কারবালার ঘটনায় নবী(সাঃ) এর বংশের সবাই তো শহীদ হয়ে যায়,তাহলে কেন বলা হয় নবী(সঃ) বংশ হতে ইমাম মাহদী জন্ম নেবেন?
3 টি উত্তর
জয়নাল আবেদীন বেচে ছিল।
না সবাই শহীদ হন নি হযরত হাসাঈন(রাঃ) এর পুত্র হযরত জয়নাল আবেদিন বেঁচে গিয়েছিলেন। ইয়াজিদ তাকে ছেড়ে দিয়েছিল।যুদ্ধের সময় তিনি অসুস্থ ছিলেন বলে তাকে যুদ্ধ করতে দেওয়া হয়নি।
কারবালার ঘটনায় নবী (সাঃ) এর বংশের সবাই শহীদ হয়ে যায় নি, আল্লাহ তায়ালার অশেষ মেহেরবানিতে জয়নুল আবেদিন (রহঃ) বেঁচে ছিলেন। তাই নবী (সাঃ) এর বংশ হতে ইমাম মাহদী জন্ম নেবেন। জয়নুল আবেদিন (রহঃ) একজন প্রখ্যাত তাবেঈ এবং বুযুর্গ ব্যক্তিত্ব। তিনি ইসলামী খিলাফতের চতুর্থ খলিফা হযরত আলী ইবনে আবু তালিব (রাঃ) এবং হযরত ফাতিমা (রাঃ) এর দ্বিতীয় পুত্র হযরত হুসেইন (রাঃ) এর পুত্র। হুসাইন (রাঃ) এর বংশধারা এই জয়নুল আবেদিন (রহঃ) এর মাধ্যমেই চালু থাকে। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেনঃ মাহদী আসবেন আমার বংশধর হতে। তার কপাল হবে উজ্জল এবং নাক হবে উঁচু। পৃথিবী হতে যুলুম-নির্যাতন দূর করে দিয়ে ন্যায়-ইনসাফ দ্বারা তা ভরে দিবেন। সাত বছর পর্যন্ত তিনি রাজত্ব করবেন। আবদুল্লাহ (রাঃ) হতে বর্ণিত আছে, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ আমার পরিবারের একজন আরবের অধিপতি না হওয়া পর্যন্ত পৃথিবী ধ্বংস হবে না। আমার নামের অনুরূপই তার নাম হবে। (সূনান আত তিরমিজী, হাদিস নম্বরঃ ২২৩০ মিশকাতঃ ৫৪৫২) ইমাম মাহদী (আ)-এর আবির্ভাব সম্পর্কে, সাঈদ ইবনুল মুসায়্যাব থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমরা উম্মু সালামা (রাঃ) এর নিকট বসা ছিলাম। আমরা পরস্পর মাহ্দী সম্পর্কে আলোচনা করছিলাম। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে বলতে শুনেছিঃ মাহদী ফাতেমার বংশধর। (সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদিস নম্বরঃ ৪০৮৬ আবূ দাউদঃ ৪২৮৪)