ম্যালওয়্যারগুলো সম্পর্কে জানান প্লিজ.....?

নিচের ম্যালওয়্যারগুলো সম্পর্কে আলাদাভাবে জানান...

  • রুটকিটস 
  • কিলগার 
  • ডায়ালার 
  • স্পাইওয়্যার
  • এডওয়্যার 

উপরের উল্লেখিত ম্যালওয়্যারগুলোর সংজ্ঞা ও কিভাবে ম্যালওয়্যারগুলো সংক্রমিত হয় তা কয়েকলাইন (4-5) লাইন করে জানান।সবগুলো ম্যালওয়্যার সম্পর্কে আলাদাভাবে জানাবেন।

উত্তর বা মন্তব্য প্রদান করতে দয়া করে লগইন কিংবা নিবন্ধন করুন।

1 টি উত্তর

১.রুটকিটস হল একটি পিসির গভীরে লুকানো এক ধরণের কম্পিউটার সফ্টওয়্যার যা শনাক্ত করা যায় না। যেভাবে সংক্রমিত হয়ঃএই ক্ষতিকারক সফ্টওয়্যার ব্যবহার করে হ্যাকাররা ইউজারের কম্পিউটারের ‘রুট’ অ্যাক্সেস নিয়ে নিতে পারে । এই ধরনের ভাইরাস নেটওয়ার্ক কার্ডের মতো কম্পিউটার সিস্টেমের হার্ডওয়্যারে লুকিয়ে থাকে।কোনো ডিভাইস আগে থেকে সংক্রমিত ফাইল বা ড্রাইভ শেয়ারের মাধ্যমে রুটকিটের শিকার হতে পারে। এটি নতুন কেনা কম্পিউটারে আগে থেকেই ইনস্টল করা থাকতে পারে। এছাড়াও, যখন আপনি কোনও সফটওয়্যার ডাউনলোড করেন, উৎসটি বিশ্বস্ত না হলে রুটকিট আপনার সিস্টেমে প্রবেশ করতে পারে। ২.কিলগার এর কি অর্থ হচ্ছে বাটন এবং লগ হচ্ছে রেকর্ডকৃত ডাটা। আর লগার হচ্ছে যা আপনার ডাটা রেকর্ড করে। তাই কিলগারের অর্থ দাড়ায় বাটনের রেকর্ডকৃত ডাটা।  কিলগার হচ্ছে আপনার ডিভাইসের কি গুলোর লগ ফাইল এবং আপনার ইনপুট করা ডাটার লগ ফাইল রেকর্ড করে কোন একটি নির্দিষ্ট স্থানে জমা করা যেভাবে সংক্রমিত করেঃএর মাধ্যমে ভিকটিমের ডিভাইসের সকল ডাটা কিলগারের মালিকের কাছে চলে যায়। ফলে সেই ভিকটিমের ডিভাইসের সকল লগিন আইডি, পাসওয়ার্ড সহ প্রায় সকল ডাটাই কিলগারের মালিকের কাছে চলে আসে। এর মাধ্যমে একজনের সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করা সম্ভব। ৩.ডায়ালার হল একটি  সফ্টওয়্যার যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটি টেলিফোন নম্বর ডায়াল করতে ডিজাইন করা হয়। যেভাবে সংক্রমিত করেঃঅটোমেটেড ডায়ালার নাম এবং টেলিফোন নম্বর সংরক্ষণ করতে পারে এবং ব্যবহারকারীকে সহজেই ফোন নম্বরগুলি মনে না করে বা কলার আইডি দ্বারা ট্র্যাক করা ব্যক্তিদের সাথে যোগাযোগ করতে সক্ষম করে।বেশিরভাগ স্বয়ংক্রিয় ডায়ালার অন্যান্য ডেটাবেস থেকে যোগাযোগের তথ্য পুনরুদ্ধার করবে, যেমন Microsoft Outlook পরিচিতি তালিকা। ৪.টার্গেট অনলাইনে যা কিছুই করে তা মনিটর জন্য যেসব ম্যালওয়্যার ব্যবহৃত হয় তাদের বলা হয় স্পাইওয়্যার। যেভাবে সংক্রমিত করেঃমূলত টার্গেট কোন কোন ওয়েবসাইট ব্রাউজ করেন, বিভিন্ন ওয়েবসাইটে তাঁর উল্লেখ করা তথ্য থেকে নাম, ঠিকানা, ফোন নম্বর ও কার্ডের তথ্য হাতিয়ে নেয়। ৫.এডওয়্যার হলো একঝাঁক অ্যাপ্লিকেশন অথবা সফটওয়্যারের সমষ্টি যেটা আপনার অজান্তে আপনার কম্পিউটারে চলে আসবে। সাধারনত ডাউনলোড করার সময় আমাদের মনের অজান্তে কিংবা চোখের ত্রুটির কারনে একটা ডাউনলোডের পরিবর্তে অন্যটা ডাউনলোড করে ফেলি। এর কারন অনেক সময় দেখা যায় এডওয়্যার ডাউনলোডের জন্য আগে থেকেই এডওয়্যার ডাউনলোড বাটন চেক করা থাকে। এবং উক্ত ডাউনলোড পেইজে একের অধিক ডাউনলোড বাটন থাকে। আপনি মনের ভুলে কোন একটা ক্লিক করে ফেললেই আপনার পিসিতে এডওয়্যার ডাউনলোড হওয়া শুরু করবে।
উত্তর বা মন্তব্য প্রদান করতে দয়া করে লগইন কিংবা নিবন্ধন করুন।

সাম্প্রতিক প্রশ্নসমূহ