150 জন দেখেছেন
"রূপচর্চা" বিভাগে করেছেন (1,557 পয়েন্ট)
ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালে চর্মরোগ এর ডাক্তারকে দেখানোর উপর উনি স্কিন পরীক্ষা করে ডক্সিক্যাপ ক্যাপস্যুল এবং মাখার মলম হিসেবে রেটিন A 0.05 দিয়েছিলেন।  বলেছিলেন যে মলম মাখার পর যদি লাল হয় কিংবা ফুলে যায় তাহলে মলম অফ করে দিতে এবং শুধু ক্যাপস্যুল টি নিতে।আমার লাল হয়নি,ফুলেও যায়নি। তবে ব্রণের জায়গায় ব্যবহার করার ফলে চামড়া উঠে যাচ্ছে। খসখসে হয়ে গেছে ফেস এর চামড়া এবং কালো কালো হয়ে গেছে। এখন আমি কি মলম টি ব্যবহার বন্ধ করে দিবো?

আমার করণীয় কি?

মুখে পাউডার বাদে আর কিছু ব্যবহার করতে বারণ করেছিলেন উনি। আমিও ওনার কথা মেনে চলেছিলাম। আগে আমি গোল্ডেন পার্ল নাইট ক্রিম ব্যবহার করতাম।
করেছেন (4,880 পয়েন্ট)
সবচেয়ে উত্তম হবে ফলো আপে গেলে। কারণ যার পরামর্শে চলছেন, যিনি কেস আগেও হ্যান্ডেল করেছেন তিনিই এ বিষয়ে ভালো জানবেন।
করেছেন (1,557 পয়েন্ট)
চামড়া উঠে গিয়ে কালো কালো হয়ে গিয়েছে। এখন কি করতে পারি আমি? আবার কি ডাক্তারের কাছে যাবো? নাকি তার কথা মতো একমাস ক্যাপস্যুল খেয়ে তারপর যাবো?
করেছেন (4,880 পয়েন্ট)
ডাক্তারের প্রেসক্রাইবড মেয়াদ শেষ হলে অর্থাৎ কোর্স শেষ করার পরও যদি সমাধান না পান তাহলে তার কাছেই আবার যান। তিনি সমাধান দিতে না পারলে তখন ভাবুন। নিশ্চয়ই আপনি যার কাছে গিয়েছেন তার চেয়ে অভিজ্ঞ কেউ বিস্ময়ে নেই।

4 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (2,099 পয়েন্ট)
আপনার উচিৎ ব্রনের জন্য কোনরকম ক্রিম ব্যবহার না করা

কেননা ক্রিম ব্যবহারের ফলে উপকারের চেয়ে অপকারই বেশি হয়।

 যেহেতু মলমটি ব্যবহারের ফলে মুখের চামড়া কালো ও খসখসে হয়ে গেছে

তাই আপনার উচিৎ মলমটি ব্যবহার না করা

আপনি শুধু ডাক্তারের দেয়া ক্যাপসুল টি সেবন করুন।

আর বেশি বেশি পানি পান করুন।

মুখে নিম পাতা বেটে দিতে পারেন।
করেছেন (1,557 পয়েন্ট)
চামড়া উঠে কালো কালো হয়ে গিয়েছে। এখন আমি কি পুনরায় ডাক্তারের কাছে যাব? নাকি তার কথামত একমাস পরেই তার কাছে যাবো?
করেছেন (2,099 পয়েন্ট)
আপনার মুখের অবস্থা যদি গুরুতর হয় 

