অরিজিনাল উত্তর-বিশিষ্ট প্রশ্নসমূহ

 আপনি সাধারণ জ্ঞানে বই পড়তে পারেন মাসিক পত্রিকা পড়তে পারেন

 মাথায় কোন রোগ আছে কিনা তা নির্ণয় করার জন্য সিটি স্ক্যান করা হয়

৪ জানুয়ারি ১৯৪৮৷  

আল-আদিয়াত এর বাংলা অর্থ হল অভিযানকারী।

বিন অর্থ ছেলে।

সিফাত আরবী শব্দ যার অর্থ গুন, গুণাবলী।

বাপের নাম যদি সিফাত হয় তাহলে ছেলের নাম আল আদিয়াত বিন সিফাত রাখতে পারবে। বিন অর্থ ছেলে অর্থাৎ সিফাতের ছেলে আল আদিয়াত।

এটার কোন সমাধান নেই।

বিসর্গ (ঃ) একটি বাংলা বর্ণ; এটি কোনো চিহ্ন নয়। বর্ণ হিসেবে এর সঠিক ব্যবহার করতে হবে। চিহ্ন হিসেবে ব্যবহার করা ঠিক নয়।

বিসর্গ পদমধ্যস্থে ব্যবহার হবে। যেমন: অতঃপর, দুঃখ, অন্তঃস্থল, স্বতঃস্ফ‍ূর্ত, নিঃসঙ্গ, নিঃশেষ, পুনঃপ্রকাশ, পুনঃপরীক্ষা, পুনঃপ্রবেশ, পুনঃপ্রতিষ্ঠা ইত্যাদি।

আবার অর্ধ শব্দকে পূর্ণতা দানে বিসর্গ ব্যবহার করা যেতে পারে। যেমন: মোঃ, মোসাঃ, ডাঃ ইত্যাদি।

মুল কথা হলোঃ বিসর্গ লেখা লিখতে হলে আগে একটি বর্ণ লিখতে হবে এরপর কোন স্পেস ছাড়া লিখলেই আর সামনে গোল চিহ্ন আসবে না।


আপনার ফেসবুকে বিভিন্ন রকমের অশ্লীল ভিডিও আসার কারণ হলো-

আপনি হয়তো সেই গ্রুপের সাথে যুক্ত আছে,, তাই গ্রুপগুলো আনফলো করে দিতে হবে। 

ফেসবুকের আরেকটা সিস্টেম হল আপনি যে ভিডিওটা সার্চ করবেন পরবর্তীতে ওই রিলেটেড ভিডিও আপনার কাছে আসতে থাকবে।

# ধন্যবাদ

আপনি যখন আপনার স্ত্রীকে নেওয়ার জন্য আইনি পদ্ধতি নিবেন তখন আর আপনাকে কোন কিছু করা লাগবে না। আইন সব কিছু করবে, হয় ওনি ডিভোর্স নিতে বাদ্ধ হবে নয়তো আপনার সংসারে চলে আসবে।

পরামর্শ :-তবে একটা কথা কি ভাই, কোন মেয়েকে বিবাহ করার পর তাকে এমন ভাবে তৈরি করে নেওয়া উচিৎ যাতে একটা দিন তো দুরের কথা একটা সেকেন্ড সে আপনাকে ছেড়ে থাকতে পারবে না, এর জন্য আপনাদের মাঝে থাকতে হবে,অনেক ভালোবাসা,সম্মান,একে অপরের আদর,একটু ফাজলামি,ও শ্রদ্ধা,। ভাই স্বামী স্ত্রীদের মাঝে থাকতে হবে সকল প্রকার ভালোবাসা,যা  বাবা মেয়ের মত,ভাই বোনের মত, বন্ধু বান্ধুবির মত,খেলার সাথির মত ইত্যাদি, এবং নিজেদের মধ্যে  থাকবে ধর্মীয় আচার আচর ও নীতিমালা ও কোর- আন হাদিসের ফরজ ও সুন্নাহ গুলো। তাহলেই প্রতিটি সংসার হবে মধুময় ও সোনার সংসার । সুতারাং স্ত্রী যতই অন্য রকম হোক না কেন তাকে নিজের মত করে তুলতে হলে আগে নিজেকে সব দিক থেকে বেস্ট হতে হবে।আসা করি বুঝতে পারছেন।

