প্রেসিডেন্সী ইউনিভার্সিটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে চাই?
1 টি উত্তর

এটি বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়।২০০৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসে প্রেসিডেন্সী ইউনিভার্সিটি শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করে। এখানে বিজনেস, ইঞ্জিনিয়ারিং, লিবারেল আর্টস এবং ইনফরমেশন টেকনোলজীর উপর স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রী প্রোগ্রামগুলো পরিচালনা করা হয়। এখানে ‘ডে’ এবং ‘ইভিনিং’ দুটি শিফট রয়েছে। অনার্সদের জন্য ‘ডে’ শিফটে ক্লাস হয়। মাস্টার্সদের ‘ডে’ এবং ‘ইভিনিং’ দুই শিফটেই ক্লাস হয়।

 

 

ঠিকানা এবং অবস্থান

প্রেসিডেন্সী ইউনিভার্সিটি

গুলশান

বনানী

১১/এ, রোড ৯২, গুলশান, ঢাকা ১২১২।

ফোন: ৯৮৫৭৬১৭, ৮৮৩১১৮২-৪

১০, কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, বনানী, ঢাকা ১২১৩। ফোন: ৯৮৯৯০৪৯, ৯৮৯৯০৩৭

ওয়েব: www.presidency.edu.bd  ইমেইল: info@presidency.edu.bd

উল্লেখ্য যে, ২০১২ সালের আগষ্ট মাসে ফাউন্ডেশন ইউনিভার্সিটি নিজস্ব ক্যাম্পাস স্থাপনের জন্য গাজীপুর জেলার কাশিমপুরে ২ একর (২০০ শতক) পরিমাণ জমি ক্রয় করেছে।

 

 

পরিচালিত প্রোগ্রামগুলো

ক্রমিক নং

আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রাম

ক্রমিক নং

গ্রাজুয়েট প্রোগ্রাম

০১.

বিএসসি ইন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং

০১.

এমবিএ রেগুলার

০২.

বিএসসি ইন ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং

০২.

এমবিএ প্রফেশনাল

০৩.

বিএসসি ইন ইলেক্ট্রনিক্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং

০৩.

এমএ ইন ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ টিচিং

০৪.

ব্যাচেলর অব বিজনেস এডমিনিষ্ট্রেশন

০৪.

এম এ ইন ইকনোমিক্স

০৫.

বিএ ইন ইংলিশ

০৫.

-----

০৬.

বিএস ইন ইকনোমিক্স

০৬.

------

 

 

ভর্তি কার্যক্রম

সপ্তাহের শনিবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত এডমিশন অফিস খোলা থাকে। শুক্রবার দিন বিশ্ববিদ্যালয়টির সমস্ত কার্যক্রম বন্ধ থাকলেও ভর্তির সময় শুক্রবারে শুধু এডমিশন অফিস খোলা থাকে। অ্যাডমিশন অফিস থেকে ৩০০ টাকার বিনিময়ে আবেদনপত্র সংগ্রহ করে তা পূরণ করে অফিসে জমা দিতে হবে। অনলাইন থেকে ওয়েব সাইট www.presidency.edu.bd –তে আবেদনপ্তর সংগ্রহ করে ৩০০ টাকার বিনিময়ে অফিসে জমা দিতে হবে। ভর্তির আবেদনপত্র যথাযথভাবে পূরন করে এস.এস.সি এবং এইচ.এস.সি পরীক্ষার মার্কসীটের ফটোকপি এবং ৩ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি সংযুক্ত করে নির্ধারিত সময়ে জমা দিতে হয়। ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ন ছাত্র-ছাত্রীরা কেবল ভর্তি হওয়ার সুযোগ পেয়ে থাকে।

 

টিউশন এবং অন্যান্য ফি

ক্রমিক নং

বিবরণ

টাকা

০১.

ভর্তি এবং প্রসেসিং ফি (অফেরৎযোগ্য)

১২,২০০.০০

০২.

