বিজ্ঞাপন

বাথরুমে সমস্যা? আজ ২ বছর যাবৎ আমার এই সমস্যা। পায়খানার কোন বেগ হয় না,, যেমন বাথরুমে যাওয়ার আগে যে মলদ্বারে কোন চাপ বা পায়খানার বেগ অনূভুত হয় না,,জোর করে মলত্যাগ করতে হয়,, এই সমস্যার জন্য ডাক্তার আমাকে পেরিস্টাল ও পরে অমিডন এ এই ট্যাবলেট গুলো দেয়,, কিন্তু এতে আমার হজম প্রক্রিয়া ঠিক হলে ও বাথরুমের যে চাপ বা কুত দিলে সাধারনত যে চাপ হওয়ার কথা এমন অনুভব হয় না যার ফলে আমার মলত্যাগ পরিস্কার হয় না। সারাদিন অস্তিরতা সহ অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়,, ১০/১২ দিন এভাবে চলার পর আবার চাপ ও অনুভব হয় সঠিকভাবে পায়খানা হয়, সব ঠিক হয়ে যায়। ৪/৫ দিন এভাবে ভাল থাকলে ও পরে আবার একি অবস্থা শুরু হয়ে যায়,, এখন আমি কি করতে পারি এই সমস্যা সমাধানের জন্য দয়া করে জানাবেন আজ ২ বছর যাবৎ আমার এই সমস্যা। পায়খানার কোন বেগ হয় না,, যেমন বাথরুমে যাওয়ার আগে যে মলদ্বারে কোন চাপ বা পায়খানার বেগ অনূভুত হয় না,,জোর করে মলত্যাগ করতে হয়,, এই সমস্যার জন্য ডাক্তার আমাকে পেরিস্টাল ও পরে অমিডন এ এই ট্যাবলেট গুলো দেয়,, কিন্তু এতে আমার হজম প্রক্রিয়া ঠিক হলে ও বাথরুমের যে চাপ বা কুত দিলে সাধারনত যে চাপ হওয়ার কথা এমন অনুভব হয় না যার ফলে আমার মলত্যাগ পরিস্কার হয় না। সারাদিন অস্তিরতা সহ অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়,, ১০/১২ দিন এভাবে চলার পর আবার চাপ ও অনুভব হয় সঠিকভাবে পায়খানা হয়, সব ঠিক হয়ে যায়। ৪/৫ দিন এভাবে ভাল থাকলে ও পরে আবার একি অবস্থা শুরু হয়ে যায়,, এখন আমি কি করতে পারি এই সমস্যা সমাধানের জন্য দয়া করে জানাবেন
জিজ্ঞাসা করেছেন
বিভাগ:
2 টি উত্তর
যেহেতু আপনার দীর্ঘদিন ধরে সমস্যা হলে আপনি একজন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিন। দৈনিক পানির চাহিদা পানি পানের মাধ্যমে মেটানোর চেষ্টা করুন। নিকটস্থা কোন সুপার মার্কেট থেকে বা ফার্মেসি থেকে ইসুবগুলের ভূসি কিনে আনতে পারেন। ভূসি পেটের ও অন্ত্র বিভিন্ন সমস্যা দূর করতে কার্যকরী। প্রতিদিন এক গ্লাস পানিতে ২–৩ চা চামচ ইসুবগুলের ভূসি মিশিয়ে পান করুন। নিয়মিত পান করুন। এতে আপনি চিনি বা গুঁড় মিশিয়ে নিয়ে সেবন করতে পারেন। এতে আপনার মল স্বাভাবিক হতে সাহায্য করবে। আপনি লাউয়ের জুস পান করতে পারেন। এর জন্যে এক টুকরো লাউ কেটে নিয়ে ব্লেন্ড করে এক গ্লাস জুস বানিয়ে নিন। তারপর পান করুন। নিয়মিত লাউয়ের জুস পান করুন। বাইরের খাবার খাবেন না। অতিরিক্ত তেল-চর্বিযুক্ত খাবার বর্জন করুন। মানসিক চিন্তা করলে দূর করুন। নিয়মিত মল ত্যাগের অভ্যাস গড়ে তুলুন। প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন। দ্রুত একজন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিন।
আপনি প্রতিদিন সকালে খালিপেটে ইসুবগুলের ভুসির সর্বত খাবেন। খালিপেটে ১ চামচ মধু এক গ্লাস পানিতে গুলে খাবেন। এভাবে ১ সপ্তাহ খেলেই ফল পাবেন।  আপনার ইহা আলসার  এর কারন যা কোষ্ঠকাঠিন্য বলা যেতে পারে। আপনি তেলেভাজা খাবার,ও ভাজাপোড়া খাবেন না।বাজারের খোলা খাবার এড়িয়ে চলুন, খোলা পরিবেশ এ তৈরি খাবার খাবেন না। গ্যাস্ট্রিক করে এমন খাবার এড়িয়ে চলুন।আপনি  চিকিৎসক দেওয়া উক্ত ঔষধ গুলো খান আর ডুরালাক্স ট্যাবলেট টি খেতে পারেন চিকিৎসক এর পরামর্শে। 
বিজ্ঞাপন