ব্যক্তিত্ব গঠনের উপায়সমূহ

ব্যক্তিত্ব মানুষের একটি অমূল্য সম্পদ। ব্যক্তিত্বহীন মানুষ যত সম্পৎশালীই হোক না কেন, দৃষ্টির অগোচরে সবাই তাকে অপছন্দ করে। ব্যক্তিত্ব গঠন করা সহজ কথা নয়। এর জন্যে দরকার অনেকদিনের সাধনা। আজকে আলোচনা করব ব্যক্তিত্ব গঠন বা বজায় রাখার কিছু উপায়।

বাস্তব জীবনে : বাস্তব জীবনে ব্যক্তিত্ব বজায় রাখতে নিচের নিয়মগুলো অনুসরণ করুন।
১. নিজেকে আত্মবিশ্বাসী হিসেবে প্রমাণ করুন।
২. শরীরের সঙ্গে মানানসই পোশাক পরুন।
৩. বড়োদের সম্মান ও ছোটোদের স্নেহ করুন।
৪. সম্পর্কে দূরের এমন কারো কাছে টাকা ধার চাইবেন না।
৫. কাউকে কথা দিলে তা রাখার চেষ্টা করুন।
৬. সবার সঙ্গে হাসিমুখে কথা বলুন। 
৭. অন্যের মতামকেও গুরুত্ব দিন।
৮. অন্যকে সহযোগিতা করার মানসিকতা রাখুন।
৯. বেশি শুনুন, কম বলুন।
১০. কথোপকথনের সময় অন্যকে বলার সুযোগ দিন।
১১. মনোযোগী শ্রোতা হোন।
১২. রেগে থাকা অবস্থায় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন না।
১৩. অস্বাভাবিক ধাঁচের চুল রাখবেন না।
১৪. সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার চেষ্টা করুন।
১৫. ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি বজায় রাখুন।
১৬. অপ্রাসঙ্গিক কথা বলবেন না।

ভার্চুয়াল জগতে : ভার্চুয়াল জগতে নিজের ব্যক্তিত্ব বজায় রাখতে নিচের নিয়মগুলো অনুসরণ করুন।
১. নিজের প্রোফাইলে অপ্রয়োজনীয় ও অপ্রাসঙ্গিক তথ্য যুক্ত করবেন না।
২. কারো পোস্টে অশ্লীল বা আক্রমণাত্মক মন্তব্য করবেন না।
৩. যাচাই না করে কোনো পোস্ট শেয়ার করবেন না।
৪. ব্যাকগ্রাউন্ড ভালো নয় এমন ছবি আপলোড করবেন না।
৫. হুট করে কারো কাছে মুঠোফোন নম্বর চাইবেন না।
৬. অনুমতি ছাড়া কারো মেসেঞ্জার বা হোয়াটসঅ্যাপে কল দেবেন না।
৭. কেউ আপনার মেসেজের উত্তর না দিলে তাকে অনবরত মেসেজ দেবেন না।
৮. বয়সে ছোটো হলেও অপরিচিত কাউকে প্রথমে তুমি বা তুই সম্বোধন করে মেসেজ করবেন না।

শ্যাম রাখি না কুল রাখি কথাটির উৎপত্তি   


বিভাগ: