2 টি উত্তর

শরীরকে মজবুত রাখতে হলে সবার আগে নজর দিতে হবে হাড়ের পুষ্টির উপর৷ ৩০ বছরের পর থেকেই হাড় ক্ষয় হতে শুরু করে৷ তবে সঠিক ডায়েট মেনে চললে এই সমস্যা রোধ করা সম্ভব৷ তাই আপনাদের জন্য পাঁচটি সুপারফুড যা আপনার হাড়কে মজবুত রাখতে সাহায্য করবে৷ দুধ: শরীর বৃদ্ধির জন্য যে পরিমাণ ক্যালসিয়াম দরকার তার প্রায় সবটাই থাকে দুধের মধ্যে৷ বিশেষজ্ঞরা বলেন প্রাপ্তবয়স্কদের দিনে অনন্ত ৭০০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম প্রয়োজন৷ যারা অস্টিপোরেসিসের শিকার তাদের ক্ষেত্রে দিনে ১২০০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম প্রয়োজন৷ ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ চাইল্ড হেল্থ অ্যান্ড হিউম্যান ডেভলপমেন্টের গবেষকেরা জানিয়েছেন লোট ফ্যাট দুধ বা ফ্যাট বিহীন দুধে ক্যালসিয়ামের পরিমাণ সবচেয়ে বেশি থাকে৷ এবং এর ফলে দুধে থাকা ক্যালসিয়ান শরীর খুব সহজেই শুষে নিতে পারে৷ ক্যালসিয়াম ছাড়াও দুধে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, রিবোফ্ল্যাভিন, ফসফরাস, ভিটামিন ডি-এ-বি ১২ বর্তমান যা হাড়ের জন্য খুবই উপকারি৷ যারা দুধ খেতে পছন্দ করেন না তারা ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ বিভিন্ন খাবার যেমন দই, চীজ ইত্যাদি খেতে পারেন৷ ছোট মাছ: ছোট মাছের কাঁটায় প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ডি থাকে হাড় মজবুত রাখতে সাহায্য করে৷ এছাড়াও এতে অস্থিমজ্জা মজবুত হয়৷ তৈলাক্ত মাছ: তৈলাক্ত মাছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে যা হাড় শক্ত করতে সাহায্য করে৷ এছাড়াও এতে ভিটামিট ডি রয়েছে যা ক্যালসিয়াম শুষে নিতে সাহায্য করে৷ গবেষণায় দেখা গেছে মাছের তেল মহিলাদের হাড় ক্ষয়ের সমস্যা কম করতে পারে৷ এছাড়াও এটি অস্টিওপোরিসের সমস্যাও দূর করে৷ সবুজ-সবজি: পালং শাক বা ব্রকোলির মতো সবুজ সবজিতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন ডি থাকে৷ এছাড়াও লেটুস পাতা বা শালগমের পাতাতেও প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম বর্তমান৷ বাদাম: আখরোট, পেস্তা বাদামে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়ামের পাশাপাশি এমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিডও বর্তমান৷ এছাড়াও এতে প্রচুর পরিমাণে খনিজ দ্রব্য রয়েছে যা হাড়কে শক্ত রাখতে সাহায্য করে৷ এছাড়াও চীনে বাদাম ও আমন্ডে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম থাকে যা ক্যালসিয়ামের ক্ষয় প্রতিরোধ করে।

দেহের হাড় বৃদ্ধি এবং মজবুত করার জন্য প্রচুর পরিমান দুধ খাওয়া উচিত।