বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
78 জন দেখেছেন
"ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে করেছেন (4,469 পয়েন্ট)
করেছেন (4,752 পয়েন্ট)
আপনি বুখারী শরীফের ৫৮৮৯ নং হাদিসের ব্যাখ্যা ও ফুটনোট দেখুন৷

2 উত্তর

+3 টি পছন্দ
করেছেন (4,777 পয়েন্ট)

# ইসলামী শরীয়তে দাড়ি রাখা ওয়াজিব বিধান।আর গোঁফকে ছাটতে ও কাটতে বলা হয়েছে। তাই উভয়ের মধ্যে বিধানগত দিক থেকে পার্থক্য স্পষ্ট। -সহীহ বুখারী হা. নং ৫৮৮৮; সহীহ মুসলিম: হা. নং ২৫৭; সুনানে তিরমিযী: হা. নং ২৭৫৬; সুনানুন নাসাঈ: হা. নং ৫০৬১ ইত্যাদি।

# আর গোঁফে লাগা পানি খাওয়া হারাম এটি আমাদের সমাজে প্রচারিত ভুলমাসআলাসমূহের একটি। এ সম্পর্কে  লিংকের আলোচনাটি পাঠ করা যেতে পারে।

0 টি পছন্দ
করেছেন (761 পয়েন্ট)
গোঁফ বলা হয় ঐ সমস্ত চুলকে যা উপরের ঠোঁটে গজায় এবং তা লম্বা রাখা মাকরুহ।আর দাঁড়ি বলা হয় ঐ সমস্ত চুলকে যা থুতনি ও চোয়ালের উপরে গজায় এবং তা একমুষ্টি পরিমাণ রাখা ওয়াজিব।এ সম্পর্কে হাদিসে বর্ণিত হয়েছে,
ইবনু ‘উমার (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ
রসূলুল্লাহ্‌ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেন, তোমরা মুশরিকদের বিরুদ্ধাচরণ কর-মোচ কেটে ফেল এবং দাড়ি লম্বা কর। (ই.ফা. ৪৯৩, ই.সে. ৫০৯)
 সহিহ মুসলিম, হাদিস নং ৪৯০
হাদিসের মান: সহিহ হাদিস

তবে গোঁফে লাগা পানি পান করা হারাম হ‌ওয়ার কথাটির কোন ভিত্তি নেই।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর

313,380 টি প্রশ্ন

402,955 টি উত্তর

123,826 টি মন্তব্য

173,548 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...