ভাই আপনি যদি আপনার স্ত্রীকে রাখতে চান বা তাকে নিয়েই সংসার করতে চান এবং এখন সে যদি আপনার বাসা না আসে বা আপনাকে তালাক না দেয় সেক্ষেত্রে এক কাজ করতে পারেন।একজন উকিলের সাহায্য নিন এবং আপনার স্ত্রী কে নেওয়ার জন্য দাবি জানিয়ে নোটিশ পাঠান আপনার শশুর বাড়িতে তাহলে পরবর্তীতে ওরা যেকোন মামলা করুক না কেন ওই উকিল আপনার কাজে লাগবে। এছাড়াও আপনার মুরুব্বি গন ও আপনার শশুর বাসার মুরুব্বিগন দের নিয়ে বৈঠক বসান এবং আলোচনার মাধ্যমেই একটা সিদ্ধান্ত নিন।

ধন্যবাদ প্রশ্ন করার জন্য। মাথা →ঝিম ধরে,চক্কর দেয়/ঝাঁকুনি দেয় এসব সমস্যা শারীরিক দুর্বলতার কারনে হয়ে থাকে,যা ভিটামিন ও ক্যালসিয়াম এর ঘাটতির কারন হতে পারে। এছাড়াও রক্তশূন্যতা কারনেও এরকম দুর্বলতা লাগতে পারে।তবে আপনার উচিৎ হবে একজন চিকিৎসক এর পরামর্শ নেওয়া,এবং আপনার বিপি চেক করুন। আর হ্যা পুষ্টিকর খাবার খাবেন, প্রতিদিন দুপুরে সিদ্ধডিম খাবেন,দুধ খাবেন। প্রতিদিন নিয়মিতভাবে কাচা ছোলা ও কাচা বাদাম খাওয়ার অভ্যাস করে তুলুন।আর হ্যা খারাপ অভ্যাস,বদ অভ্যাস,নেশা করা, এলকোহল এসব থেকে বিরত থাকবেন। ধন্যবাদ। 

আপনি সাইটোমিস ট্যাবলেট  কয়টি ও  কিভাবে খেয়েছেন তা বলেন নি। তাই আমরা এখান থেকে আপনাকে কোন রকম হেল্প করতে পারতেছিনা। আপনি একজন গাইনি ডাক্তারের কাছে যান। আর হ্যা আপনার তলেপেটে ব্যথা, ক্লান্তি ভাব এসব পিলের সাইট ইফেক্ট এর জন্য হচ্ছে। 

আপনার সমস্যাটি বদহজম বা পেটেফাঁপা সংক্রন্ত সমস্যা হলে হয়ে থাকে। আপনার এই সমস্যা দ্রুত দূর করতে আদার জুড়ি নেই। আর বদহজম দূর হয়ে গেলে আপনাআপনিই পেটে ফাঁপার সমস্যা কমে যায়। প্রতিদিন খাবার পর এক টুকরা আদা চিবিয়ে খেলে পেটে আর গ্যাসের সম্যসা করবে না। আর পেট ফাঁপলে আদা কুচি করে সামান্য লবণ মাখিয়ে খেয়ে নিতে পারেন অথবা আদা ছেঁচে লবণ দিয়ে আদার রস পান করে নিতে পারেন। এছাড়াও আদা চা তৈরি করে পান করুন সকাল বিকাল। এতে করে পেট ফাঁপা অনেকটা উপশম হয়ে যাবে। তাছাড়া অতি প্রয়োজনে একজন চিকিৎসক এর কাছে শরণাপন্ন হোন।ধন্যবাদ। 

