বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
90 জন দেখেছেন
"ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে করেছেন (4,433 পয়েন্ট)

2 উত্তর

+1 টি পছন্দ
করেছেন (7,631 পয়েন্ট)
জিকির হলো আল্লাহর স্মরণ। আল্লাহ তাআলার স্মরণে যে কাজই করা হয় তাই ইবাদত। সে হিসেবে জিকির আল্লাহ তাআলার ইবাদত। আল্লাহ তাআলা মানুষের জন্য যত বিধান নাজিল করেছেন, তা বাস্তবায়নে গবেষণা করা, চিন্তা-ফিকির করাই হলো জিকির। আর জিকিরের মাধ্যমেই মানুষের অন্তর প্রশান্তি লাভ করে।

আল্লাহ তাআলা কুরআনুল কারিমের অসংখ্য জায়গায় জিকির করার প্রতি গুরুত্বারোপ করেছেন।

আল্লাহ তাআলা বলেন, তোমরা খুব বেশি করে আল্লাহর স্মরণ করতে থাকো। আশা করা যায়, এ কাজেই তোমাদের কল্যাণ হবে। (সুরা আনফালঃ আয়াত ৪৫)

শুধুমাত্র বা আল্লাহ-আল্লাহ, তাসবিহ- তাহলিল করার মধ্যেই জিকির সীমাবদ্ধ নয় বরং প্রত্যেক কাজে আল্লাহর নির্দেশ পালন করা হলো সবচেয়ে বড় জিকির। তা হতে পারে কুরআন তেলাওয়াত করা, কুরআন-হাদিস শিক্ষা করা এবং শিক্ষা দেয়া, কুরআন-হাদিস নিয়ে চিন্তা-গবেষণা করা, ওয়াজ-নসিহত করা এবং তা শ্রবণ করার পাশাপাশি বাস্তবজীবনে আমল করা।

নফল ইবাদতের মধ্যে সর্বোত্তম ইবাদত হলো কোরআন তেলাওয়াত।

হাদিসে এসেছেঃ রাসুলুল্লাহ (সাঃ) ইরশাদ করেন, তোমাদের মধ্যে সর্বোত্তম ওই ব্যক্তি, যে কোরআন শিক্ষা গ্রহণ করে ও কোরআন শিক্ষা দেয়। (আবু দাউদঃ ১৪৫২)
0 টি পছন্দ
করেছেন (3,418 পয়েন্ট)
এক হাদিসে পড়ে ছিলাম আফদালুয যিকরি লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ তথা সর্বোত্তম যিকির লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ। আর কুরআনে আল্লাহ বলেছেন, তোমরা আমাকে যিকির তথা স্মরণ কর, আমি তোমাদের যিকির তথা স্মরণ করব।তোমরা আমার শুকরিয়া আদায় কর অস্বিকার করোনা।আশা করি উত্তর পেয়েছেন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

313,051 টি প্রশ্ন

402,681 টি উত্তর

123,718 টি মন্তব্য

173,406 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...