আপনার যৌনবাহিত গনোরিয়া আছে কিনা জেনে নিন?

আসলে নারী ও পুরুষ উভয়েরই গনোরিয়া  হতে পারে। গনোরিয়া  যদি চিকিৎসা করা না হয় তবে তা থেকে গুরুতর সংক্রমণ বা নারী ও পুরুষের বন্ধ্যাত্বের সৃষ্টি হতে পারে।

প্রতিটি গর্ভবতী নারীর গনোরিয়া ও ক্ল্যামিডিয়ার পরীক্ষা করা উচিত কারণ তার গর্ভের শিশুটি জন্মর সময় তার এই সংক্রমণগুলো পেতে পারে। পরীক্ষায় যদি দেখা যায় যে তার গনোরিয়া বা ক্ল্যামিডিয়া বা উভয়ই আছে তবে সে আর তার সঙ্গী উভয়েরই চিকিৎসা গ্রহণ করা উচিৎ। যদি তার ও তার সঙ্গীর মধ্যে সংক্রমণের লক্ষণ দেখা যায় কিন্তু পরীক্ষা সহজলভ্য না হয় তবুও এদের চিকিৎসা করতে হবে। গনোরিয়া ও ক্ল্যামিডিয়ার লক্ষণগুলো প্রায় একই।

নারীদের মধ্যে লক্ষণ

  • যোনী বা পায়ুদ্বার থেকে হলুদ বা সবুজ স্রাব
  • তলপেটে ব্যথা
  • জ্বর
  • যৌনসঙ্গমের সময় ব্যথা
  • মূত্রত্যাগ করার সময় ব্যথা বা জ্বালা করা

একজন নারীর যদি গনোরিয়া বা ক্ল্যামিডিয়া হয় এবং সাথে জ্বর থাকে এবং তলপেটে ব্যথা থাকে তবে তার হয়তো শ্রোণীর প্রদাহজনক রোগ হতে পারে।

পুরুষদের মধ্যে লক্ষণ

  • পুরুষাঙ্গ বা পায়ুদ্বার থেকে পুঁজ পড়তে থাকে
  • অণ্ডোকোষে ব্যথাযুক্ত ফোলা
  • মূত্রত্যাগের সময় ব্যথা বা জ্বালা করা

একজন পুরুষের ক্ষেত্রে, একজন সংক্রামিত ব্যক্তির সাথে যৌন সংস্পর্শে আসার ২ থেকে ৫ দিন (বা ৩ সপ্তাহ বা তার বেশী পর্যন্ত) পর প্রথম লক্ষণ দেখা যায়। একজন নারীর মধ্যে সপ্তাহের পর সপ্তাহ বা মাসের পর মাস হয়তো লক্ষণ দেখা নাও যেতে পারে। কিন্তু ব্যক্তিটির মধ্যে কোন লক্ষণ না থাকলেও সংক্রমণ শুরু হবার কয়েক দিন পর থেকে তার কাছ থেকে অন্য কারো মধ্যে এই রোগটি ছড়াতে পারে।

চিকিৎসা গোড়ার দিকে শুরু করলে চিকিৎসা ভাল কাজ করে। আপনি যদি ভাল অনুভব করতে শুরুও করেন তবে সকল ঔষধ নেয়া নিশ্চিত করুন। ব্যক্তির সঙ্গী বা সঙ্গীদের একই ঔষধ দ্বারা চিকিৎসা করুন।

গনোরিয়া ও ক্ল্যামিডিয়া উভয়েরই চিকিৎসা করা সবথেকে ভাল যদি না পরীক্ষার মাধ্যমে ব্যক্তিটির এ দু'টির যে কোন একটি আছে বলে নিশ্চিত হওয়া যায়। গনোরিয়ার জন্য ২ ঔষধের একটি সংমিশ্রণ ব্যবহার করলে তার মাধ্যমে ক্ল্যামিডিয়ারও চিকিৎসা করা যায়। পরীক্ষায় যদি শুধু ক্ল্যামিডিয়া পাওয়া যায় কিন্তু গনোরিয়া পাওয়া না যায় তবে শুধু একটি ঔষধ প্রয়োজন। গনোরিয়া ও ক্ল্যামিডিয়ার চিকিৎসায় ঔষধের সংমিশ্রণ অধ্যায়ে সহজলভ্য ঔষধের উপর নির্ভর করে বিভিন্ন সংমিশ্রণ এবং চিকিৎসার তালিকা দেয়া আছে।

যেহেতু গনোরিয়া বেশী মাত্রায় জীবাণুনাশক প্রতিরোধক হয়ে উঠছে, তাই আপনার এলাকায় কার্যকর, সহজলভ্য, এবং সাশ্রয়ী এমন ঔষধ সম্পর্কে স্থানীয় পরামর্শ নেয়া সবথেকে ভাল। ফোঁটায় ফোঁটায় ঝরা এবং ব্যথা চিকিৎসা শুরু করার ২ বা ৩ দিন পর চলে না যায় তবে তার মানে হতে পারে যে গনোরিয়া ঔষধটির প্রতিরোধক হয়ে উঠেছে এবং একটি ভিন্ন ঔষধ ব্যবহার করা প্রয়োজন।ধন্যবাদ।

