অরিজিনাল উত্তর-বিশিষ্ট প্রশ্নসমূহ

MX Player Pro এখান থেকে ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন।

আমি মেয়ে বয়স ২৬,একটা কারনে নিতম্বে ইনজেকশন দেবার দরকার,মহিলা ডাক্তার রোগ দেখে বলছে নিতম্বে ইনজেকশন দিতে হবে,ডাক্তার আমার থেকে একটু বড়,আমি তার চেম্বারে গিয়েছি,আমি টাইট লেঙ্গিস পরতাম ,সেদিন সেটা পরেই গিয়ে বলছি ম্যডাম এরপরে দেন,ম্যডাম হেসে বলছে এই লজ্জা পাবে না,এখানে কেও ঢুকবে না,পুরুষ ডাক্তার না,আমি তো মেয়ে ডাক্তার।এরপর উপুড় হয়ে শোবার পর,লেঙ্গিস টেনে খুলে ,প্যন্টিও খুলে ফেলল।এরপর খুব নরমাল্ভাবে ইনজেকশন দিল।

এটা এখন হবার চাঞ্চ কম,কারন এখন বেশিরভাগ মেয়ের বিয়ে হয় ২৩,২৫ বছরে।খুব অল্প বয়সে বিয়ে হলেও ২০।আর ২০বছরে বিয়ে হলেও বর ২৭,২৮ থাকে।কিন্ত আগে হত কি ১২বছরের মেয়ের সাথে বিয়ে হত ৩৭বছরের ছেলের।

দ্রুত কোনটা শেখা যায়,এটা বলা কঠিন।ওয়েব ডেভলপমেন্ট শিখতে হলে আপনাকে প্রোগার্মিং শিখতে হবে।ওয়েব ডেভলপমেন্ট ৩ধরনের,ফ্রন্ট এন্ড,ব্যকএন্ড,ফুলস্ট্যক,ফুলস্ট্যক মানে অলরাউন্ডার ,যে ফ্রন্ট এন্ড,ব্যকএন্ড দুইটাই পারে।ওয়েব ডিজাইন ফ্রন্ট এন্ড ডেভলপের অংশ।এটা প্রতিদিন ৩,৪ঘন্টা সময় দিলে এভারেজ এক,থেকে দেড় বছর লাগবে,এরপর কাজ করতে করতে প্রতিনিয়ত শিখতে হবে।ওয়েব ডেভলপার হিসেবে ফ্রিলান্সিং,ফিক্সড জব এর মাধ্যম সহ আরো অনেকভাবে ক্যরিয়ার করার সুযোগ আছে।আর ওয়েব ডেভলপ,ওয়েব ডিজাইন এর টিউটোরিয়াল ইউটিউবে অনেক আছে,কিন্ত ইউটিউবে অনেক ভিডিও এর ভিতর সেখানে প্রপার মনোযোগ দিয়ে শেখা খুব চ্যলেঞ্জিং,বেসিক একটা ধারনা পেতে পারেন।প্রতিষ্টানভেদে ১০,৫হাজার কোর্স ফি হয়।এরপর ডিজিটাল মার্কেটিং এর সব শিখতে গেলে সেটাও বেশ সময় লাগে,তবে হ্য শুরুতে ডিজিটাল মার্কেটিং এর পার্ট ফেসবুক মার্কেটিং,গুগল এড এসব শিখতে একটু কম সময় লাগে,তবে প্রতিনিয়ত আপডেট থাকতে হয়।তবে কোনটাই ইনকাম গ্যরান্টি নেই,প্রচুর প্রতিযোগিতা,আর ডিজিটাল মার্কেটিং এর এফেলিয়েট এর ক্ষেত্রে ফ্রিলান্সিং এর প্রতিযোগিতা না,সেখানে আরেকধরনের প্রতিযোগিতা।তবে সেখানে বাজেট থাকতে হবে।

আমার আব্বু ,আম্মু দুজনেই চাকরি করত।আব্বু দূরে চাকরি করত,প্রতি মাসে একবার আসত।আমরা একান্নবর্তি ফ্যমিলি।আমরা অনেক ধনী ফ্যমিলি,৪তলা বাড়ি নিচে দাদা,দাদি,দোতলা,তিনতলাতে আব্বুর বড় ভাই,ভাবি থাকত,তাদের ছেলে মেয়ে,থাকত,৪তলাতে আমার দুই ফুপু একরুমে থাকত,আরেক রুমে আমি ও আম্মু থাকতাম।শীতের সময় আম্মু আমাকে শক্ত করে জড়িয়ে ঘুমাত,তখন বয়স ১২,সেদিন ঘুম ঘুম চোখে দেখলাম আম্মু উঠল ,এরপর আম্মু সালোয়ার খুলে লেপের ভিতর এসে আমাকে জড়িয়ে ধরল,এরপর ঘুম ঘুম চোখে মনে হল আমার নুনু নরম একটা যায়গাতে ঢুকছে।আর সেটা ভেজা আর ঠান্ডা,পরে বুঝেছিলাম আম্মু ইচ্ছা করে তার নরম অংশে আমার নুনু লাগাত।

