Share

6 টি উত্তর

কোনোপ্রকার ক্রিম ব্যবহারেই আপনি ফর্সা হতে পারবেন না। কিছু কিছু পাকিস্তানী ক্রিম আছে যেগুলি ব্যবহারে আপনি খুব দ্রুত ফর্সা তো হবেন কিন্তু পরবর্তিতে আপনার স্কিন ড্যামেজ এমনকি স্কিন ক্যান্সার হতে পারে। কাজেই এইসব প্রোডাক্ট ব্যবহার থেকে দূরে থাকুন এবং প্রাকৃতিক উপায়ে ফর্সা হওয়ার চেষ্টা করুন। তবুও যদি স্কিন ব্রাইট করতে চান তাহলে পন্ডস পিওর হোয়াইট ফেসওয়াশটি এবং  Lakme Absolute Perfect Radiance Skin ক্রিমটি ব্যবহার করতে পারেন।
গার্নিয়ার ন্যাচারাল হোয়াইট কমপ্লিট মাল্টি একশান ফেয়ারনেস ক্রিম এস পি এফ ১৭ ব্যবহার করতে পারেন। ত্বক ফর্সা করার জন্য এর মধ্যে আছে একটি অতি উত্তম এজেন্ট যা ভিটামিন সি এর তুলনায় ১০ গুন বেশী শক্তিশালী। ভিটামিন সি কে বলা হয় ত্বক ফর্সাকারী এজেন্ট। এটি ত্বককে ইউভিএ / ইউভিবি রশ্মি থেকে রক্ষা করে এবং দুই সপ্তাহের মধ্যে ত্বকের রঙ ফর্সা করে তোলে। গারনিয়ার ফেয়ার নেস ক্রিমের মূল্য – ১৮ গ্রামের দাম ১৮০- ২২০ টাকা ।


ফর্সা হওয়ার জন্য কোন ক্রিম ব্যবহার করা ঠিক হবে না।এগুলোতে নানা ক্যামিক্যাল থাকে যা পরবর্তীতে মুখের অনেক সমস্যা করে যেমন:স্কিন ক্যানসার,মুখে বিচি ও ব্রণ ওঠা,মুখ নষ্ট হয়ে যাওয়া ইত্যাদি।তাই ফর্সা হওয়ার জন্য ক্রিম ব্যবহার করা ঠিক হবে না।এতে হিতের বিপরীত হতে পারে।এসব ক্রিম ব্যবহার করে ঝুঁকি নেওয়া তো ঠিক হবেনা।

মুখ গ্লো করতে আপনি বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদান মুখে ব্যবহার করুন।যেমন:অ্যালোভেরা,টমেটো,শশা,মধু ইত্যাদি।অনেক উপকার হবে।

তাছাড়া আপনি একটি ভালো মানের ফেসওয়াস ব্যবহার করুন।হিমালয়া নিম  ফেসওয়াস  ব্যবহার করতে পারেন।


আপনি himalaya herbals purify neem face wash টি ব্যবহার করতে পারেন।
আমার মতে কোনোটিই নয় কেননা ক্যামিকেল দিয়ে তা তৈরী করা হয়। সত্যি কথা বলতে সদি ফর্সা হয়েও যান (অথবা নাও হন) আপনার ক্যানসার হওয়ার চান্স আছে।

Vaseline Men Face Whitening + Antispot Face Cream (ভেজলিন ম্যান ফেস হোয়াইটেনিং + অ্যান্টি স্পট ফেস ক্রীম) : এটি ভেজলিনের একটি জনপ্রিয় পণ্য। এই ক্রীমটিও ইউনিলিভারের একটি পণ্য। এতে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, এসপিএফ ১৫ এবং ভিটামিন বি ৩ যা শুধু আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতাই বাড়ায় না সাথে সাথে সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকেও সুরক্ষা দেয়।

আপনি ভালমানের ফেসওয়াস ব্যবহার করুন।যেমন: SLC/GM-60/Garnier Facewash ব্যবহার করুন।

সাম্প্রতিক প্রশ্নসমূহ