মনের সংকোচ দূর করা? প্রায় সময় আমার দিকে তাকিয়ে থাকে । প্রপোজ করতে গিয়েও সাহস হয়নি,তাই সে যখন অটোতে বসে ছিল ফুলটা তার কোলের ঢিল ছোড়ে ফেলে দেই । সে ফুলটা নিয়ে ছুড়ে ফেলে দেয় । এতে আমি কী মনে করব সে কী আমাকে পছন্দ করে না । এখন আমি কীভাবে তাকে ইমপ্রেস করব । একাদশ শ্রেণীতে পড়ি। সেই আমার প্রথম ভালবাসা।এত মানুষের সামনে প্রপোজ করতেও মনে লজ্জা ও সংকোচ লাগে।তার বান্ধবীদেরকেও হাত করতে পারছি না। plz help me!!!
4 টি উত্তর
সাহসী না হতে পারলে ব্যর্থতার গ্লানি থাকবেই, সাহসী হোন মনের কথা বলুন, সে জানুক আপনি তাকে চান।
আপনি যে কাজটা করেছেন তা করা মোটেও উচিত হয়নি।আপনি যে কাজটা করেছেন তা কোন ভদ্র মেয়েই সহ্য করবে না।আপনি লোক সমাবেশে অটোতে বসে থাকা একটা মেয়েকে ফুল ছুড়ে মেরেছেন।এখন যদি মেয়েটি ফুলটি গ্রহণ করে তবে আশেপাশের লোকজন তার সম্পর্কে কতটা খারাপ ধারণা করবে সেটি কখনো ভেবে দেখেছেন।এমনকি যদি সে আপনার প্রেমিকা হত তারপরেও সে ফুলটি ফেলে দিতে।তাই এরকম কান্ডজ্ঞানহীন কাজ করা থেকে বিরত থাকুন।আর পরবর্তীতে সাহস করে নিজেই প্রপোজ করবেন।
এই কাজ করার বার ভাবা ছিল। আপনি যেরকম কাজ করেছেন তাতে আপনি তার কাছে একজন অভদ্র ব্যক্তি। আপনি যে কাজ করেছেন তার মাধ্যমে একজন খারাপ ব্যক্তি হিসেবে নিজেকে উপস্থাপন করেছেন। এরকম করার পূর্বে আপনার বোঝা উচিত ছিল। আপনি বলেছেন,"প্রায় সময় আমার দিকে তাকিয়ে থাকে"। এতে বোঝা যায় সে আপনাকে পছন্দ করতে পারে। কিন্তু আপনি যে অভদ্রতা করেছেন এরফলে সে আপনার প্রতি ঘৃণা বোধ করতে পারে। এখন তার সাথে কোন সম্পর্ক তৈরি করার সম্ভাবনা খুবই কম। আপনি যদি তাকে প্রপোজ করেন তাহলে সে আপনাকে রিজেক্ট করে দিতে পারে। আপনি লোক সমাবেশে তার দিকে ফুল ছুড়ে মেরেছেন এতে আপনি তার প্রতি একজন খারাপ ব্যক্তি হিসেবে প্রকাশ করেছেন৷ এখন আপনি সরাসরি তার কাছে ক্ষমা চান। অন্য দিক থেকে আমার মতে এটি ভালো৷ আপনি যদি আপনার দোষ স্বীকার করেন তাহলে সে আপনাকে ক্ষমা করে দিতে পারে। আপনি তাকে সরাসরি প্রপোজ না করে বন্ধুত্বের সম্পর্ক তৈরি করতে পারেন। বন্ধুত্বেত সম্পর্ক তৈরি করার জন্যে আপনি তার কাছে থাকার চেষ্টা করুন৷ সব সময় তার কাজে সঙ্গ দিন। তার সাথে ভালো আচরণ ও ব্যবহার করুন৷ তার সাথে আড্ডা দিয়ে বা দীর্ঘদিন তার সাথে বন্ধুত্বসুলভ ব্যবহার করুন। তারপর আপনি তাকে প্রপোজ করতে পারেন৷ আশা করি বুঝতে পেরেছেন।
প্রথমত আপনি তার সাথে চোঁখাচোঁখি করার চেষ্টা করুন। তার সাথে মিশতে শুরু করুন। প্রথমে কুশল বিনিময় দিয়ে হলেও তার সাথে কথা বলুন। সে যদি আপনার কথায় রেসপন্স করে তাহলে ধীরে ধীরে কথা বাড়াবেন। আর যদি রেসপন্স না করে তাহলে কিছুদিন শুধু কুশল সংবাদই জিজ্ঞাসা করবেন। যদি সে বেশি বিরক্ত হয় তাহলে আশা ছেড়ে দেয়াই ভাল। আর যদি বিরক্ত না হয় তাহলে এভাবেই চালিয়ে যাবেন তারপর সময় বুঝে বুকে সাহস নিয়ে মনের কথাটা বলে দিবেন তবে কথাটা বলার আগে আনুষঙ্গিক কিছু কথা বলে পরিবেশটা উর্বর করে নিবেন। আর কখনও ওভাবে কোন কিছু দিবেন না।