এক্ষেত্রে প্রেগনেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা নাই।

না। প্রেগন্যান্সি সম্ভাবনা থাকবে না। কেনো না উক্ত ইমার্জেন্সি পিল হলো ৭২ ঘন্টা মেয়াদির যা মিলনের ৭২ ঘন্টার মধ্যে সেবন করলে প্রেগন্যান্সি রোধে সম্ভব হয়।সুতারাং আপনার ক্ষেত্রে প্রেগন্যান্সি সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।তবে এই পিলের কারনে পরবর্তীতে মাসিকে ঝামেলা হয়, তলপেটে ব্যথা,মাথা ব্যথা,শরীর ক্লান্তি লাগতে পারে সেদিকে লক্ষ রাখবেন।প্রয়োজনে এসব অসহনীয় হলে চিকিৎসক এর কাছে সহায়তা নিবেন।ধন্যবাদ। 

এটা কোনো সমস্যা নয়, এটি সম্পূর্ণ স্বাভাবিক। তাই চিকিত্সার প্রয়োজন নেই।

অনিয়নিত পিরিয়ড এবং বাবু না হওয়া সমস্যার জন্য গাইনি ডাক্তারের পরামর্শ এবং প্রয়োজন পরীক্ষা নিরীক্ষা করে ঔষধ চালিয়ে যেতে হবে, অতিরিক্ত ওজন থাকলে কমাতে হবে। (বাবু না হওয়া জনিত সমস্যার জন্য স্ত্রীর প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরীক্ষার পাশাপাশি স্বামীকেও পরীক্ষা করতে হয়)


উল্লেখ্যঃ এছাড়াও স্বামী স্ত্রী কারোর ই সমস্যা নেই তবুও বাবু না হওয়ার মতো সমস্যার ভুক্তভোগী লাখ লাখ দম্পতি।

তলপেটে ব্যথা এবং প্রস্রাবে জ্বালাপোড়া Urinary tract infection এর লক্ষন। একজন ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী প্রস্রাব পরীক্ষা করতে হবে।

হ্যা,সমস্যা হবে,ফেসবুক সিকিউরিটি থেকে ওরা এটাকে spam একাউন্ট হিসেবে ধরে নিবে,এবং আইডি বন্ধ করে দিতে পারে,এবং লগইন করার সময়,পরবর্তীতে আইডি ভেরিফাই করতে বলতে পারে। 

ধন্যবাদ

আপনার হাসবেন্ড কে আপনার থেকে ভালো কখনোই কেউ চিনবে না। তাকে কী বলে উইশ করলে আপনার কথা গুলো তার মন ছুয়ে যাবে সেটা আপনার থেকে ভালো কেউ জানে না। আর কেউ ইংরেজিতে একটা উইশ লিখে দিলেও সেটা আপনার ভালো নাও লাগতে পারে কারণ আপনার মনের কথা সে উইশের ভিতরে না থাকাটা-ই স্বাভাবিক।

আপনি আপনার মনের কথা গুলো এই উত্তরের মন্তব্যে বাংলায় লিখে দিতে পারেন। সেক্ষেত্রে আমি সেটা ইংরেজিতে সঠিক ট্রান্সলেট করে দিবো ইনশাআল্লাহ

আপনি ms word এর যেকোন ডুকুমেন্ট খুব সহজেই প্রিন্ট করতে পারবেন এর জন্য নিম্নে বলা ধাপ গুলো দেখুন।

