Decason-0.5 mg আর Dexin দুটো কি একই রকমের ঔষধ?

দীর্ঘদিন হস্তমৈথুনের কারণে গাল ভেংগে গিয়েছে,এটা ঠিক করার জন্য শুনলাম Dexin অল্প পরিমাণে খেতে হয়। তবে এই ঔষুধ আভিলেবল নাহ দেশে,তাই  আবার শুনলাম Decason খেলেও নাকি একই কাজ করে।

Decason 0.5 mg এটা কি এখন খেলে Dexin এর মতোই শরীর মোটা হবে?

আর এটার সাথে cinkara সিরাপ খাবো?

3 টি উত্তর

আচ্ছা আপনাকে এসব কে শুনায় বলবেন প্লিজ।

আর না decason এবং dexin এই দুইটা একই ঔষধ নয়।  Dexin 500mg Tablet একটি অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ যা আপনার দেহে ব্যাকটেরিয়াল সংক্রমণের জন্য ব্যবহার করা হয়। এটি ফুসফুস, কান, গলা, মূত্রনালী, ত্বক, নরম টিস্যু, হাড় এবং জয়েন্টগুলির সংক্রমণে কার্যকর। এটি ব্যাকটিরিয়া হত্যা করে, যা আপনার লক্ষণগুলি উন্নত করতে এবং সংক্রমণ নিরাময়ে সহায়তা করে। 

আর decason আসলে ঔষুধ টি মূলত খাওয়ার পর মুখের রুচি বাড়ে,

খুদা পায়, ডেকাসন এমন এক মেডিসিন যা ব্যথার ঔষুধ এর সাথে খেলে ব্যথার কাজ করে কাশির ঔষুধ এর সাথে খেলে কাশির কাজ করে থাকে,

ডেকাসন খেলে মোটা হওয়া যায় তা পুরোপুরি সঠিক নয়,

খাওয়ার চাহিদা বাড়ানোর ফলেই মূলত অনেকেই সেবন করে থাকে তবে এর প্বার্শ প্রক্রিয়া রয়েছে দীর্ঘ দিন খাওয়ার ফলে কিডনী তে পানি জমে যায়, এবং শরীর ফুলে যায় ফলে স্বাস্থ্য মোটা দেখায় তবে এটি মারাত্মক ক্ষতিকর। এই decason ঔষধটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানিতে এখানে ক্লিক করে দেখুন।


কাজেই বলছি আপনি রেজিস্টার কৃত চিকিৎসক এর পরামর্শ ব্যতীত কোন রকম ঔষধ খাবেন না। না।  না।  

আপনি হস্তমৈথুন করেছেন যার কারনে স্বাস্থ্য রোগা (পাতলা)  হয়েছে কিন্তু এর জন্য যে শরীর মোটা হওয়ার ঔষধ খেতে হবে তাও আবার অন্যের কথা শুনে এটা সম্পূর্ন ভুল ধারনা ও ভুল সিদ্ধান্ত।

আপনি এরকম কোন ঔষধ খাবেন না। মনে রাখবেন স্বাস্থ্য মোটা হওয়ার কোন ঔষধ নাই। যা আছে ওসব অস্থায়ী ও ভুয়া ও ক্ষতিকর।  কাজেই স্বাভাবিক ভাবে জীবন যাপন করুন। নিয়মিতভাবে পুষ্টিকর খাবার খান ও ফলমূলাদি খান।  

আর হ্যা হামদার্দ এর সিনকারা সিরাপ শুধু মুখের রুচি বাড়াতে সাহায্য করবে। এটিও কিন্তু মোটা হওয়ার সিরাপ নয়। এই সিরাপ সেবনে মুখে রুচি আসবে ফলে স্বাস্থ্য ভালো হলেও কয়েকদিন পর আগের মতই হবে।তবে এই সিরাপ এ তেমন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া না থাকলেও পরবর্তীতে এই সিরাপ সেবনের অভ্যাস হয়ে যায়। যার কারনে সিরাপ ব্যতীত মুখে রুচি আনা সম্ভব হয় না।

অতএব আমি বলবো আপনি আপনার চাপা ভাঙ্গা বলেন বা স্বাস্থ্য সুকানোর কথা বলেন না কেন। এসব পুরন করার জন্য ঔষধের প্রয়োজন পরে না। ওজন বাড়ানোর চেস্টা করুন ও পুষ্টিকর খাবার ও ব্যয়াম করুন দেখবেন আপনার স্বাস্থ্য ফিরিয়ে আসবে।তবে হস্তমৈথুন বা নিজ ইচ্ছায় বীর্যপাত করবেন না বা হস্তমৈথুন করবেন না।প্রয়োজনে বিয়ে করুন।

আশা করি বুঝতে পারছেন।।

বিস্ময়ের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। 


ভাই হস্ত মৈথন ইসলামে হারাম নিশিদ্ব তাই এই কাজ থেকে বিরতো থাকুন। আর ৫ ওয়াক্ত নামাজ পরেন। পুস্টিকর খাবার খান,,,পারলে সকাল বিকাল হালকা ব্যায়াম করেন।  ইনসাল্লাহ শরির সাস্থ ভাল  থাকবে

আর ফজরের পর সকালের ফ্রেস বাতাস শরিরের পক্ষে অনেক উপকারি।

তাই আপনি হস্তমৈথুন বাদ দেন,,,,,বিঃদ্রঃ ব্যক্তিগত মতামত দিলাম।

ধন্যবাদ

হস্তমৈথুন করলে গাল ভেঙ্গে যায়,চিকন হয়ে যায় এগুলা আপনাকে কে বলছে ভাই? বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে প্রচুর ভুল ধারণা রয়েছে হস্থমৈথুন সম্পর্কে বিশেষ করে বাংলা ওয়েবসাইটগুলোতে। একটু চিন্তা করে দেখুনতো হস্থমৈথুন যদি স্বাস্থ্যের ক্ষতি করে থাকে তাহলে কিন্তু একই যুক্তি অনুসারে আপনি বিবাহ করে সেক্স করলেও একই ক্ষতি হওয়ার কথা। কারণ সেক্স করলেও তো বীর্য বের হবে নাকি? নাকি সেক্স করলে কোন বীর্য বের হয় না?  সপ্তাহে তিনবার পর্যন্ত হস্থমৈথুন করতে পারেন। কোন সমস্যা নেই। উল্টো এটা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। দুশ্চিন্তা এবং চাপ মুক্ত থাকা যায়। এছাড়া গবেষণায় দেখা গেছে হস্থমৈথুন প্রস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।   

আপনার গাল ভাঙ্গার কারণ অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা করেছেন এবং স্বাস্থ্যের যত্ন নেন নি।এটার সাথে হস্তমৈথুনের সম্পর্ক নেই। আপনি হস্থমৈথুন না করলেও আপনার বীর্য স্বপ্নদোষের মাধ্যমে বের হয়ে যাবে কিছুদিন পর পর।  

আপনি দুশ্চিন্তা বাদ দিন সব ঠিক হয়ে যাবে।আর ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ভুলেও এসব ঔষুধ খাবেন না। এসব ঔষুধের প্রচুর পার্শপ্রতিক্রিয়া রয়েছে।