ঔষধ স্কয়ার কোম্পানিতে জব করতে গেলে পড়াশোনার কী কী যোগ্যতা লাগে এবং ঔষধ স্কয়ার কোম্পানিতে চাকুরী করতে হলে কীভাবে ডুকতে হবে বিস্তারিত জানতে চাই!

2 টি উত্তর

আপনি কী করবেন, সেটা আগে ঠিক করুন। যদি আপনি ফার্মাসিউটিক্যাল কম্পানিতে কাজ করার জন্য মন স্থির করেন, তাহলে এই প্রতিষ্ঠানে কোন পদে চাকরি করবেন, সেটা বাছাই করুন। পদসংশ্লিষ্ট কাজের ব্যাপারে বেসিক ধারণা রাখতে হবে। বিষয়ভিত্তিক টেকনিক্যাল বিষয়গুলোর ওপরও জানাশোনা থাকতে হবে। নিয়োগ পাওয়ার পর হাতে-কলমে কাজ করার জন্য মানসিকভাবে তৈরি থাকতে হবে। কোনো কাজকেই ছোট করে দেখা যাবে না। এই চাকরিতে যোগ দিয়ে অন্য চাকরির পেছনে দৌড়ালে খুব একটা ভালো করা যাবে না। তাই মন স্থির রেখে ভালোভাবে কাজ করে গেলেই ভালো পদে ওঠা যাবে। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ওয়েবসাইটে (www.squarepharma.com.bd/career.php) আপলোড করা থাকে। প্রয়োজন সাপেক্ষে বিডিজবস (নফলড়নং.পড়স) ছাড়াও বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। প্রার্থীরা সরাসরি অনলাইনে আবেদন করেন। তবে বিশেষ ক্ষেত্রে ডাকযোগে কিংবা সরাসরি এসে আবেদনপত্র জমা দেওয়ার সুযোগ থাকে।  

ফ্রেসারদের নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠান প্রথমে ১০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা নিয়ে থাকে। এই পরীক্ষায় বিষয়ভিত্তিক  প্রশ্নে ৬০ আর জেনারেল অংশে ৪০ নম্বর। জেনারেল অংশে সাধারণত ‘আইকিউ টেস্ট’ আকারে প্রশ্ন থাকে। এই পরীক্ষায় পাশ করা প্রার্থীদের পর্যায়ক্রমে দুটি ভাইভা বোর্ডে অংশ নিতে হয়। দুটো বোর্ডে আলাদা আলাদা সদস্য। প্রথম ভাইভা বোর্ডে প্রার্থী নির্বাচিত হলে দ্বিতীয় ভাইভার জন্য ডাকা হয়। পরে চূড়ান্ত নির্বাচন। মেধাবী ও যোগ্য প্রার্থী দেখেই প্রতিষ্ঠানটিতে নিয়োগ দেওয়া হয়।

ভাইভা বোর্ডে সাধারণত কমিউনিকেশন স্কিল, অ্যাডভান্সড নলেজ, ম্যাচিউরিটি ও লজিক্যাল ট্রাম, চাকরি করার ইচ্ছা আছে কি না, অ্যাটিচ্যুড কেমন, টেকনিক্যাল নলেজ টেস্ট করা হয়।

এ ছাড়া কিছু সিমুলেশন টেস্ট, কিছু সাইকো মেট্রিক টেস্ট করা হয়। টেকনিক্যাল পদের ক্ষেত্রে ব্যাবহারিক পরীক্ষা নেওয়া হয়।

চূড়ান্ত নির্বাচনে একজন প্রার্থী প্রয়োজন হলে চারজন নির্বাচন করে প্যানেলে রাখা হয়। পরবর্তী সময়ে আরো প্রয়োজন হলে পর্যায়ক্রমে নিয়োগ দেওয়া হয়।


ইংরেজি র উপর বেশি পড়াশুনা করতে হবে। পত্রিকা বা কোম্পানির সোর্স থেকে জানতে হবে।

সাম্প্রতিক প্রশ্নসমূহ