বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
178 জন দেখেছেন
"ঈমান ও আক্বীদা" বিভাগে করেছেন (13 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
অামি ইমান হারিয়ে ফেলেছি।কি করে সে ইমান পুনরায় ফিরে পাব। অামার মনে শুধু সন্দেহ জাগে কি করে এই সন্দেহ দূর করবো।  এবং কি করলে অাল্লাহ তায়ালা পুনরায় অামাকে হেদায়েত দান করবেন। এবং অামি হেদায়েত পাওয়ার জন্য ও অনেক চেষ্টা করতেছি।
করেছেন (4,661 পয়েন্ট)
আপনার মনের মধ্যে কিরকম সন্দেহের বহিঃপ্রকাশ ঘটে?   
করেছেন (13 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
ভাই অামার সন্দেহ খুব মারাত্নক তা হলো এমনঃ- অামার মনে সন্দেহ অাসে জান্নাত জাহান্নাম সত্য কিনা মৃতু্্যর পর পুনরায় জিবিত করবেন কিনা কিয়ামত দিবস ইত্যাদি। এগুলো মনে সন্দেহ অাসে। এবং এই সন্দেহ দূর করার জন্য অামি অনেক চেষ্টা করতেছি কিন্তু দূর হয়না। এবং কি কাজ করলে অাল্লাহ অামার এই সন্দেহ গুলো দূর করে দিবেন। এবং পুনরায় অামাকে অাল্লাহ হেদায়েত দান করবেন।
করেছেন (4,661 পয়েন্ট)

আপনি সবসময় তা'বুজ শরীফ বা "আয়ুজু বিল্লাহি মিনাশ শাইতনির রজীম" পাঠ করুন।

করেছেন (13 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
ভাই কোন কাজ হয়না ।  অার ভাই ইসলামে কি এটার সমাধান নাই।

3 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (470 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
যদি আপনার কাছে মনে হয়, আপনি অপরাধী। তাহলে আল্লাহর কাছে তওবা করুন। খুব বেশী করে কাঁদুন তাঁর কাছে, যিনি হেদায়াতের মালিক। নিশ্চয়ই তিনি তওবাকারীকে পছন্দ করেন। ৫ ওয়াক্ত নামায পড়ুন। প্রকৃত নামায মানুষকে খারাপ কাজ থেকে বিরত রাখে। সম্ভব হলে তাহাজ্জুদ সহকারে নফল নামায গুলো পড়ুন। বেশি বেশি নফল নামায আদায় কারীকে আল্লাহ তায়ালা তাঁর ওলি হিসেবে কবুল করে নেন। তগদিরের উপর বিশ্বাস রাখুন। ইনশাআল্লাহ, হেদায়াত নসিব হবে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (1,431 পয়েন্ট)
ভাই আপনি আপনার আশপাশে অবস্থিত ভালো কোনন কওমী মাদ্রাসাতে তাড়াতাড়ি যোগাযোগ করুন।

ইনশাআল্লাহ আপনি খুবই ভালো রেজাল্ট পাবেন।

আর আপনি যদি ঢাকায় থেকে থাকেন তাহলে আমি আপনাকে 

একজন বিশিষ্ট আল্লাহওয়ালার ঠিকানা দিব।

ইনশাআল্লাহ আপনার মনের সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।
করেছেন (13 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
ভাই অামি কুয়েত থাকি কিভাবে এটার সমাধান পাবো।দয়া করে বলুন। ইসলামে কি এটার সমাধান নাই..? যদি না থাকে তাহলে ইসলাম অপূর্নাঙ্গ ধর্ম।
করেছেন (1,431 পয়েন্ট)
প্রথম কথা হচ্ছে আপনি ঈমানের উপর অটল আছেন বলেই আপনার মনে আশা কথা গুলো নিয়ে এত টেনশন হচ্ছে।

আর কথা গুলো শয়তান আপনার মনের মধ্যে বারবার এনে দিচ্ছে।আর আপনার ভিতর ঈমান আছে বলেই তখন আপনি কষ্ট পাচ্ছেন।নয়তো কষ্ট পেতেন না।

এরকম ঘটনা একজন সাহাবীর সাথেও ঘটেছিল।

বাট আমার রেফারেন্স মনে নেই বলে বলতে পারছি না।।।।

আপনি অপেক্ষা করুন।

আমি আপনাকে সর্বোচ্চ আর যথার্থ চেষ্টা করবো হেল্প করার জন্যে।আমাকে একটু সময় দিন।।।।

