134 জন দেখেছেন
"প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে করেছেন (11 পয়েন্ট)
আমার বিয়ে উভয় পারিবারের সম্মতিতে ঠিক করা হয়েছে।এজন্য মেয়েটার ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে বেশি কিছু জানতে পারেনি।মেয়েটা অনার্স ২য় বর্ষে পড়ে দেখতেও সুন্দরী।এখন কথা হলো মেয়েটা যদি অন্যকারো সাথে রিলেশনে থাকে তাহলে আমার বিবাহিত জীবনে এর বিরূপ কোনো প্রভাব পড়বে কি?আমি কি সুখী হতে পারবো?

4 উত্তর

3 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (2,744 পয়েন্ট)
আমার মনে হয় অ্যারেঞ্জ ম্যারেজই দাম্পত্য জীবনে বেশি সুখ বয়ে আনে। যদিও সকল প্রকার বিয়ার বিষয়ে অনিশ্চিৎ। অ্যারেঞ্জ ম্যারেজের একটি দোষ থাকে যা হচ্ছে ছেলে মেয়েদের নিজের মতামতের প্রতিফলন খুব কম হয়, যদিও বর্তমান সময়ে এ কথা আর খাটে না কারন এখন পরিবার সম্মন্ধ ঠিক করলেও ছেলে মেয়ে আলাদা ভাবে কথা বলে নিতে পারে। কাজেই আপনিও তাই করুন আলাদা ভাবে কথা বলে জানিন। তবে একটা কথা মনে রাখবেন যে, একটি মেয়ের আগে সম্পর্ক ছিল বলে যে তাকে আর বিয়া করা যাবেনা এমন নয়, মেয়ে যদি খুলে বলে যে সম্পর্ক ছিল কিন্তু সেটা সে চাইনা, এখন নেই, আপনার সাথে বিয়াতে সে স্বইচ্ছায় রাজি, তবে মত দেয়া উচিত। কারন সন্দেহের বসে প্রত্যাক্ষান করা ঠিক নয়, মনে রাখবেন প্রেমের ক্ষেত্রেও কিন্তু এগুলো সমস্যা, আপনার ভালবাসার মানুষ যতই আপনাকে ভালবাসুক না কেন, ভেবে দেখেন আপনি তার জীবনে আসার আগে সে কি অন্যের সাথে প্রেম করত না? আজকের এই সময়ে প্রেম করেনা এমন ছেলে বা মেয়ে পাবেন না। তবে প্রেম করলেই যে সে অন্যের বাকদত্তা তা কিন্তু নয়, টাইম কাটাতে, বন্ধু হিসাবে যোগাযোগ ইত্যাদি করতে যেয়ে সামান্য আন্তরিকতা গড়ে ওঠেই যাকে আমরা প্রেমের রুপ দিয়াছি কিন্তু তা আদৌ ঠিক না। ক্যাম্পাসের প্রেম ক্যাম্পাসেই শেষ, বাস্তব জীবন আলাদা। হ্যা যারা সচেতন, এবং বুঝে শুনেই প্রেমে এগিয়ে যায় তাদের বিষয় আলাদা। হাজারও উদাহরন আছে প্রেম করে পালিয়ে বিয়ে করে এখন ছাড়া ছাড়ি, দুদিন আগেও বিস্ময়ে কে যেন প্রশ্ন করেছিল পালিয়ে বিয়ে করেছে এখন ছাড়তে চাই, কোন সমস্যা হবে কিনা? যাই হোক প্রেমে শুধু এইটুকু পাবেন যে এক মেয়েকে চেয়েছেন, সেই মেয়েকে পেয়েছেন আর কিছুই পাবেন না। ভবিষ্যতে বিবাহ টিকবে কিনা তা প্রেমের ক্ষেত্রেও বলতে পারবেন না, পারিবারিক ক্ষেত্রেও বলতে পারবেন না, একই বিষয়, কিন্তু পারিবারিক ভাবে হলে পরিবারের সহযোগীতা পাবেন, আচার ব্যবহারে সুখ পাবেন। একটা কথা বলি সুখ কিন্তু শুধু দুজন মানুষের বাসর ঘরের ব্যাপার নয়, পরিবারের সবাইকে নিয়া হাসি তামাশা,আড্ডা দুস্টামি সব মিলেই সুখ রচিত হয়। কাজেই আপনি একান্তে মেয়ের সাথে আলাপ করে নিন, এটাই উত্তম। প্রেমে উত্তম নয় বলে আমার বিশ্বাস। (লিখলে অনেক বড় লেখা যাবে তাই ইতি টানছি) 
1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (7,761 পয়েন্ট)

