আই বি এস রোগ কি না জানি না। প্লিস কেউ জানলে আমাকে বলেন?

আই বি এস রোগ কি না জানি না। প্লিস কেউ জানলে আমাকে বলেন?

গত ১০ বছর যাবত আমার পায়খানা প্রবলেম।পায়খানা প্রতিদিন হচ্ছে না। ৪-৫ দিন পর পর পায়খানা কিছুটা বেগ দেয়।পায়খানা ক্লিয়ার হয় না। পেটে পায়খানা রয়েই যায় । পায়খানা নরম কিন্তু অনেক চাপ প্রয়োগ করতে হয়।যখন বাথরুমে যাই প্রথম পায়খানা অল্প হয়। এর পর আর পায়খানার বেগ হয় না। প্রচুর পরিমান গেস আসে পায়খানার রাস্তা দিয়ে। পেটে এর বাম পাশে চুমুকের মত চাপ দিয়ে রাখে গেস।পিটে ও কোমরে বেথা করে। শরির দুরবল থাকে সব সময়। মাথা বেথা এবং স্নায়ু দুরবল হয়ে যাচ্ছে দিন দিন। মেজাজ খিট খিটে। ঘন ঘন হাই আসে এই কারনে। ভাই এটা কি আই বি এস রোগ। প্লিস কেও আমাকে সাহায্য করেন সঠিক তথ্য দিয়ে। খুবি যন্ত্রনা হয়। খুবি খারাপ লাগে ভাই এই যন্ত্রনা?

বিভাগ: 

1 টি উত্তর

IBS - Irritable Bowel System. বিরাট যন্ত্রণার নাম। অনেক গুলো সমস্যা হয় এর ফলে। পেটের বিভিন্ন গন্ডগোল হয় IBS সমস্যা দেখা দিলে। কথায় আছে পেট শান্তি তো দুনিয়া শান্তি। আপনি যা খান তা পেটে যায়। আর পেট থেকেই সারা দেহে সেসব খাদ্য থেকে সংগৃহীত পুষ্টি সরবরাহ করা হয়। এখন সেখানে যদি সমস্যা থাকে তাহলে আপনার পরিণতি অবশ্যই খারাপ হতে বাধ্য। 

আসলে অনেক কথা বলা লাগে। সব কথা বলতে গেলে উত্তর অনেক বড় হয়ে যাবে। প্রথম কথা হচ্ছে আপনার খাওয়া দাওয়া ঠিক করতে হবে। ভাজা, পোড়া, তৈলাক্ত খাবার, সমস্ত রকম কনফেকশনারী রুটি, বিস্কিট, কেক, চিপস, সমস্ত রকম কোল্ড ড্রিংকস, মিষ্টান্ন বাদ দিতে হবে। তার বদলে বেশি করে শাক সবজি, ফলমূল, উস্তা, করলা, চিরতার পানি, তোকমা, ইসবগুল ভূষি এসব খেতে পারেন। রাতে কিসমিস ভিজিয়ে রাখবেন পানিতে। সকালে খালি পেটে প্রথমে কিসমিসের পানি খাবেন। এরপর 30 মিনিট আর অন্য কিছু খাবেন না। এভাবে অনেক কিছু করা যায়। প্রচুর পরিমাণ পানি খাবেন। কিন্তু সেটা অবশ্যই খাওয়ার 30 মিনিট আগে এবং পরে। সম্ভব হলে 30 মিনিটের যায়গায় 1 ঘন্টা আগে পরে পানি খাবেন। খাবার মধ্যে সমস্যা না হলে আর পানি খাবেন না। ভাত কম খাবেন। অল্প পরিমাণ ভাত নিবেন। ধরুন ২ মুঠো। অন্যান্য জিনিস বেশি খাবেন ভাতের সাথে। সালাদ জাতীয় জিনিস বেশি খাবেন। কাচা মরিচ খাবেন। 

আর দ্বিতীয় কথা হল Exercise. যোগ ব্যায়াম করতে পারেন। সেই সাথে মনে শক্তি আনতে হবে। সাহস রাখতে হবে। আপনি পারবেনই। দেহের সাথে মনের সংযোগ ঘটান। মন শক্তিশালী হলে দেহের Imune System শক্তি পাবে। তখন সহজেই আপনি অসুস্থ হওয়া থেকে মুক্তি পাবেন। ব্যায়াম করলে সব ঠিক। জিমে না গিয়ে ঘরে বসেই যোগ ব্যায়ম করলে আপনার দেহ মন সব সতেজ হবে। গায়ে শক্তি আসবে। অনেকে ভেবে থাকে যোগ ব্যায়াম করে কি হবে। তারা আসলে জানেই না যোগ ব্যায়ম কি জিনিস। যোগ ব্যায়াম করে আপনি 06 pack ও বানাতে পারবেন। আমি আপনাকে একটা YouTube Link দিচ্ছি। এই চ্যানেল টা নিয়মিত দেখে ব্যায়াম করবেন। কথাগুলো শুনবেন মন দিয়ে। দেখবেন কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আপনি আমাকে মনে মনে ধন্যবাদ না দিয়ে পারবেন না। 

https://www.youtube.com/watch?v=TeVfnrlWvww

এটা দেখুন। নিয়মিত এই চ্যানেলের ভিডিও দেখে যোগ ব্যায়াম করবেন। ইনশাআল্লাহ আপনার পেটের সমস্যা, অবসাদ, ক্লান্তি, অলসতা সব ঠিক হয়ে যাবে। ধন্যবাদ। 

সাম্প্রতিক প্রশ্নসমূহ