95 জন দেখেছেন
"ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে করেছেন (1,174 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

4 উত্তর

2 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (7,933 পয়েন্ট)

আল্লাহ পক্ষ থেকে নাযিল করা হয়েছে বলে। যা মানুষের রচিত নয়। এটা সেই কিতাব যাতে কোন সন্দেহ নেই মুত্তাকীদের জন্য হেদায়েত। (বাকারা আয়াতঃ ২)

এতে কোন সন্দেহ নেই যে, এ কুরআন আল্লাহর পক্ষ থেকে নাযিল করা হয়েছে। 

কোনরূপ সন্দেহ নেই অর্থাৎ এতে কোন সংশয়-সন্দেহ নেই। এখানে 'রইবা' শব্দটি সন্দেহ অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে। যেমন আল্লাহ

কুরআনের ব্যাপারে চ্যালেঞ্জ করে বলেনঃ

এবং আমি আমার বান্দার প্রতি যা অবতীর্ণ করেছি তাতে তোমরা যদি সন্দিহান হও, তবে তার সমতুল্য একটি 'সূরা' তৈরি করে নিয়ে এসো। (সূরা বাকারাঃ ২৩)

কুরআন নিয়ে যারাই গবেষণা করেছেন, তারা একবাক্যে স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছেন যে, এর ভাষাগত বাহ্যিক রূপ ও মর্মগত আত্মিক স্বরূপ উভয় দিক দিয়েই এটা অতুলনীয়।

মহান আল্লাহ্‌ বলেন, এ কিতাব প্রজ্ঞাময় সর্বজ্ঞের কাছ থেকে, এর আয়াতসমূহ সুস্পষ্ট, সুবিন্যস্ত ও পরে বিশদভাবে বিবৃত। (সূরা হুদঃ ১)


রবিন আহমেদ দেশের বাহিরে থেকেও দেশের প্রতি অভাবনীয় টানে দেশের মানুষকে উপকার করার জন্য বেছে নিয়েছেন বিস্ময় অ্যানসারসকে। নতুন কিছু জানতে এবং অন্যকে জানাতে সুদূর ওমানে থেকেও বাংলার মানুষের প্রতি ভালোবাসার টানে তিনি বিস্ময়ের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন এবং তিনি ওমানে ডলার/ভয়েস ব্যবসার সাথে জড়িত আছেন। বিস্ময়ের সঙ্গে রয়েছেন একজন সমন্বয়ক হিসেবে।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (13,774 পয়েন্ট)

প্রশ্নের মধ্যেই উত্তর বলে দিয়েছেন।

আল কোরআনকে পৃথিবীর শতভাগ নির্ভুল ও অবিকৃত

ধর্মগ্রন্থ বলার কারণ হলো: 

পবিত্র কোরআন শরীফে কোনো ভুল নেই, কোনো ভুল

তথ্য নেই, কোনো অযৌক্তিক বা অনাচার বা পরস্পর

বিরোধী এমন কোনো উক্তি নেই। অন্য দিকে পবিত্র কোরআন

শরীফ ব্যাতিত অন্য কোনো ধর্মগ্রন্থ এই পৃথিবীর বুকে নেই

যা নির্ভুল,  এজন্যই যৌক্তিক ভাবে এবং প্রকৃত পক্ষেই একমাত্র

নির্ভুল ধর্মগ্রন্থ পবিত্র কোরআন।


জুনায়েত ইসলাম: দেশ ও মানুষের সেবায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করতে সদা প্রস্তুত। শৃঙ্খলা ও ফিটনেস সম্পর্কে খুব সচেতন এবং প্রচন্ড দেশ প্রেমী এজন্যই দেশ রক্ষার মতো পবিত্র দায়িত্ব বেছে নিয়েছেন পেশাগত জীবনে। জ্ঞানার্জনের লক্ষ্যে ও পরোপকারের স্বার্থে দীর্ঘদিন থেকেই বিস্ময় অ্যানসারের সাথে অঙ্গাঅঙ্গি ভাবে জড়িত।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (4,742 পয়েন্ট)
কারণ কুরআন আজ থেকে ১৫০০ বছর আগে নাযিল হওয়া সত্ত্বেও বর্তমান বিজ্ঞান যা আবিষ্কার করেছে তা ধারণ করছে। বিজ্ঞানের সাথে কুরআন সম্পূর্ণভাবে সামঞ্জস্যপূর্ণ। এর কোনো তথ্যগত ভুল কেউ ধরতে পারে নি। বৈজ্ঞানিক দুয়েকটা তত্ত্ব শুরুতে দ্বিমতে থাকলেও অন্তে এসে ঠিকই তা মিলে যায়। এ সম্পর্কেও কুরআনে আছে- এ সেই কিতাব যাতে কোন সন্দেহ নেই’ (সূরা বাকারাহ, আয়াত ২)  এজন্য কুরআনকে একমাত্র শতভাগ নির্ভুল গ্রন্থ বলা হয়। 

আর কুরআন সেই শুরুতে যেমন ছিল বর্তমানেও তেমনই আছে। এর কিছুর পরিবর্তন হয় নি। কারণ স্বয়ং আল্লাহ তায়ালা এর রক্ষাকর্তা। এ সম্পর্কে তিনি কুরআনেই বলেছেন- আমি স্বয়ং এ কিতাব নাযিল করেছি এবং আমি নিজেই এর সংরক্ষক (সূরা আল-হিজর, আয়াত ৯)। এ কারণে কুরআনকে একমাত্র অবিকৃত গ্রন্থ বলা হয়। 

কুরআনের মত নির্ভুলতা ও সদা অবিকৃততা অন্য কোনো গ্রন্থে না হওয়ায় এর বিশেষণের পূর্বে একমাত্র যোগ করা হয়েছে। 
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (871 পয়েন্ট)
আল্লাহ তায়ালা সূরা বাকারার প্রথমে বলেছেন,এটি সেই কিতাব যাতে কোনো সন্দেহ নেই।এখানেই বুঝা যায় আল কুরআন শতভাগ নির্ভুল।আর আর কুরআন নাজিলের সময় যেমন ছিল তেমনই আছে।এটি বিন্দুমাত্র বিকৃত হয় নি।
টি উত্তর
২১ জানুয়ারি ২০১৯ "ক্যারিয়ার" বিভাগে উত্তর দিয়েছেন Ariful (৬৩৭৩ পয়েন্ট )
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

4 টি উত্তর
1 উত্তর
30 মার্চ 2014 "ইসলাম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন salehahmed (labib) (10,662 পয়েন্ট)

283,689 টি প্রশ্ন

368,224 টি উত্তর

111,047 টি মন্তব্য

153,124 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...