শতভাগ নিশ্চিন্তে থাকুন ডায়াবেটিস হয়নি। সাধারণ খালি পেটে যদি ৪-৫ এর মধ্যেও থাকে তাহলেও সেটাকে স্বাভাবিক ধরা হয় এবং ভরা পেটে ৪-৭ পর্যন্ত স্বাভাবিক বলা যায়। আপনি চায়লে ডায়াবেটিসের ছয় মাসের এভারেজ মাপাতে পারেন। তবে যদি ডায়াবেটিসের লক্ষণ না থাকে তাহলে মাপানোর প্রয়োজন নাই। 

আপনি আবার টেষ্ট করে দেখুন। মাঝে মাঝে টেষ্টে ভুল রেজাল্ট আসতে পারে৷ ( যদিও এটা হয় না বললেই চলে) এর পরও যদি রেজাল্ট পজিটিভ আসে এবং আপনি যদি বিবাহিত হয়ে থাকেন তাহলে আল্লাহর নাম নিয়ে বাচ্চাটা নিয়েই ফেলুন। 

No problems. It's safe.

Spoken language

 আমার এলাকাতে ৮৯টি মহিলা কে চিনি যারা নিজের জন্ম দেয়া ছেলের সাথে সেক্স করেছে।

একবার রাজনিতিক কারনে পুলিশ এরেস্ট করছিল,৩দিন রিমান্ড চাইছিল।আমার বয়স ২৫,কলেজে ছাত্রি তখন।২মাস পরে বেইল পেয়েছিলাম,প্রথম দিন পরিচয় নিয়েছিল ,রাজনিতিতে আসার কারন,আর সেদিন পুরুষ ও লেডি কন্সটেবল দুইজন ছিল,আর বলেছিল আজ তোমাকে অপশন দিতেছি,আগামি কাল ৩জন পুরুষ পুলিশ সেক্স করবে,তাহলে ৭দিনে ছেড়ে দেব।আর না হলে লেডি পুলিশ দুইদিন রিমান্ড নেবে,২মাস পর বেইল পেয়ে যাবে।আর কি ঘটেছে ভুলেও বলবে না,আমি সেক্স করাটা অপশন নেই নি,তবে মনে হয় নিলেই ভাল হত,কারন লেডি পুলিশরা যা করছিল,প্রথমে যাবার পর বলছে পায়জামা খোল,এরপর ৭জন লেডি পুলিশ সেক্স টয় লাগিয়ে করছিল,আমি বলছি লাগছে,বলছে তোর বয়ফ্রেন্ড যখন প্রথম করবে,তখন আর লাগবে না ,আমরা লুজ করে দিলাম।

প্রান ,ফ্রেশ,বসুন্ধরা , আকিজ, স্কয়ার

ইউনিক আইডি কার্ড কি, এর জন্য কি কি লাগবে, তা নিয়ে এখানে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

 বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রণীত জাতীয়তা সনদের মতো প্রত‍্যেক শিক্ষার্থীকে একটি ডিজিটাল কার্ড ( প্লাস্টিকের এটি এম/ স্মার্ট কার্ডের মতো ) দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রনালয়। শিক্ষার্থীদের জন্য নতুন একটি সার্ভার/ওয়েভসাইট হতে প্রাপ্ত অটোমেটিক একটি নম্বর(একাধিক নম্বর সংবলিত) বা পরিচয় আইডি। যা শিক্ষার্থীদের সমগ্র শিক্ষা জীবনে জাতীয়ভাবে একটি পরিচয় বহন করবে। যাহা পরবর্তিতে ভোটার তালিকায় (যারা ভোটার হয়নি) এসকল তথ্য সংযোজিত হবে।

 এটি আপাতত মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের যষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত।

এই আই ডি কার্ড টিতে ডিজিটাল ভাবে শিক্ষার্থীর যাবতীয় তথ‍্য পাওয়া যাবে।এই আই ডি কার্ড টির নাম ইউনিক আই ডি বা (UID) এই আইডিতে প্রত‍্যেক শিক্ষার্থীর জন‍্য আলাদা একটা রোল নম্বর থাকবে।
এই রোল নম্বরটি সারাজীবন প্রত‍্যেক ক্লাসে ব‍্যবহার করতে হবে এবং একই থাকবে ।
এখন থেকে ক্লাসে কোন রোল এক, দুই , তিন থাকবে না।
এটা হবে বিশাল বড় একটা রোল নম্বর যেটা মোবাইল নম্বরের মতো।

 এই কাজ টি করার জন‍্য চার পৃষ্ঠার একটা ফরম পূরণ করে অতি দ্রুত স্কুলে জমা দিতে হবে।
প্রত্যকে প্রতিষ্ঠানে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু হয়ে গেছে। তাই, প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র রেডি করে যত দ্রুত সম্ভব তথ্য ফরম নির্ভূলভাবে যাচাই করে জমা দিন।

