারে ছেড়ে দিতে হবে| মেয়েলী চিন্তাভাবনা, নেশা জাতীয় দ্রব্য, উত্তেজক খাদ্য গ্রহণ, কূচিন্তা বা ভাবনা ত্যাগ করেন| অবসর সময় বসে না থেকে কাজকর্ম, পড়ালেখা বা তিলাওয়াতে মগ্ন থাকুন|আশা স্বপ্নদোষ ধীরে ধীরে দুর হয়ে যাবে|