যারা ব্লগেে এডসেন্স না পাওয়ার ৭টি কারন।


  
আমরা সবাই জানি, বাংলা ব্লগেও গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপণ দেখানো যায়। কিভাবে এডসেন্স পাওয়া যাবে এটা নিয়ে অনলাইনে ভুরি ভুরি আর্টিকেল দেখা যায়। এই টিউনের মাধ্যমে আপনাদেরকে গুগল এডসেন্স না পাওয়ার সাতটি কারণ জানাবো। যাদের বাংলা ব্লগ আছে(ব্লগস্পটে, ওয়ার্ডপ্রেসে বা, যেমনই হোক) ব্লগ থাকা সত্ত্বেও এডসেন্স এ এপ্লাই করে পাচ্ছেন না তাদের এই টিউনটি কাজে লাগবে।


এই ৭ টি কারণে এডসেন্স পাচ্ছেন না
এডসেন্স আবেদনের ১৫ দিনের মধ্যে যখন জানায় আপনার সাইটটি অনুমোদন পায় নি, কিছু সমস্যা আছে সমাধান করুন, এডসেন্স এর পলিসি পড়ুন(অনেকটাই এরকম ইমেইল পাঠায়)। যিনি ব্লগটি চালান, তিনিই বুঝতে পারেন, কেমন লাগে। কথা না বাড়িয়ে শুরু করি-

১. আপনার ব্লগে ভালো আর্টিকেল নেই
এখন আমি বললেই তো হবে না যে আর্টিকেল ভালো না। ৫০০+ শব্দের কম শব্দে আর্টিকেল লিখবেন না, ১০০০+ শব্দ হলে আরো ভালো হয়। একটি টপিকের মাঝে অন্য টপিকে না গিয়ে শুধু ঐ টপিক নিয়েই যত বিস্তারিত লেখা যায় এরকম বিস্তারিত লিখে অন্তত ১০ টি আর্টিকেল রাখুন। এটাই যথেষ্ট হবে। ১৫০ শব্দের আর্টিকেল লিখে এডসেন্স পাবেন না। বলতে পারেন বড় বড় সাইটেও তো কম শব্দে লেখা  আছে। ভাই, সেগুলো ডোমেইন অথরিটিও অনেক বেশী। আপনাকে আগে প্রমাণ করতে হবে আপনার কনটেন্ট ভালো।

২. ওয়েবসাইটের ডিজাইন ভালো না
ওয়েবসাইটের ডিজাইন দেখে মনে হতে হবে না যে এটা এস এম সুলতানের আকা ছবি। মোবাইল, এবং কম্পিউটারে ঠিকমতো দেখা যাবে, আর একেবারে বাজে ডিজাইন না হলেই চলবে। অনেকে খুব ভালো ডিজাইন করেন, কম্পিউটারে দেখতেও ভালো লাগে, মোবাইলে ভিজিট করা যায় না। ইউজার ফ্রেন্ডলি হতে হবে। এবং হোমপেজ থেকে সব আর্টিকেল বা, আর্টিকেল টপিক খুঁজে পাওয়া যাবে।

৩. স্প্যামি ব্যাকলিংক তৈরি করেছেন
সোজা কথায়, আপনার বদভ্যাস আছে- যেখানে সেখানে গিয়ে টিউমেন্টে নিজের ব্লগের লিংক দিয়ে চলে আসেন। লোকজন এটাতে বিরক্ত হয়। লিংক দিতেই যদি হয় গেস্ট টিউন করুন। আপনার সাইটের সাথে মিল আছে এরকম সাইটে ভালো আর্টিকেল লিখে সেখানে লিংক শেয়ার করুন, কেই নিষেধ করবে না যদি সেটা প্রাসঙ্গিক হয়। অন্যদের মেসেজেও এরকম লিংক পাঠাবেন না, যারা আপনার কাছে চায় নি। লো কোয়ালিটি লিংক সার্চেও সাইটকে পেছনে ঠেলে দিতে পারে, গুগল বোকা না।

৪. সার্চে এখনো আপনার সাইট আসে নি
এটা ঘটে সাধারণত একেবারে নতুন সাইটের ক্ষেত্রে। ১০/১৫ দিন বয়সের সাইটেও এডসেন্স পাওয়া যায়, এর কম হলে আবেদন না করাই ভালো। ৬ মাস যারা বলেন, ভুল বলেন। ঘটনা হচ্ছে সার্চে আসতে হবে, সার্চ থেকে ভিজিটর আসলে ভালো হয়।

৫. সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপনার ব্লগ নেই
ফেসবুক পেজ, টুইটার পেজ, পিন্টারেস্ট পেজ এগুলো থাকলে ভালো হয়। এগুলো আপনার সাইটের জন্য সোস্যাল সিগনাল পাঠাবে। গুগল সার্চেও আগে আসার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর হিসেবে এই পেজগুলো কাজ করে।

৬. যা মন চায় তাই লিখেছেন
এটা কোন অপরাধ না, এই কারণে এডসেন্স পাবেন না এমনও না। তবে, ব্লগের নাম দিলেন "হাবলু মিয়ার গানবাজনা", সেখানে আর্টিকেল লিখলেন আমেরিকার নির্বাচন নিয়ে আর, হিরো আলমের নতুন সিনেমা নিয়ে। একটি টপিকেই লিখুন, দিন শেষে লাভবান হবেন। এডসেন্স দেখে আপনার ব্লগের কোন সম্ভাবনা আছে কি না। ওদের উদ্যেশ্য বানিজ্য, আপনাকে দিয়ে যে সেটা হবে না সেটা ওরা বুঝে নেয়। একটি টপিকে থাকুন, নয়তো প্রাসঙ্গিক থাকুন।

৭. মুভি ডাউনলোড লিংক দিয়েছেন
যে মুভি ডাউনলোডের অর্থ একটি অপরাধ করা। অর্থাৎ, পাইরেসিতে সরাসরি অংশ নেয়া- আপনাকে যে জেলে পোরা হয় নাই এজন্য এখনই বলেন আলহামদুলিল্লাহ, বড় বাচা বেচে গেছি। হ্যাকিং, বেটিং, ক্যাসিনো, এডাল্ট সাইট এগুলোর জন্য এডসেন্স না।