হজ্জের সময় মিনাতে কয় রাত থাকা ওয়াজিব?
বিভাগ:
2 টি উত্তর

২ রাত। (১০ ও ১১ তারিখ দিবাগত রাত)

তাওয়াফ-সাঈ শেষ করে মিনায় ফিরে আসতে হবে এবং ১০ তারিখ দিবাগত রাত ও ১১ তারিখ দিবাগত রাত মিনায় যাপন করতে হবে। ১২ তারিখ যদি মিনায় থাকা অবস্থায় সূর্য ডুবে যায় তাহলে ১২ তারিখ দিবাগত রাতও মিনায় যাপন করতে হবে। ১৩ তারিখ কঙ্কর মেরে তারপর মিনা ত্যাগ করতে হবে। মিনায় রাত্রিযাপন গুরুত্বপূর্ণ একটি আমল। রাসূলুল্লাহ (সাঃ) যোহরের সালাত মসজিদুল হারামে আদায় ও তাওয়াফে যিয়ারত শেষ করে মিনায় ফিরে এসেছেন ও তাশরীকের রাতগুলো মিনায় কাটিয়েছেন। ইবনে ওমর (রাঃ) থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, ওমর (রাঃ) আকাবার ওপারে (মিনার বাইরে) রাত্রিযাপন করা থেকে নিষেধ করতেন। এবং তিনি মানুষদেরকে মিনায় প্রবেশ করতে নির্দেশ দিতেন। ইবনে আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, তোমাদের কেউ যেন মিনার কোনো রাত, আইয়ামে তাশরীকে, আকাবার ওপারে যাপন না করে। এলাউস্সুনান কিতাবে রয়েছে, মিনায় রাত্রিযাপনের আবশ্যকতা বিষয়ে হাদিসের ভাষ্য স্পষ্ট। সে হিসেবে হানাফি মাজহাবের নির্ভরযোগ্য মতামত হল, আইয়ামে তাশরীকে মিনার বাইরে অবস্থান করা মাকরুহে তাহরীমি। তাই অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে মিনায় অবস্থায় করুন। দিনের বেলায়েও মিনাতেই থাকুন। কেননা রাসূলুল্লাহ (সাঃ)আইয়ামে তাশরীকের দিনগুলোও মিনায় কাটিয়েছেন। (আবু দাউদ, ইবনু আবি শায়বাঃ ১৪৩৬৮ এলাউস্সুনান খন্ডঃ ৭, পৃ: ৩১৯৫)