 এখানে সমস্যা হতে পারে শুধু জন্মনিবন্ধন নিয়ে।
কারণ, যাদের হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন সনদ আছে বা ডিজিটাল (অনলাইন ভেরিফাইড) করা নেই। সেটি গ্রহণযোগ্য হবে না। অবশ্যই ডিজিটাল জন্ম সনদ লাগবে অর্থাৎ, অনলাইনে সার্চ দিলে পাওয়া যায় এমন জন্মনিবন্ধন (কম্পিউটার টাইপিং) করা থাকতে হবে।যাদের জন্মনিবন্ধন অনলাইন করা নাই। তারা শীঘ্রই করে নিবেন । লক্ষণীয় যে, অনলাইন জন্ম নিবন্ধন ১৭ ডিজিটের হয়, অনেকের জন্ম নিবন্ধন ১৭ ডিজিটের ঠিকই, কিন্তু অনলাইনে নেই, এমনটি হলে হবে না।
আর একটা কথা রাখতে হবে, ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড অবশ‍্যই সাদা হতে হবে।

প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র :
 শিক্ষার্থীদের ইউনিক আইডি প্রদানের জন্য প্রোফাইল ও ডাটাবেজ করতে নিম্নের ডকুমেন্ট দ্রুতসময়ে সংগ্রহে রাখতে হবে।অবহেলা করলে সমস্যা হবে।

 ১.দুই কপি রঙ্গিন পাসপোর্ট সাইজ এর ছবি সাদা ব্যাকগ্রাউন্ড দুই চোখ,দুই,কান দেখা যায় এমন স্পষ্ট ছবি।
 ২.শিক্ষার্থীর অনলাইন জন্ম সনদ (হাতে লেখা হবে না)অনলাইন

OTG মোবাইলের হার্ডওয়ার সাথে সম্পর্ক যদি দেয়া না থাকে তা কখনো সাপোর্ট করানো যাবে না।।। 

সরকারি ভাবে wifi কেবল সরকারি দফতর গুলোতেই দেয়া হয়।

স্বপ্নদোষ নিয়ে কোনো উদ্বেগের কারণ নেই।মাসে ৬/৭ বার স্বপ্নদোষ হলেও সমস্যা নেই। তবে এর বেশি স্বপ্নদোষ হলে, তবে অবশ্যই  ডাক্তারের শরণাপন্ন হবেন।

মোটা হতে হলে আপনাকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।এক্ষেত্রে বেশ কিছু করণীয় নিম্নে দেয়া হলঃ

  • নিয়মিত খাবার খাওয়া
  • পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ খাবার বেশি খাওয়া
  • পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি গ্রহণ 
  • নিয়মিত শরীরচর্চা করা
  • নির্দিষ্ট সময়ে পর্যাপ্ত ঘুম
  • হস্তমৈথুনের মতো বাজে অভ্যাস ত্যাগ করা

জোড়ে চাপ দিলে ব্যথা করবে এটাই স্বাভাবিক। স্তন বড় হলে ব্যথা করবে এমন ভাবার কোনো কারণ নেই।

হ্যাঁ,  এটা একটা সমস্যা, হয়তো কোন প্রকার সমস্যা আছে, আপনি একজন যৌন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দেখান, সুফল পাবেন।

আপনি হয়তো খুব বেশি হস্তমৈথুন করেছেন আগে তার জন্য আপনার আন্ডাকোষ ঝুলে গেছে।তার জন্য উত্তম সমাধান হলো আপনি প্রথমে হস্তমৈথুন সম্পুর্ন বাদ দিতে হবে।এজন্য আপনাকে কম্প্রোমাইজ করতে হবে নিজের মনের সাথে।আর কিছু পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে নিয়মিত। পর্ণ ভিডিও দেখা বন্ধ করতে হবে।পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়তে হবে।তাহলে দেখবেন আপনার সমস্যা আস্তে আস্তে সমাধান হয়ে যাচ্ছ।

valo hobe. tobe ata akhon old model hoye geche.

জ্বি ভালো হবে।প্রসেসর পাওয়ার বেশি।

ধন্যবাদ।

১৯ হাজার টাকায় এই ফোন (৪/৬৪) না নিয়ে samsung m21/m12,  Oppo A53, poco m2 এইসব নিতে পারেন।

তাছাড়া note 8 ওল্ড মডেলের একটি মোবাইল। Samsung m12 নিতে পারেন- Android 11 ভার্সন।

উৎসব

Rural Fruit Valley

না। বাংলাদেশে আমার জানা মতে এটা সম্ভব না।   

আপনি    একজন মুসলমান আপনি  একটি হিন্দু সম্প্রদায়ের মেয়ে কে বিয়ে করতে চান  এর জন্য সেই হিন্দু সম্প্রদায়ের মেয়ে কে মুসলমান  ধর্ম গ্রহন করিয়ে বিয়ে করতে পারেন  ,  তবে  সেই মেয়েহি যদি   ইসলাম গ্রহনে রাজি থাকে । 

 বীর্যপাত না হলে প্রেগন্যান্ট হবার সম্ভাবনা নাই

ফোন লক করতে অ্যাপ লাগবেনা। settings > lock screen । 

সেখানে আপনি অনেক টাইপ এর লক পাবেন।

1,436,873

প্রশ্ন

1,607,314

উত্তর

480,944

ব্যবহারকারী