বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
85 জন দেখেছেন
"সালাত" বিভাগে করেছেন (23 পয়েন্ট)
বিভাগ পূনঃনির্ধারিত করেছেন
করেছেন (4,733 পয়েন্ট)
কেমন ভুল? একটু উদাহরণ দিবেন?

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (6,125 পয়েন্ট)

দেখতে হবে, মুক্তাদির ভুলটা কোন ধরনের ভুল। 

  • যদি কোনো ফরজ ছেড়ে দেয়, তাহলে তার নামাজ হবে না। চাই ভুলে ছাড়ুক অথবা ইচ্ছাকৃত ছাড়ুক। এই নামাজ পুনরায় পড়তে হবে।
  • যদি কোনো ওয়াজিব ইচ্ছাকৃতভাবে ছেড়ে দেয়, তাহলেও নামাজ হবে না; পুনরায় পড়তে হবে।   
  • আর যদি ভুলটা সাহু সিজদা ওয়াজিবকারী হয় অর্থাৎ, ভুলে কোনো ওয়াজিব ছেড়ে দিল অথবা এক সময়ের ওয়াজিব অন্য সময় আদায় করল কিংবা এক সময়ের ফরজ ভুলে ছেড়ে দিয়ে অন্য সময় আদায় করে নিল, তাহলে এক্ষেত্রে তার নামাজ হয়ে যাবে। তার সাহু সিজদাও করতে হবে না। কারণ, ইমামের পিছনে মুক্তাদির জন্য আলাদা করে সাহু সিজদা করার বিধান নেই।
  • আর যদি কোনো সুন্নাত বা মুস্তাহাব ছেড়ে দেয় বা এক সময়ের সুন্নাত অন্য সময় আদায় করে, তাহলে এতে নামাজের কোনো ক্ষতি হবে না। নামাজ হয়ে যাবে, সাহু সিজদাও লাগবে না। কারণ, সুন্নাতের কারণে সাহু সিজদা লাগে না। 
  • প্রশ্নে বর্ণিত অবস্থায় অর্থাৎ, রুকুর তাসবিহ সিজদায় পড়লে কিংবা সিহদার তাসবিহ রুকুতে পড়লে নামাজের কোনো ক্ষতি হবে না। কারণ, এটিও সুন্নাত। আর তা ছাড়া রুকুর তাসবিহ ও সিজদার তাসবিহ আলাদা আলাদা হলেও উভয়টার অর্থ একই এবং উভয় তাসবিহ একই ধরনের, একই অর্থ, একই মর্ম। তবে ইচ্ছাকৃতভাবে এমনটা করা অনুত্তম হবে। ভুলে করলে কোনো সমস্যা নেই।  

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

313,056 টি প্রশ্ন

402,688 টি উত্তর

123,718 টি মন্তব্য

173,412 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...