ব্রণ নিয়ে সমস্যা?? পিকচার টা দেখেন আর প্রশ্নটা পরে উওর দেন? গত ১.৫বছর আগেও আমার মুখ এমদম ক্লিন ছিল, কিন্ত গত এক থেকে দের বছরে ১টা ২টা করে ব্রণ ওঠত, আবার মিশে যেতো তাই আমি এটাকে গুরত্ব দিতাম না, কিন্ত এখন দেখছি মুখে অনেক ক্ষত ও কিছু কালো দাগ পরেছে,, এখনো আগের মতে ১টা ২টা করে ব্রণ ওঠছেই? এখন মুখতা দেখতে অনেক কালো আর ব্রণ এর দাগ হয়েছে। এখন আমার প্রশ্ন হচ্ছে? আমাকে কিছু উপায় বলেন, হোক সেটা ফেসওয়াস, ক্রিম কিংবা হোক সেটা প্রাকিতিক উপায়, যা থেকে আমি কালো মুখ, আর ব্রনের দাগ থেকে মুক্তি পেতে পারি?? ব্রি:দ্র: আমি আগে কোনো ক্রিম বা এ জাতীয় কিছু ব্যাবহার করি নি ।
বিভাগ: 

6 টি উত্তর

আপনি ফোনা প্লাস জেল ব্যবহার করতে পারেন,আশা করি আপনার ব্রণ আর মুখের দাগ গুলো চলে যাবে,আমি ও এটা ব্যবহার করেছি,
ব্রণ দূর করার জন্য কিংবা ব্রণ কমানোর জন্য আপনাকে ফেইস ক্লিন রাখতে হবে,সেজন্য আপনি ভাল মানের ফেসওয়াশ ব্যবহার করুন। ফেসওয়াশ দিয়ে প্রতিদিন ২/৩ বার করে মুখ পরিষ্কার করবেন,বাইরে থেকে এসে মুখ ক্লিন করবেন।যদি তারপরেও ব্রণ হতে থাকে তাহলে এলোভেরা এবং মধু একত্রে মিশিয়ে দিনে ২বার ব্যবহার করুন। খুব ভাল ফল পাবেন। মুখে বরফ থেরাপি করুন। এছাড়া নিম পাতা, পানি,টক দই একত্রে পেস্ট করে মুখে লাগাবেন। নখ লাগাবেন না এবং কারোর পরামর্শে কোনোপ্রকার ক্রিম ব্যবহার করবেন না। যেহেতু আপনার স্কিন অয়েলি,আপনি oxy এর ফেইসওয়াশ ব্যবহার করতে পারেন। যদি একান্তই ক্রিম ব্যবহার করতে চান তাহলে skin clinic ক্রিমটি প্রতিরাতে লাগিয়ে ঘুমাবেন এবং সকালে ধুয়ে ফেলবেন।এটা বেস্ট কাজ করে ব্রণ ও দাগ দূর করতে। আপনি নরমাল ফেস প্যাক ইউজ করতে পারেন।
  1. আপনি ভালোমানের ফেসোওয়াশ ব্যবহার করুন।
  2. নিয়মিত ৩ বার ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করুন। 
  3. ত্বকে রাত্রে ঘুমানোর পূর্বে মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে ত্বকে লাগাতে পারেন৷ 
  4. রাত্রে ঘুমানোর পূর্বে হালকা বরফ ত্বকে ঘষতে পারেন। 
  5. ত্বকে ১০-১৫ মিনিট শশা ঘষতে পারেন। আশা করি এতে ত্বকের দাগ দূর হবে। 
ব্রন থেকে দূর করতে নিচের টিপস গুলো অনুসরন করুতে পারেন: ☆বেশি পরিমাণে নিরামিষ খাবার খান। আমিষ খাবার যতটা সম্ভব না খাওয়ার চেষ্টা করুন।  ☆খুব বেশি পরিমাণে পানি খান। তা আপনার স্বাস্থ্য এবং ত্বকের ক্ষেত্রে ফলদায়ক হবে।  ☆চা পাঁচটা নিমপাতা ভালো করে ধুয়ে এর মধ্যে এক চামচ মূলতানি মাটি, অল্প গোলাপ জল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। মুখে লাগিয়ে বেশ কিছুক্ষণ রেখে দিন। ☆টমেটো পেস্ট,মধু একসাথে মিশিয়ে মুখে লাগান। ☆অ্যালোভেরা জেল,মধু একসাথে মিশিয়ে মুখে ম্যাসাজ করুন।  ☆শশা পেস্ট করে মুখে কিংবা দই ম্যাসাজ করুন।  ☆পেঁপে পেস্ট ও মধু মিশিয়ে মুখে লাগান। ☆দিনে দুইবার কিংবা তিনবার ফেসওয়াস ব্যবহার করুন।হিমালয়া নিম ফেসওয়াসটি ব্যবহার করতে পারেন।   উপরোক্ত নিয়মগুলো ফলো করতে পারেন।কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায়, প্রাকৃতিক উপায় দিয়েও ব্রণ কমানো কিংবা দূর করা যায় না।এক্ষেত্রে আপনি অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন।

সমপরিমাণ বাটা কাঁচা হলুদ এবং চন্দন কাঠের গুঁড়ো একত্রে নিয়ে এতে পরিমাণ মত পানি মিশিয়ে পেষ্ট তৈরি করতে হবে। মিশ্রণটি এরপর ব্রণ আক্রান্ত জায়গায় লাগিয়ে রেখে কিছুক্ষণ পর শুকিয়ে গেলে মুখ ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

আবার, নিভিয়া ম্যান ডার্ক স্পটরিডাকশন ফেসওয়াশ ব্যবহার করতে পারেন।
আপনি ফ্রেশ লুক জেলটি ব্যাবহার করুন আশা করি উপকৃত হবেন।

সাম্প্রতিক প্রশ্নসমূহ