এমবিএ এবং প্রফেশনাল এমবিএ এর জন্য ভর্তি ফি

১০,২০০.০০

০৩.

আন্ডারগ্রাজুয়েট (প্রতি ক্রেডিট)

২,৪০০.০০

০৪.

গ্রাজুয়েট (প্রতি ক্রেডিট)

২,৫০০.০০

০৫.

ডেভেলপমেন্ট ফি (প্রতি সেমিষ্টার)

৫০০.০০

০৬.

কম্পিউটার ল্যাব ফি (প্রতি সেমিষ্টার)

৫০০.০০

০৭.

লাইব্রেরী ফি (‌ইএলটি এর শিক্ষার্থীদের জন্য)

৫০০.০০

০৮.

ইঞ্জিনিয়ারিং ল্যাব ফি (প্রতি সেমিষ্টার)

৫০০.০০

 

শিক্ষা বৃত্তি

জিপিএ ৫ (গোল্ডেন) প্রাপ্তরা ১০০%, জিপিএ ৪.৮০ – ৪.৯৯ প্রাপ্তরা ৭৫%, জিপিএ ৪.৫০ – ৪.৭৯ প্রাপ্তরা ৫০%, জিপিএ ৪.০০ – ৪.৪৯ প্রাপ্তরা ২৫% বৃত্তি সুবিধা পাবে। যাদের সিজিপিএ ৩.০০ ন্যূনতম থাকবে তারা পরের সেমিস্টারে ১০% - ৫০% বৃত্তি সুবিধা পাবে এবং যাদের সিজিপিএ ৩.৫০ ন্যূনতম থাকরে তারা ৫০% - ১০০% বৃত্তি সুবিধা পাবে। যারা সিজিপিএ ৪.০০ পাবে তাদের কোন টিউশন লাগবে না। গ্রেডিং পদ্ধতিতে ফলাফল দেওয়া হয়।

 

ক্রেডিট ট্রান্সফার

ন্যূনতম ৩.৭৫ থাকলে দেশে ট্রান্সফার করা যাবে। বিদেশে ভার্সিটি থেকে ক্রেডিট ট্রান্সফার করা যায় নায় কিন্তু শিক্ষার্থী নিজ উদ্যোগে ক্রেডিট ট্রান্সফার করতে পারবে।

 

অন্যান্য সুবিধা

  • এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্রিকেট, ফুটবল, দাবা, সাইবার গেমস ইত্যাদি খেলার টুর্নামেন্ট হয়ে থাকে। এদের নিজস্ব কোন মাঠ নেই ভাড়া করে খেলা সম্পাদন করে থাকে।
  • এখানে বিদেশী ছাত্র-ছাত্রীরাও পড়াশুনা করে থাকে।
  • টিউশন ফি পরিশোধে গরীব ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের ১০০% আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়।
  • যুক্তরাষ্ট্র এবং বিশ্বের অন্যান্য দেশের স্বনামধন্য কারিকুলাম অনুসরনে এখানে সিলেবাস প্রণয়ন করা হয়েছে যা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন কর্তৃক স্বীকৃত।
  • এখানে দেশী-বিদেশী স্বনামধন্য শিক্ষক-অধ্যাপক শিক্ষাদান কাজে নিয়োজিত রয়েছেন

 

লাইব্রেরী ব্যবস্থা

লাইব্রেরীটি সকাল ৮.৩০ টা থেকে রাত ৮.০০ টা পর্যন্ত খোলা থাকে। লাইব্রেরী কার্ড ধারীরা বই পেতে পারবে এবং বাসায় নিয়ে যেতে পারবে। এখানে টেক্সট বুকস, জার্নালস, রেফারেন্স বুক, ম্যাপ ইত্যাদি পাওয়া যায়। একসাথে ৮০ জন ছাত্র-ছাত্রী বসে পড়তে পারবে। লাইব্রেরী ভবন অ্যাডমিশন ভবনের ২য় তলায় অবস্থিত। প্রায় ১৫,০০০ বই এতে রয়েছে।

 

