আল্লাহ কি সর্বত্র বিরাজমান? আল্রাহ তায়ালা কি পৃথিবীর প্রত্যেকটি প্রান্তেই রয়েছেন এমনকি টয়লেটেও??? আল্রাহ তায়ালা কি পৃথিবীর প্রত্যেকটি প্রান্তেই রয়েছেন এমনকি টয়লেটেও???
জিজ্ঞাসা করেছেন
বিভাগ:
4 টি উত্তর
আল্লাহ প্রত্যেক মোমিন বান্দার অন্তরে বিরাজমান
সকল জীবের মধ্যে বিরাজমান। যা আপনি আমি কেউ দেখতে পাই না।

আল্লাহ তায়ালা আরশে সমাসীন, কিন্তু আল্লাহ তায়ালা স্বীয় জ্ঞানের মাধ্যমে সর্বত্র বিরাজমান। 

১-

ثُمَّ اسْتَوَى عَلَى الْعَرْشِ 
অতঃপর তিনি আরশের উপর ক্ষমতাশীল হোন। {সূরা হাদীদ-৩}

২-

قوله تعالى {وَإِذَا سَأَلَكَ عِبَادِي عَنِّي فَإِنِّي قَرِيبٌ أُجِيبُ دَعْوَةَ الدَّاعِ إِذَا دَعَانِ} 

আর আমার বান্দারা যখন তোমার কাছে জিজ্ঞেস করে আমার ব্যাপারে বস্তুতঃ আমি রয়েছি সন্নিকটে। যারা প্রার্থনা করে, তাদের প্রার্থনা কবুল করে নেই, যখন আমার কাছে প্রার্থনা করে। {সূরা বাকারা-১৮৬}

৩-

قوله تعالى {وَنَحنُ أَقرَبُ إِلَيهِ مِن حَبلِ الوَرِيدِ} [ق 16] আর আমি বান্দার গলদেশের শিরার চেয়েও বেশি নিকটবর্তী। {সূরা কাফ-১৬}

৪-

فَلَوْلا إِذَا بَلَغَتِ الْحُلْقُومَ (83) وَأَنْتُمْ حِينَئِذٍ تَنْظُرُونَ (84) وَنَحْنُ أَقْرَبُ إِلَيْهِ مِنْكُمْ وَلَكِنْ لا تُبْصِرُونَ (85) 
অতঃপর এমন কেন হয়না যে, যখন প্রাণ উষ্ঠাগত হয়। এবং তোমরা তাকিয়ে থাক। এবং তোমাদের চেয়ে আমিই তার বেশি কাছে থাকি। কিন্তু তোমরা দেখতে পাওনা {সূরা ওয়াকিয়া-৮৩,৮৪,৮৫}

৫-

{ وَللَّهِ الْمَشْرِقُ وَالْمَغْرِبُ فَأَيْنَمَا تُوَلُّواْ فَثَمَّ وَجْهُ اللَّهِ إِنَّ اللَّهَ وَاسِعٌ عَلِيمٌ } [البقرة-115] পূর্ব এবং পশ্চিম আল্লাহ তায়ালারই। সুতরাং যেদিকেই মুখ ফিরাও,সেদিকেই রয়েছেন আল্লাহ তায়ালা। নিশ্চয় আল্লাহ তায়ালা সর্বব্যাপী সর্বজ্ঞাত {সূরা বাকারা-১১৫}

৬-

قوله تعالى { وَهُوَ مَعَكُمْ أَيْنَمَا كُنتُمْ } [ الحديد – 4 ] তোমরা যেখানেই থাক না কেন, তিনি তোমাদের সাথে আছেন {সূরা হাদীদ-৪}

৭-

وقال تعالى عن نبيه : ( إِذْ يَقُولُ لِصَاحِبِهِ لا تَحْزَنْ إِنَّ اللَّهَ مَعَنَا (التوبة من الآية40 
যখন তিনি তার সাথীকে বললেন-ভয় পেয়োনা, নিশ্চয় আমাদের সাথে আল্লাহ আছেন {সূরা হাদীদ-৪০}

৮-

قوله تعالى مَا يَكُونُ مِن نَّجْوَى ثَلاثَةٍ إِلاَّ هُوَ رَابِعُهُمْ وَلا خَمْسَةٍ إِلاَّ هُوَ سَادِسُهُمْ وَلا أَدْنَى مِن ذَلِكَ وَلا أَكْثَرَ إِلاَّ هُوَ مَعَهُمْ أَيْنَ مَا كَانُوا ثُمَّ يُنَبِّئُهُم بِمَا عَمِلُوا يَوْمَ الْقِيَامَةِ إِنَّ اللَّهَ بِكُلِّ شَيْءٍ عَلِيمٌ ( المجادلة – 7 
কখনো তিন জনের মাঝে এমন কোন কথা হয়না যাতে চতুর্থ জন হিসেবে তিনি উপস্থিত না থাকেন, এবং কখনও পাঁচ জনের মধ্যে এমন কোনও গোপন কথা হয় না, যাতে ষষ্ঠজন হিসেবে তিনি উপস্থিত না থাকেন। এমনিভাবে তারা এর চেয়ে কম হোক বা বেশি, তারা যেখানেই থাকুক, আল্লাহ তাদের সঙ্গে থাকেন। অতঃপর কিয়ামতের দিন তিনি তাদেরকে অবহিত করবেন তারা যা কিছু করত। নিশ্চয় আল্লাহ সব কিছু জানেন {সূরা মুজাদালা-৭}

৯-

وَسِعَ كُرْسِيُّهُ السَّمَاوَاتِ وَالأَرْضَ 
আল্লাহ তায়ালার কুরসী আসমান জমিন ব্যাপৃত {সূরা বাকারা-২৫৫}

আল্লাহ তায়া’লার প্রকৃত পরিচয় ও প্রকৃতি এখনো মানুষের অজানা। এ বিষয়ে একমাত্র আল্লাহ তায়া’লাই সম্যক অবহিত। 

আমি আপনাকে সেই উত্তরই দেব, যে উত্তর ইমাম মুহাম্মদ (রহঃ)  দিয়েছিলেন। উনাকে কেউ একজন আল্লাহর প্রকৃতি নিয়ে প্রশ্ন করলে তিনি দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে বলেছিলেন, "এ বিষয়ে বিশ্বাস রাখা ফরয, কিন্তু প্রশ্ন করা বিদআত।" 

নিশ্চয়ই সাহাবায়ে কেরাম(রাঃ) গণ দ্বীনের ব্যাপারে আমাদের চাইতে বেশি অনুসন্ধিৎসু ছিলেন। কিন্তু উনারাও রাসূল (সাঃ)  কে এ বিষয়ে তেমন প্রশ্ন করেন নি। আর রাসুল(সাঃ) ও এ বিষয়ে তেমন কোন কথা বলেননি। অতএব, এসব নিয়ে ঘাটাঘাটি না করে নিজের আমলের দিকে মনোযোগ দেওয়াই সঙ্গত।