  • প্রথমে ms word ওপেন করবেন,এবং একটি পেইজ থাকবে।
  • এর পর পেইজ সেটাপ করবেন।
  • এর পর উক্ত পেইজে প্রয়োজনীয় তথ্য টাইপ বা কম্পোজ করবেন
  • এর পর উক্ত পেইজটিতে প্রয়োজনীয় তথ্য এড করার পর, এখন যদি মনে করেন উক্ত পেইজটি প্রিন্ট দিবো/বের করবো এর আগে যদি দেখতে চান যে প্রিন্ট কৃত পেইজটি কিরকম দেখাবে এর জন্য প্রিন্ট প্রিভিউ দেখতে চাইলে Ctrl + F2 প্রেস করবেন তাহলেই প্রিন্ট প্রিভিউ চলে আসবে সেখানে দেখতে পারবেন আপনার প্রিন্ট কৃত পেইজটি কিরকম দেখাবে। 
  • এর পর এটি ক্লোজ করতে আবার Ctrl + F2 প্রেস করবেন তাহলেই প্রিন্ট প্রিভিউ চলে যাবে ও পূর্বের ডুকুমেন্ট এ ফিরে আসবেন।
  • এর পর যদি মনে করেন যে পেইজটি প্রিন্ট দিবেন
  • তাহলে আপনি যে প্রিন্টারে প্রিন্ট দিবেন সেই প্রিন্টারের এর এপ্স  ইন্সটল  করবেন(যা প্রিন্ট ক্রয় করার সময় বিক্রেতা দিয়ে থাকে) এরপর সঠিকভাবে প্রিন্টার কম্পিউটারের সাথে কানেক্ট করবেন। এর পর Ctrl + P  প্রেস করবেন তাহলেই প্রিন্ট এর একটি বক্স চলে আসবে, সেখানে আপনি যে প্রিন্টারে প্রিন্ট দিবেন সেই প্রিন্টারের নাম সিলেক্ট দিবেন এর পর কয়টি পেইজ  প্রিন্ট দিবেন তা সিলেক্ট দিবেন এর পর অন্যান্য অপশন ঠিক থাকলে প্রিন্ট  এ ক্লিক দিবেন, তাহলেই আপনার প্রিন্টার টি কাজ করা শুরু করবে।
ভাই আপনি sm word, ms excel,ms Pawerpoint বা ফটোশপ বা যেকোন কিছু প্রিন্ট দিতে যান না কেনো যা একই নিয়মে দিতে পারবেন তবে ডুকুমেন্ট এর কাজ ভেদে প্রিন্ট এর আরো কিছু অপশনের দিকে খেয়াল রাখতে হয়। তবে এসব ব্যাপারে ভালো ভাবে শিক্ষা গ্রহনকরতে একজন কম্পিউটার অপেরাটর এর কাছ থেকে শিখে (প্রাক্টিক্যালি)  নিয়েন।আসা করি বুঝতে পারছেন। যতটুকু পারি আপনাকে হেল্প করেছি, কিছু না বুঝলে কমেন্ট করবেন। 

আপনি ms word এপ্স টি Passwart দিতে চান নাকি ms word এর ডুকুমেন্ট এ পাসওয়ার্ড দিতে চান তা বলেন নি।তবে আপনাকে কিভাবে ডুকুমেন্ট পাসওয়ার্ড দেওয়া যায় সেটি জানিয়ে দিচ্ছি পড়ে নিবেন।

আপনার ms word টি ওপেন করবেন বা আপনি আপনার লেখা যেকোন একটি ডুকুমেন্ট ওপেন করবেন এর পর

  • Review অপশনে যাবেন, Review অপশনের Ribbon bar এর ডান দিকে শেষ প্রান্তে দেখতে পারবেন Restrict Editing নামের একটি অপশন পাবেন সেখানে ক্লিক করবেন।
  • এর পর একটি ডায়লগ বক্স আসবে সেখানে ২ নং অপশনে থাকবে Editing Restrictions এর একটু (সাথে) নিচে টিক চিহ্ন ঘর থাকবে সেখানে টিক দিবেন , এবং সেখানে no change (read only) করে দিবেন।
  • এর পর একটু নিচে ৩ নং অপশনের নিচে দেখুন বা ঐ ডায়লোগ বক্সের সব শেষে দেখতে পারবেন Yes starting Enforcing protection এ ক্লিক দিবেন এর পর একটি ডায়লোগ বক্স আসবে সেখানে পাসওয়ার্ড চাইবে, সেখানে পাসওয়ার্ড দিয়ে আবার কনফার্ম পাসওয়ার্ড দিবেন এর পর ok দিয়েই উক্ত ডুকুমেন্ট টি Save করবেন।
  • এর পর চেক করে দেখুন উক্ত ডুকুমেন্ট এ প্রবেশ করতে পাসওয়ার্ড চায় কিনা। যদি পাসওয়ার্ড চায় তাহলে বুঝবেন আপনি এই কাজটি করতে সফল হয়েছেন।
আশা করি  বুঝতে পারছেন।কম্পিউটার এর যেকোন সমস্যা সমাধানের জন্য প্রশ্ন করুন আমাদের বিস্ময়ে। ধন্যবাদ। 

আপনার প্রশ্ন টি হল রসুনের উপকারিতা কি?

