এসিডের ক্ষতিকারক দিক?

খনিজ এসিড (Mineral Acids) খাওয়ার উপযোগী নয়। বরং বলা যায় এরা মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর। খনিজ এসিড ত্বকে লাগলে ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি হয়।  আমাদের সমাজের কিছু খারাপ চরিত্রের লোক যে এসিড ছুড়ে মানুষের শরীর ঝলসে দেয়।


আমাকে উপরে উল্লিখিত এসিডের খারাপ দিক ছাড়া আরও এসিডের ক্ষতিকারক দিক দেন????

উত্তর বা মন্তব্য প্রদান করতে দয়া করে লগইন কিংবা নিবন্ধন করুন।

2 টি উত্তর

এসিডের ক্ষতিকারক দিক: 1.এসিড বৃষ্টিতে এসিড থাকে।যা ফসলের ব্যাপক ক্ষতি করে।বিশেষ করে ক্ষারধর্মী গাছ যেমন কলা মরে যায়। 2.এসিড মাটির অম্লত্ব বাড়িয়ে দেয়।যা ক্ষতিকর 3.এসিড শরীরের জন্য ক্ষতিকর।পেটের ভিতরে এসিড তৈরি হয়।বেশি তৈরি হলে আলসার সৃষ্টি করতে পারে।
উত্তর বা মন্তব্য প্রদান করতে দয়া করে লগইন কিংবা নিবন্ধন করুন।

কিছু কিছু এসিড আছে যেমন- হাইড্রোক্লোরিক এসিড (HCl), সালফিউরিক এসিড (H2 SO4 )), ফসফরিক এসিড (H3 PO4 ), নাইট্রিক এসিড (HNO3 ), পারকোরিক এসিড (HClO4 ) ইত্যাদি যেগুলো প্রকৃতিতে প্রাপ্ত নানারকম খনিজ পদার্থ থেকে তৈরি করা হয়, এদেরকে খনিজ এসিড (Mineral Acids) বলে। এগুলো খাওয়ার উপযোগী নয়। বরং বলা যায় এরা মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর। খনিজ এসিড ত্বকে লাগলে ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি হয়।এই এসিড ছুড়লে মানুষের শরীর ঝলসে যায়।এছাড়া এসব এসিড দিয়ে বিস্ফোরক প্রস্তুত করা হয়,তা খারাপ কাজে ব্যবহার করা হলে কি হতে পারে তা আমাদের সবারই জানা।এছাড়া এসব দিয়ে কীটনাশক সহ পেইন্ট বানানো হয় যা ভুলবশত ভক্ষণ করলে দেহের ক্ষতিসাধন হয়।এছাড়া এসব এর বিস্ফোরক, জ্বলন্ত, বিষাক্ত, ক্ষয়কারী, এবং তেজস্ক্রিয়তার বৈশিষ্ট্য আছে।এরা বিস্ফোরক পদার্থ  যেমন একটি কঠিন বা তরল পদার্থ, যা রাসায়নিক বিক্রিয়াগুলির মাধ্যমে গ্যাস উৎপন্ন করতে পারে, এবং তাপমাত্রা, চাপ এবং গতির পার্শ্ববর্তী পরিবেশ ক্ষতি করতে পারে।এটি ফসলের জন্যও অনেক ক্ষতিকর।

। 
উত্তর বা মন্তব্য প্রদান করতে দয়া করে লগইন কিংবা নিবন্ধন করুন।

সাম্প্রতিক প্রশ্নসমূহ