তাহলে এখনই আবার ডাক্তারের কাছে যান।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (12 পয়েন্ট)
ব্রনের বিষয়ে পরামর্শ: 1/ প্রতিদিন 12গ্লাস পানি পান করতে হবে। 2/ হাতের নখ কেটে রাখতে হবে। ব্রনে খোটাখুটি করা যাবেনা। এতে দাগ পড়ে যাবে। 3/ প্রতিদিন হিমালয়া নিম ফেসওয়াশ দিয়ে মুখমন্ডল ধৌত করতে হবে। দৈনিক দুইবার। সকাল+দুপুর। 4/ মুখমন্ডলের ব্রনের জন্য ' ফোনা প্লাস জেল, ক্রিম ব্যবহার করতে হবে। সকাল +রাএে। 5/ মুখমন্ডলের ব্রনের জায়গায় পেঁয়াজের রস লাগাতে পারেন হাল্কা করে। এতে ব্রনের জীবানু মরে যাবে।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (1,383 পয়েন্ট)
কোনো মলম, ক্রিম বা ঔষধ ব‍্যবহারের প্রয়োজন নেই। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে। যেমনটা আপনার ক্ষেত্রে হয়েছে। আপনি যেভাবে আপনার মুখের ব্রণ দূর করবেন এবং মুখের ত্বক উজ্জ্বল ও ঝকঝকে করবেনঃ ১। নিমপাতা বা নিমফলের বীচি পানিসহ বেঁটে ৪-৫ দিন ব্রণে ব‍্যবহার করতে হবে। এতে মুখের ব্রণ যেমন দূর হবে, তেমনি মুখের ত্বক উজ্জ্বল ও ঝকঝকে হবে। ২। শিমুলের ছাল বেঁটে ব্রণের উপর লাগালে ব্রণ সেরে যায়। ৩। ব্রণ ও ব্রণের চুলকানি দূর করার জন‍্য প্রতিদিন পানিতে কয়েক ঘন্টা কিছু চিরতা ভিজিয়ে রেখে, সেই চিরতার পানি খাবেন নিয়মিত কয়েকদিন। ৪। নিয়মিত মাছ দিয়ে কালোজিরার ভর্তা বানিয়ে ভাত খাবেন। হাদীসে কালোজিরাকে মৃত‍্যু ব‍্যতীত সকল রোগের মহৌষধ বলা হয়েছে। আশা করি, উপরোক্ত নিয়মগুলো অনুসরণ করলে আপনার সমস্যা খুব শ্রীঘ্রই দূর হয়ে যাবে ইন শা আল্লাহ। ধন‍্যবাদ।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (3,666 পয়েন্ট)
পূনঃপ্রদর্শিত করেছেন


আপনি ডাক্তারের পরামর্শ মেনে চলুন এবং নিচের কিছু কাজ করুন-
১. আধা কাপ মধুর সঙ্গে ১ কাপ ওটমিল মিশিয়ে ব্রণের উপর লাগান। আধা ঘণ্টা অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন।
২ টেবিল চামচ পুদিনা পাতা কুচির সঙ্গে ২ টেবিল চামচ টক দই ও ২ টেবিল চামচ ওটমিল গুঁড়া মেশান। মিশ্রণটি ১০ মিনিট ত্বকে লাগিয়ে রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
3. অ্যালোভেরার পাতা থেকে জেল সংগ্রহ করে সরাসরি ত্বকে লাগান। আধা ঘণ্টা পর ধুয়ে ফেলুন। সারারাত রেখে দিলেও উপকার পাবেন দ্রুত।
৪. লেবুর রসে তুলার টুকরো ডুবিয়ে ব্রণের উপর লাগান। কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলুন। দিনে ২ বার ব্যবহার করুন। ব্রণ দূর হয়ে যাবে।
টি উত্তর
২১ জানুয়ারি ২০১৯ "ক্যারিয়ার" বিভাগে উত্তর দিয়েছেন Ariful (৬৩৭৩ পয়েন্ট )
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
24 ফেব্রুয়ারি "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Tahsin Ahmed Rana (0 পয়েন্ট)
2 টি উত্তর
27 জানুয়ারি "শিক্ষা+শিক্ষা প্রতিষ্ঠান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নাসির হুসাইন (7 পয়েন্ট)
1 উত্তর

288,239 টি প্রশ্ন

373,539 টি উত্তর

112,983 টি মন্তব্য

156,847 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...