অন্যান্য শাকসবজির মত রসুনের রয়েছে অনেক উপকারিতা -  

১" এটি দ্বারা আপনার গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকলে গ্যাস্ট্রিক কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসবে। এবং ২" আপনার যদি কোন যৌন সমস্যা থাকে তাহলে এটি খুবই উপকারে আসবে আপনার জন্য। ৩" বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত যে রাতে ঘুমানোর আগে বালিশের নিচে এক কোয়া রসুন রেখে যদি ঘুমাতে পারেন, তাহলে এটি আপনার মস্তিষ্কের জন্য অনেক উপকারে আসবে। এবং আপনার ঘুম ভালো হবে। ৪" হজম শক্তি বৃদ্ধি ও কোষ্ঠকাঠিন্য রোগ হতে মুক্তি পাওয়া যায়। ৫" অতিরিক্ত রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।

#ধন্যবাদ

আপনার প্রথম প্রশ্ন হলো রসুন এর উপকারিতা কি আমি তিনটি উপকার তুলে ধরব- ১" এটি দ্বারা আপনার গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকলে গ্যাস্ট্রিক কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসবে। এবং ২" আপনার যদি কোন যৌন সমস্যা থাকে তাহলে এটি খুবই উপকারে আসবে আপনার জন্য। ৩" বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত যে রাতে ঘুমানোর আগে বালিশের নিচে এক কোয়া রসুন রেখে যদি ঘুমাতে পারেন, তাহলে এটি আপনার মস্তিষ্কের জন্য অনেক উপকারে আসবে। এবং আপনার ঘুম ভালো হবে। দ্বিতীয় প্রশ্ন হল অপকারিতা কি। 

এর যেমন উপকারিতা আছে তেমনি এর কিছু খারাপ দিক রয়েছে যেমন- একটি প্রবাদে আছে অতিরিক্ত কোন কিছুই ভাল নয়, তাই আপনার যতটুকু প্রয়োজন হবে পর্যাপ্ত পরিমাণে গ্রহণ করতে পারুন, যেমন সকালে দুই থেকে 4 কোয়া রসুন খেতে পারেন, এটি আপনার জন্য স্বাভাবিক। এর বেশি খেয়ে থাকলে আপনার শারীরিক সমস্যা হতে পারে# ধন্যবাদ

আপনি বললেন 12 বছরের মেয়েদের সাথে সেক্স করলে কি বাচ্চা হবে? কিন্তু ওনার মাসিক হয় নি?  দেখুন যদি মেয়েটির মাসিক চালু না হয় তাহলে সে বাচ্চা জন্মদান দিতে পারবে না। অর্থাৎ তার সাথে সহবাস করলে এবং যোনিতে বীর্য ফেললেও সে প্রেগন্যান্ট হবে না কারন ওনার মাসিক শুরু হয় নি। 

তবে এতো কম বয়সী মেয়ে মিলনের জন্য প্রস্তুত নয়। এতো কম বয়সে জোর করে মিলন করলে মেয়েটির স্বাস্থ্য ও যোনি সংক্রন্ত ক্ষতির সম্ভাবনা থাকে। তাছাড়া এটা ধর্মীয়, সামাজিক, ও মানবিকতা দিক থেকে অন্যায় সুতারাং এসব কাজ ছোট মেয়েদের সাথে করবেন না।ধন্যবাদ। 

হ্যা প্রেগন্যান্ট হতে পারে। কেনো না মিন্স শেষ হওয়ার পর সময়টি নিরাপদ নয়। কারন মিন্স শেষ হওয়ার ৪/৫ দিন পর অভুলেশন (ডিম্বপাত) হয় আর এ সময় মিলনে প্রেগন্যান্সি সম্ভাবনা অনেক অংশে বেশিই থাকে।তাইমিলনের ১২০ ঘন্টার মধ্যে ওনাকে ইমার্জেন্সি পিল খাওয়াতে পারেন আশা করি প্রেগন্যান্সি রোধ হবে।

