আসরের চার রাকাত ফরজ নামাজে....? আসরের চার রাকাত ফরজ নামাজে জামাতে সুরা ফাতিহার সাথে অন্য কোনো সুরা পড়তে হয় কি?আর ফজরের ফরজ নামাজে ইমামের সাথে কি সুরা ফাতেহা বলে হবে নাকি ইমামের আগে সূরা ফাতেহা শেষ করা যাবে?
2 টি উত্তর
জামাতের সাথে নামাজ আদায় করলে সূরা পড়তে হবে না(5 ওয়াক্তেই)।একা একা পড়লে ফরজ নামাজে 2য় রাকাতের পর(অর্থ্যাৎ 3য় ও 4র্থ রাকাতে)সূরা মেলানোর প্রয়োজন নেই।শুধু সূরা ফাতিহা পরলেই হবে।
হানাফী মাজহাব মতে, ইমামের পিছনে মুক্তাদীর কোন কিরাতই পড়তে হবে না। কারণ ইমামের কিরাতই মুক্তাদীর কিরাত।

ইমাম সূরা ফাতিহার পর বাকি সূরা মিলালে যেমন তা মুক্তাদীর পক্ষ থেকে হয়ে যায়, তেমনি সূরা ফাতিহা পড়লেও তা মুক্তাদীর পক্ষ থেকে হয়ে যাবে।

মুক্তাদীর আলাদাভাবে সূরা ফাতিহা পড়তে হবে না, সেই সাথে অতিরিক্ত সূরাও মিলাতে হবে না।

তাই ফজর এবং আসরের চার রাকাত ফরজ নামাজ জামায়াতে আদায়কালে মুক্তাদিকে সুরা ফাতিহা বা ফাতিহার সাথে অন্য কোনো সুরা পড়তে হবে না। অর্থাৎ ফরজ নামাজে ইমামের সূরা ফাতিহা পড়তে হবে না।

কারণ তিলাওয়াত করলে পিছনে চুপ থাকার নির্দেশ পবিত্র কুরআনে যেমন এসেছে, তেমনি সহীহ হাদীসেও এসেছে। সেই সাথে ইমামের সকল কিরাতই মুক্তাদীর জন্য যথেষ্ট হয় মর্মে সহীহ হাদীসে বর্ণিত হয়েছে।

হযরত জাবের (রাঃ) থেকে বর্ণিত। রাসূল (সাঃ) ইরশাদ করেছেন, যার ইমাম রয়েছে, তার ইমামের কিরাত মানেই হল তার কিরাত।

(মুয়াত্তা মালিকঃ ১২৪, মুসনাদে আহমাদঃ ১৪৬৪৩, সুনানে ইবনে মাজাহঃ ৮৫০)।