সেমিস্টার ফি

প্রতি সেমিস্টারের ফি ২,৫০০ টাকা ধরা হয়েছে। প্রতি ক্রেডিট ফি ২,০০০ টাকা।

 

২০১১ সালের শিক্ষাবৃত্তির ব্যবস্থা

ভর্তি ফি – ১২,০০০ টাকা

টিউশন ফি – ২,৮৮,০০০ টাকা

সেমিস্টার ফি – ৩০,০০০ টাকা (প্রতি সেমিস্টার – ২,৫০০ টাকা)

ইন্টার্নীসিপ – ৬,০০০ টাকা।

মোট ফি – ৩,৩৬,০০০ টাকা।

 

ইএমবিএএর ব্যবস্থা

এখানে ইএমবিএ-এর জন্য নৈশকালীন ব্যবস্থা আছে। ভর্তির জন্য অ্যাডমিশন অফিসে যোগাযোগ করতে হবে। ভর্তির খরচ ১২,০০০ টাকা লাগবে।

 

অন্যান্য

এতে মোট ৫টি ক্লাব আছে। সদস্যপদ আহবান করা হলে ফর্মের মাধ্যমে সদস্য হওয়া যায়। প্রশাসনিক ভবন বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যেই অবস্থিত। সকল প্রকার তথ্য প্রশাসনিক ভবন থেকেই সংগ্রহ করা যায়। এই বিশ্বিদ্যালয়ে প্রতিটি ক্লাস ১:৪৫ ঘন্টা করে নেওয়া হয়। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ক্লাস নেওয়া হয়। প্রতি সেশনে প্রায় ২৫০ জন ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করানো হয়। প্রতি বিভাগে প্রায় ১৫ জন শিক্ষক রয়েছে। স্থায়ী শিক্ষক আছেন ৭৬ জন এবং অস্থায়ী শিক্ষক আছেন ৬৩ জন। ওয়েব সাইটে রেজাল্ট, বন্ধের ঘোষণা, নোটস এসাইনমেন্ট ইত্যাদি প্রায় সকল প্রকার তথ্য পাওয়া যায।

ওয়েব সাইট: www.presidency.edu.bd

 

২০১১ এর শিক্ষাবৃত্তির চার্ট

 -----

এইচ.এস.সি

জিপিএ ৫ (গোল্ডেন)

এইচ.এস.সি

(জিপিএ ৫)

এইচ.এস.সি

(জিপিএ ৪.৫০ – ৪.৯৯)

এইচ.এস.সি

(জিপিএ ৪.০০ – ৪.৪৯)

এইচ.এস.সি (জিপিএ ৩.৫ – ৩.৯০)

টিউশন ফি: ওয়েভার

১০০%

৫০% (১,২০০ টাকা ক্রেডিট প্রতি)

২৫% (১,৮০০ টাকা ক্রেডিট প্রতি)

১৫% (২,০৪০ টাকা ক্রেডিট প্রতি)

১০% (২,১৬০ টাকা ক্রেডিট প্রতি)

ভর্তি ফি

১২,০০০ টাকা

১২,০০০ টাকা

১২,০০০ টাকা

১২,০০০ টাকা

১২,০০০ টাকা

টিউশন ফি

১,৪৪,০০০ টাকা

২,১৬,০০০ টাকা

২,৪৪,৮০০ টাকা

২,৫৯,২০০ টাকা

সেমিস্টার ফি

৩০,০০০ টাকা

৩০,০০০ টাকা

৩০,০০০ টাকা

৩০,০০০ টাকা

৩০,০০০ টাকা

ইন্টার্নীসিপ

প্রতি – ২,০০০

(৩ ক্রেডিট)

৬,০০০ টাকা

৬,০০০ টাকা

৬,০০০ টাকা

৬,০০০ টাকা

৬,০০০ টাকা

মোট ফি

৪৮,০০০ টাকা

১,৯২,০০০ টাকা

২,৯৪,০০০ টাকা

২,৯২,০০০ টাকা

৩,০৭,২০০ টাকা