ধন্যবাদ।
করেছেন (1,431 পয়েন্ট)
আপনার ফেসবুক আইডিটা আমাকে ইনবক্স করতে পারেন।

আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো,আমার প্রিয় একজন আলেমের সাথে আপনাকে ইনবক্সে যোগাযোগ করিয়ে দেয়ার জন্যে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (761 পয়েন্ট)
আপনার এ অবস্থা শয়তান কর্তৃক।এরকম অবস্থা সাহাবায়ে কেরামের মধ্যেও বিদ্যমান ছিল। তাঁরাও এমন ব্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন। নিজের ঈমানের প্রতি অনাস্থা এসে গিয়েছিল। তাঁদের এহেন পরিস্থিতিতে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সুসংবাদ প্রদান করে বলেছিলেন যে,এটা তো সুস্পষ্ট ঈমান।(সহিহ মুসলিম ১৩২)

সুতরাং ভাই আমার! আপনার এ অবস্থাও ঈমানের পরিচয় বহন করে।তাই চিন্তিত হবেন না। কারণ বান্দার অন্তরে যা কিছু আসে তার হিসেব নেয়া হবেনা যতক্ষণ না সে তা ইচ্ছাকৃতভাবে আনবে।(সূরা তালাক ৭) রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম‌ও উম্মতদেরকে অভয় দিয়ে বলে গেছেন; আমার উম্মতের অন্তরে যে কুমন্ত্রনার উদয় হবে সেগুলোর হিসাব আল্লাহ নিবেন না যতক্ষণ না সে তা কাজে পরিনত করবে বা মুখে উচ্চারণ করবে।(সহিহ বুখারী ৬৬৬৪)

তাই এগুলো আসা অস্বাভাবিক কিছু নয়।আর আসলে উম্মতের করণীয় হিসেবে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যে বিষয়ে সন্দেহের উদয় হবে সে বিষয়ের প্রতি ঈমান আনার কথা বলেছেন।(সহিহ মুসলিম ১৩৪) অর্থাৎ কোন বিষয়ে সন্দেহ আসলে শুধু বলবে যে আমি এর প্রতি ঈমান আনলাম। এতটুকু যথেষ্ট।

আর আপনি সকাল সন্ধ্যা কুরআন তেলাওয়াত করুন।ইস্তেগফার ও শাইতান থেকে নিষ্কৃতির দোয়া করুন ও পড়ুন।
করেছেন (13 পয়েন্ট)

ভাই অামার সন্দেহ খুব মারাত্নক তা হলো এমনঃ-অামার মনে সন্দেহ অাসে জান্নাত জাহান্নাম সত্য কিনা মৃতু্্যর পর অাবার জিবিত করবেন কিনা কিয়ামত দিবস ইত্যাদি। এগুলো মনে সন্দেহ অাসে। এবং এই সন্দেহ দূর করার জন্য অামি অনেক চেষ্টা করতেছি কিন্তু দূর হয়না। এবং কি কাজ করলে অাল্লাহ অামার এই সন্দেহ গুলো দূর করে দিবেন। এবং পুনরায় অামাকে অাল্লাহ হেদায়েত দান করবেন।

ভাই দয়া করে জানাবেন।
করেছেন (761 পয়েন্ট)

ভাই! আপনার এ অবস্থাই ঈমানের পরিচায়ক। ঈমানদারদের এমন সন্দেহ আসলে শেষের হাদিসে তার সমাধান হিসেবে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন,"তখন বলবে আমি ঈমান আনলাম" অর্থাৎ কেয়ামাত দিবসের প্রতি সন্দেহ হলে বলবে বা মনে একথা জাগ্রত করবে যে, কিয়ামত হ‌ওয়ার প্রতি ঈমান আনলাম বা কেয়ামাত হবে। এভাবে যতবার আসবে ততবার এমন‌ই করবে।

উত্তর ভালোভাবে বুঝুন! সেখানে এও আছে, যতক্ষণ আপনি ইচ্ছাকৃত এমন সন্দেহ করবেন না বা মুখে বলবেন না বা কাজে পরিণত করবেন না ততক্ষণ পর্যন্ত এর জন্য আপনি দোষী সাব্যস্ত হবেন না।
সুতরাং এমন চিন্তা আসায় অহেতুক চিন্তিত হওয়ার প্রয়োজন নাই।
জাযাকাল্লাহ!

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
19 সেপ্টেম্বর 2018 "ঈমান ও আক্বীদা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন bdproshno1 (18 পয়েন্ট)

307,125 টি প্রশ্ন

396,026 টি উত্তর

121,033 টি মন্তব্য

170,179 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...