বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
2,414 জন দেখেছেন
"সাধারণ" বিভাগে করেছেন (6,513 পয়েন্ট)

3 উত্তর

+1 টি পছন্দ
করেছেন (581 পয়েন্ট)

বিতর্কিত বিষয় এটি। বিজ্ঞানধর্মী দৃষ্টি কোন থেকে বিচার করলে এর কোনো ব্যাখ্যা/ভিত্তি নেই। একে অনেকেই হাতের কারসাজি/চোখে ধাধা লাগানোর কলা-কৌশল বলে।

তবে একবার ডিস্কোভারি চ্যানেলে এই বিষয়ে একটা ডকুমেন্টারি দেখেছিলাম। ইন্ডিয়ার কোন এক অঞ্চলে নাকি এসবের চর্চা করা হয়,তাদের মতে পিচাশ দেবতার সন্তুষ্টি অর্জন করতে পারলে বিপুল ক্ষমতার অধিকারি হওয়া যায়।

ইসলাম ধর্মের মতে,মহান আল্লাহ তা'আলা বিভিন্ন সময় নবীদের মুজিযা/বিশেষ ক্ষমতা দিয়েছেন।তবে সেটা ব্ল্যাক ম্যাজিক নয়,কারণ সেই ক্ষমতার কোনো অপব্যবহার করা হত না। যেমনঃ ঈসা (আঃ) তার হাতের ছোয়াতে কুষ্ঠ রোগ দূর করতে পারতেন। সুলাইমান (আঃ) জ্বীনদের দিয়ে কাজ করাতে পারতেন।

মূলত ব্ল্যাক ম্যাজিক হল কোন বিশেষ ক্ষমতা দিয়ে কারও অনিষ্ট করা।

0 টি পছন্দ
করেছেন (114 পয়েন্ট)

ব্ল্যাক ম্যাজিক বা কালো যাদু হচ্ছে শয়তানকে(এখানে জিন শয়তানের কথা বলা হয়েছে) পুজা করার মাধ্যমে দুনিয়াতে শয়তানের ক্ষমতার অংশিদার হওয়া, বা কোন কাজ হাসিল করার জন্য শয়তানের সাহায্য নেওয়া। ইসলামে এটি সম্পুর্ন শিরক।

0 টি পছন্দ
করেছেন (121 পয়েন্ট)

এটা শয়তানের আরাধনার মাধ্যমেই হয়। কিন্তু এটাও আল্লার শক্তি।

অনেক বছর আগে আল্লাহ আমাদের পরীক্ষা করার জন্য দুই জন ফেরেশতা পৃথিবীতে পাঠিইয়েছিল। তারা এই জাদু সিক্ষা দিত।

কিন্তু তারা আগেই বলে নিত যে এই সিক্ষা যে করবে সেই জাহান্নামি হবে। অর্থাৎ আল্লাই এটার পথ দেখিয়েছে, কিন্তু আল্লাই এটা শিক্ষা করতে বারণ করেছে। এটা আল্লার একটি পরীক্ষা। এটা যে সত্যি তার প্রমান আমাদের শেষ নবীর উপরেও এক মহিলা জাদু করেছিল।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
3 টি উত্তর
1 উত্তর
21 অগাস্ট 2014 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন ফারদিল হাসান (983 পয়েন্ট)
1 উত্তর
07 জানুয়ারি 2014 "তথ্য-প্রযুক্তি" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sanjoy (6,513 পয়েন্ট)

368,389 টি প্রশ্ন

463,914 টি উত্তর

145,484 টি মন্তব্য

193,604 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...