1 টি উত্তর

এটি বলা মুশকিল। একেক সাপের বিশ একেক ভাবে ক্রিয়া করে এবং মৃত্যু সময় ভিন্ন ভিন্ন হয়।  সাধারন ভাবে গোখরার বিশ এক ঘন্টায় মৃত্যু ঘটাতে পারে।

আবার বিষধর সাপে কাটলেই মারা যাবে তা ঠিক নয়। কারন সাপে কামড়ায় মূলত নিজ আত্মরক্ষার্থে, তাই নিজে ভয়ে পালানোর সময় অনেক ক্ষেত্রে ঠিকমত বিষ প্রবেশ করাতে পারেনা।  সেক্ষেত্রে রোগী একদিনও বেচে থাকতে পারে। আবার দেখা যায় কিছুই হয়না কারন সামান্য বিষ মানুষের শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা বিষকে নিরপেক্ষ করে দিতে পারে।

অন্যদিকে এক এক ব্যক্তির প্রতিরোধ ও সাহস ভিন্ন ভিন্ন হওয়ায় একই পরিমান বিষ কাউকে ৩০ মিনিটেও মেরে ফেলতে পারে। 

তবে অধিকাংশ সাপের বিষ নিউরোটক্সিন জাতীয় হওয়ায় তা আমাদের স্নায়ুকে নষ্ট করে দেয় ফলে আপাত মৃত্যু হলেও মস্তিষ্ক আরও কিছুক্ষন বেচে থাকার নজির আছে। 

এতদসত্বেও প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য মৃত্যুকে আরও বিলম্বিত করা যায়। ফলে ৫-৭ ঘন্টা সময় লেগে যেতে পারে। এই সময়ে মূল চিকিতসা দিতে পারলে রোগী বেচে যায়। তাই নির্দিষ্ট বলা যাবেনা যে কত সময় লাগবে।