সংগ্রহীত 

আসলে নারী ও পুরুষ উভয়েরই গনোরিয়া  হতে পারে। গনোরিয়া  যদি চিকিৎসা করা না হয় তবে তা থেকে গুরুতর সংক্রমণ বা নারী ও পুরুষের বন্ধ্যাত্বের সৃষ্টি হতে পারে।

প্রতিটি গর্ভবতী নারীর গনোরিয়া ও ক্ল্যামিডিয়ার পরীক্ষা করা উচিত কারণ তার গর্ভের শিশুটি জন্মর সময় তার এই সংক্রমণগুলো পেতে পারে। পরীক্ষায় যদি দেখা যায় যে তার গনোরিয়া বা ক্ল্যামিডিয়া বা উভয়ই আছে তবে সে আর তার সঙ্গী উভয়েরই চিকিৎসা গ্রহণ করা উচিৎ। যদি তার ও তার সঙ্গীর মধ্যে সংক্রমণের লক্ষণ দেখা যায় কিন্তু পরীক্ষা সহজলভ্য না হয় তবুও এদের চিকিৎসা করতে হবে। গনোরিয়া ও ক্ল্যামিডিয়ার লক্ষণগুলো প্রায় একই।

নারীদের মধ্যে লক্ষণ

  • যোনী বা পায়ুদ্বার থেকে হলুদ বা সবুজ স্রাব
  • তলপেটে ব্যথা
  • জ্বর
  • যৌনসঙ্গমের সময় ব্যথা
  • মূত্রত্যাগ করার সময় ব্যথা বা জ্বালা করা

একজন নারীর যদি গনোরিয়া বা ক্ল্যামিডিয়া হয় এবং সাথে জ্বর থাকে এবং তলপেটে ব্যথা থাকে তবে তার হয়তো শ্রোণীর প্রদাহজনক রোগ হতে পারে।

পুরুষদের মধ্যে লক্ষণ

  • পুরুষাঙ্গ বা পায়ুদ্বার থেকে পুঁজ পড়তে থাকে
  • অণ্ডোকোষে ব্যথাযুক্ত ফোলা
  • মূত্রত্যাগের সময় ব্যথা বা জ্বালা করা

একজন পুরুষের ক্ষেত্রে, একজন সংক্রামিত ব্যক্তির সাথে যৌন সংস্পর্শে আসার ২ থেকে ৫ দিন (বা ৩ সপ্তাহ বা তার বেশী পর্যন্ত) পর প্রথম লক্ষণ দেখা যায়। একজন নারীর মধ্যে সপ্তাহের পর সপ্তাহ বা মাসের পর মাস হয়তো লক্ষণ দেখা নাও যেতে পারে। কিন্তু ব্যক্তিটির মধ্যে কোন লক্ষণ না থাকলেও সংক্রমণ শুরু হবার কয়েক দিন পর থেকে তার কাছ থেকে অন্য কারো মধ্যে এই রোগটি ছড়াতে পারে।

চিকিৎসা গোড়ার দিকে শুরু করলে চিকিৎসা ভাল কাজ করে। আপনি যদি ভাল অনুভব করতে শুরুও করেন তবে সকল ঔষধ নেয়া নিশ্চিত করুন। ব্যক্তির সঙ্গী বা সঙ্গীদের একই ঔষধ দ্বারা চিকিৎসা করুন।

গনোরিয়া ও ক্ল্যামিডিয়া উভয়েরই চিকিৎসা করা সবথেকে ভাল যদি না পরীক্ষার মাধ্যমে ব্যক্তিটির এ দু'টির যে কোন একটি আছে বলে নিশ্চিত হওয়া যায়। গনোরিয়ার জন্য ২ ঔষধের একটি সংমিশ্রণ ব্যবহার করলে তার মাধ্যমে ক্ল্যামিডিয়ারও চিকিৎসা করা যায়। পরীক্ষায় যদি শুধু ক্ল্যামিডিয়া পাওয়া যায় কিন্তু গনোরিয়া পাওয়া না যায় তবে শুধু একটি ঔষধ প্রয়োজন। গনোরিয়া ও ক্ল্যামিডিয়ার চিকিৎসায় ঔষধের সংমিশ্রণ অধ্যায়ে সহজলভ্য ঔষধের উপর নির্ভর করে বিভিন্ন সংমিশ্রণ এবং চিকিৎসার তালিকা দেয়া আছে।

যেহেতু গনোরিয়া বেশী মাত্রায় জীবাণুনাশক প্রতিরোধক হয়ে উঠছে, তাই আপনার এলাকায় কার্যকর, সহজলভ্য, এবং সাশ্রয়ী এমন ঔষধ সম্পর্কে স্থানীয় পরামর্শ নেয়া সবথেকে ভাল। ফোঁটায় ফোঁটায় ঝরা এবং ব্যথা চিকিৎসা শুরু করার ২ বা ৩ দিন পর চলে না যায় তবে তার মানে হতে পারে যে গনোরিয়া ঔষধটির প্রতিরোধক হয়ে উঠেছে এবং একটি ভিন্ন ঔষধ ব্যবহার করা প্রয়োজন।ধন্যবাদ।

সংগ্রহীত 

জিজ্ঞাসা করেছেন
bissoy.com এ মানসম্মত উত্তর দিয়ে জিতে নিন উপহার। উপহারের অর্থমূল্য নিয়ে নিন মোবাইল ব্যাংকিং এ। বিস্তারিত দেখুন এখানে