ওনার মিন্স অনিয়মিতভাবে হতো কিনা জানান নি।বা ওনি ইমার্জেন্সি পিল খেয়েছিলো কিনা জানান নি।তবে এরকম অস্বাভাবিক মিন্সের রক্তপাত মুলত ইমার্জেন্সি পিল সেবনের ফলে হতে পারে বা অনিয়মিত মিন্স হওয়ার কারনে হবে কাজেই সঠিক তথ্য জানতে গাইনি ডাক্তারের সহায়তা নিন।

সহবাসের পর যদি আপনার অল্প অল্প ব্লেডিং যায় তাহলে বাচ্চা হওয়ার সম্ভাবনা নেই।কারন পেটে বাচ্চা আসলে মিন্স অফ থাকবে। যেহেতু আপনার অল্প অল্প মিন্সের ব্লেডিং হচ্ছে সেক্ষেত্রে আপনি প্রেগন্যান্ট নন।

না, প্রেগন্যান্ট হওয়ার পর অস্বাভাবিক ভাবে ব্লিডিং যাবে না। অর্থাৎ যদি আপনি প্রেগন্যান্ট হোন তাহলে আপনার মিন্স অফ থাকে ডেলিভারি না হওয়া পর্যন্ত।  যদি এখন আপনার অস্বাভাবিক ব্লিডিং যায় তাহলে আপনি প্রেগন্যান্ট নন। আর হ্যা আপনার মিন্স অনিয়মিত কিনা বলেন নি।তবে এর জন্য দ্রুত একজন গাইনি ডাক্তারের চিকিৎসা গ্রহন করুন।

অনেক ক্ষেত্রেই বাবু নষ্ট হয়ে যাওয়ার পর ভিতর থেকে পুরোপুরি ক্লিয়ার হয়না। সে ক্ষেত্রে পুনরায় ব্লিডিং জনিত সমস্যা হতে পারে। আপনি গাইনি ডাক্তারের পরামর্শ নিন। আপনার আট্রাসনোগ্রাফি করার প্রয়োজন আছে।

আপনি কি পদ্ধতি অবলম্বন করে বেবি নষ্ট করেছেন তা জানান নি তবে বেবি নষ্ট হওয়ার পরেও আবার অস্বাভাবিক ব্লিডিং হওয়ার কিছু কারন থাকে তাদের মধ্যে,পিল খাওয়ায়ে বেবি নষ্ট করলে পিলের সাইট ইফেক্ট এর কারনে অস্বাভাবিক রক্তক্ষরণ যেতে পারে, জরায়ুতে ভ্রনের কিছু অংশ থেকে গেলে অস্বাভাবিক রক্তপাত হতে পারে, এছাড়াও জরুয়ু ইনফেকশন এর  ফলেও হয়ে থাকে সুতারাং একজন গাইনি ডাক্তারের কাছে যান ও আল্ট্রা করুন,প্রয়োজনে  D&C করা লাগতে পারে। কাজেই দ্রুত গাইনি ডাক্তারের সাহায্য নিন।নিজে থেকে কোন ঔষধ খাবেন না বা গাইনি ডাক্তার ব্যতীত কারো পরামর্শে কোন কিছুই করতে যাবেন না। 

আপনি যদি সেক্স করার পর ইমার্জেন্সি পিল সেবন করে থাকেন তাহলে এই ব্লিডিং হওয়া স্বাভাবিক।  ইমার্জেন্সি পিল সেবন করলে মেন্স এর ডেট পরিবর্তন হয়। এবং নির্দিষ্ট ডেট এর আগে বা পরে মেন্স হতে পারে। তাই এখানে কন্সেপ্ট করার কোন সম্ভাবনা নেই। 

1,462,777

প্রশ্ন

1,602,664

উত্তর

213,833

ব্যবহারকারী