আমি একটি মেয়েকে ৫ বছর থেকে পছন্দ করি। সেই মেয়েটিও আমাকে পছন্দ করে । তবে মাঝেমাঝে আমাকে অনেক কষ্টে রাখতো। কারন আমরা দুজনে আলাদা যায়গায় থাকতাম, এজন্য ও এর মাঝে অন্য একজনকে ভালবেসে ফেলে আমি খবর নিয়ে দেখি ঐ ছেলেটির সংগে ওর খুবেই ভাল সম্পর্ক। কিন্তু আমি মেয়েটাকে জিগ্যেস করলে ও বলে হ্যা আমি ঐ ছেলেটির সংগে প্রেম করি।আমি বললাম তাহলে আমার সংগে কথা বলো কেন ও ঘুরাফেরা করো কেন। বলে যে টাইমপাস করি।এখন মানে (বর্তমানে) আমরা দুজনে বিয়ে করেছি এবং ওকে জিগ্যেস করেছি যে, ঐ ছেলেটির সংগে তোমার কি মিলন হয়েছিল ? মেয়েটি আমাকে সব সত্যি কথা বলেছে যে হয়েছিল এখন আমার প্রশ্ন হলো আমি কি মেয়েটাকে বিশ্যাস করতে পারি এবং আগামী দিনগুলো কেমন হবে?
5 টি উত্তর
দিয়েছেন
আপনাকে বিশ্বাস,ভালোবাসে বলেই সত্যি কথটা বলেছিল.... সত্যিটা নাও তো বলতে পারতো.?.. আমার মনে ভবিষৎ ঠিক ঠাক থাকবে... তাকে বিশ্বাস করতে পারেন
দিয়েছেন

যেহেতু বিয়ে করে নিয়েছেন এবং মেয়েটি-

অর্থ্যাৎ আপনাকে বউ আপনাকে ওই বিষয়ে

সত্যি বলেওছে,  তাই বলব আপনি তাকে

পুরো বিশ্বাস করুন, সঙ্গে তাকে মানসিক এবং

শারীরিক দিক থেকে খুশি করে রাখুন, তাহলে

আপনার আর চিন্তা থাকবে না, আপনার আগামি

সময় ভালোই কাটবে।  

দিয়েছেন
আপনার মানসিক অবস্থাটা বুঝতে পারছি।কোনো স্বামীই স্ত্রীর সম্পর্কে এরকম কিছু জানার পর মানসিক স্বস্তিতে থাকতে পারেনা।তবে বিয়ের আগেই আরো খোঁজ খবর নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া উচিৎ ছিলো।আপনার স্ত্রীর সম্পর্কে খারাপ কিছু শুনতে হয়তো আপনার খারাপ লাগবে কিন্তুু বাস্তবতা হলো সে আপনাকে পছন্দও করতো বা টাইমপাস করতো আবার আরেকটি ছেলের সাথে দৈহিকভাবে মিলিতও হতো! হয়তো এসব একাধিক বা অনেকবারই হয়েছে।আবার তাকে বাদ দিয়ে আপনাকে বিয়েও করলো।আবার তার মন পরিবর্তন হবেনা তা নিশ্চিতভাবে বলা যায়না যদিও সে সত্যটি স্বীকার করেছে।
ভূল মানুষের জীবনে হয়েই থাকে। মেয়েটি যেহেতু আপনাকে সত্যটি বলেছে তাই তাকে স্ত্রী হিসেবে ১০০% বিশ্বাস করতে পারেন। কোন সন্দেহ রাখবেননা। কারন সে আপনাকে বিশ্বাস করে, ও তার আশ্রয় হিসেবে মেনে নিয়েছে। কারন সে সত্য কথাটি তুলে ধরেছে আপনার কাছে। এখন তাকে নিজের মত করে গড়ে নিন। তাকে বোঝানোর চেষ্টা করুন তার সবচেয়ে ভালোবাসার মানুষটি আপনি। পজিটিভ থাকুন আর স্রষ্টার কাছে দোআ করুন। জীবনে করা সবথেকে ভালো কাজের ওছিলায় স্রষ্টার কাছে চান। তিনি আপনার দোআ কবুল করবেন। ধন্যবাদ।
দিয়েছেন
আহারে ! এখন আর কি করার যা হবার তা হয়ে গেছে। আপনার বউকে আল্লাহ কি করবে তা তিনিই জানেন। আর সত্য বলছে এটাই অনেক। এমন মেয়েকে বিশ্বাস করা খুব কঠিনই। আল্লাহর কাছে দোয়া করুন সব ঠিক হয়ে যাবে। আর আপনার বউকে সময় দিন, ভালোবাসুন প্রাণ ভরে। ইনশাল্লাহ ঠিক হয়ে যাবে।
Download Bissoy Answers App Bissoy Answers