বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
169 জন দেখেছেন
"ইসলাম" বিভাগে করেছেন (40 পয়েন্ট)
পূনঃরায় খোলা করেছেন

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (4,776 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর
আকিকার পরেও প্রয়োজনে নাম পরিবর্তন করা যায়। এতে আকিকার কোনো ক্ষতি হয় না। আর অসুন্দর বা ভুল নাম পরিবর্তন করে সুন্দর নাম রাখা সুন্নাহসম্মত কাজ। রাসূল (সঃ) বিভিন্ন (পুরুষ ও নারী) সাহাবির নাম পরিবর্তন করে সুন্দর নাম রেখে দিয়েছিলেন।

সহিহ বুখারিসহ অন্যান্য হাদিস গ্রন্থে এ মর্মে একটি অধ্যায়ই রয়েছে "باب تحويل الاسم إلى اسم هو أحسن منه"

অর্থাৎ, "নাম পরিবর্তন করে সুন্দর নাম রেখে দেওয়া সংক্রান্ত অধ্যায়।" এ অধ্যায়ের অধীনে মুহাদ্দিসীনে কেরাম ঐসকল হাদিস জমা করেছেন, যেগুলোতে নবি কারিম (সঃ) কর্তৃক সাহাবায়ে কেরামের নাম পরিবর্তন করা হয়েছে। অতএব প্রশ্নোক্ত ঐ বর্তমান নাম পরিবর্তন করে একটি সুন্দর নাম রাখা উত্তম হবে। এক্ষেত্রে সুন্দর ও অর্থপূর্ণ নাম নির্বাচনের জন্য কোনো আলেমের সহযোগিতা নিতে পারেন। এরপর সামনে থেকে ঐ সুন্দর নামেই তাকে ডাকা শ্রেয়, পূর্বের নামে আর ডাকার প্রয়োজন নেই।

তাছাড়াও, "মেহজাবিন" নামটা তো অনেক সুন্দর নাম। আরবীতে এটির বানান হলোঃ "محجابن" — এ শব্দটি 'হিজাব (حجاب) শব্দ হতে নির্গত। যার অর্থ হলোঃ ঢেকে রাখা, ঘোমটাপরিহিত, আড়ালকৃত, লুক্কায়িত - ইত্যাদি।  
করেছেন (40 পয়েন্ট)
কিন্তু আরবিতে কি এ কার হয়! 
করেছেন (4,776 পয়েন্ট)
না। 'এ কার' হিসেবে 'যের' ব্যবহৃত হয়। যদিও উচ্চারণ অনেকটা 'ই কার'-এর মতো শোনা যায়। তবে, আরবীর ক্ষেত্রে এটাই মানানসই।   

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
04 ফেব্রুয়ারি "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নাছিমুল আবেদীন নোমান (11 পয়েন্ট)
1 উত্তর
1 উত্তর
02 মে 2018 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Mahmudul hasan khan (1,217 পয়েন্ট)

313,739 টি প্রশ্ন

403,272 টি উত্তর

123,960 টি মন্তব্য

173,717 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...