সাধারণত কোন মেয়ের যখন তাঁর লাভার এর সাথে বিয়ে না হয়ে অন্য কারো সাথে বিয়ে হয় তখন মেয়ে টিকে অতীত ভূলে নিজের বর্তমান নিয়ে সুখি থাকতে হয়,তাঁর জন্য মেয়ে টি আর কখনো অতীত এর দিকে তাকাই না,,সে নিজের বর/ স্বামী কে নিয়েই থাকে।


এখন কথা হলঃ সুখ টা আল্লাহ্‌ দেওয়ার বিষয় তিনি যদি মনে করেন আপনাদের বিবাহিত জীবন সুখের হবে তো কেউ সুখ এ বাধা দিতে পারবে না কিন্ত যদি এমন টা না লিখে থাকেন তাহলে এরেঞ্জ ম্যারেজ কেন রিলেশন করে বিয়ে করলেও সুখি হবে না।


তাই এই গুলা নিয়ে চিন্তা করবেন না।

সব ই সৃষ্টিকর্তার উপর নির্ভর করছে।

করেছেন (1,385 পয়েন্ট)
আপনার একটা কথা মানতে পারলাম না সেটা হলো 'সবই সৃষ্টিকর্তার উপর নির্ভর করছে।'সবই যদি সৃষ্টিকর্তার উপর নির্ভর করতো তাহলে 'যেমন কর্ম তেমন ফল' কথাটি তৈরি হতো না।
করেছেন (7,761 পয়েন্ট)

আপনার কথার দ্বারা বোঝা যাচ্ছে আপনি সৃষ্টিকর্তার উপর বিশ্বাস রাখেন না।


আচ্ছ আপনাকে একটা উদাহরণ দিয় কেমনঃ

মনে করেন আপনার সব আছে মানে টাকা,পয়সা,সুন্দীয় এবং চরিত্রবান স্ত্রী,মা,বাবা,ভাই,বোন কোন কিছু অভার নাই আপনার এলাকার সবাই আপনাকে অনেক সম্মান করে। 

কিন্ত আপনি ক্যান্সার এ আক্রান্ত।

বেশি দিন বাঁচবেন না।


এখন বলুন সুখ কার উপর নির্ভর করছে.......!???


কোন কর্মের জন্য এমন হল...!??



তর্ক না করে যথাযথ মন্তব্য করবেন দয়া করে।

করেছেন (1,385 পয়েন্ট)
ক্যান্সার তো আর আপনা আপনি হয়নি।এমনটাও নয় যে আল্লাহ তাকে ইচ্ছা করে রোগটি দিয়েছেন।তাহলে কি করে ক্যান্সার হলো?নিশ্চয় ক্যান্সার হতে পারে এমন কোনো কাজ করেছে।
করেছেন (7,761 পয়েন্ট)
আপনি তো অল রেডি তর্ক শুরু করেছেন।

যারা প্রকৃত ঈমান দার ও মুসলিম তাঁরা বিশ্বাস করেন সব কিছু আল্লাহতালার হাতে,,,আল্লাহতালার ইচ্ছা ছাড়া ১ টি গাছের পাতাও নড়ে না।

বাকি টা আপনার ইচ্ছা।

আপনার সাথে তর্ক করার

মত কোন ইচ্ছা আমার নাই।
করেছেন (1,385 পয়েন্ট)
কথার উত্তর দেওয়া যদি তর্ক করা হয় তাহলে আর কোনো কথা বলছি না।
1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (2 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

আপনি বিয়ে সাময়িক সময়ের(১ মাস)  জন্য পিছান আর আর আপনার কোন বন্ধুর বা বন্ধুর বন্ধুর বাড়ি অই এলাকাই কিনা খোজ নেন ।  কারন  বাংলাদেশের কোন মেয়েই বিয়ের আগে হবু হাসবেন্ড কে সব খুলে বলেনা ।


তাই এটা খুজে বার করুন তার সবচেয়ে প্রিয় বান্ধবির নাম কি তার বাড়ি কোথায় । আর সেই বান্ধবীর বয়ফ্রেন্ড এর খোজ নিন সাধারণত বান্ধবীরা সব জানে বান্ধবীর সম্পর্কে 

আর কোন আত্মিয় বা ঘটক ব্যাবহার করে খোজ নেবেন না তাহলে সঠিক তথ্য পাবেন না  ।  ছদ্মবেশ ধরে বাড়ির আশে পাশে ঘুরতে পারেন  ।

সব শেষে:- কোরআন শরীফ এ উল্লেখ আছে তুমি যেরকম হবা তোমার স্ত্রীও তেমন হবে।

অর্থাৎ আপনি জীবনে খারাপ কাজ  না করলে রিলেশন না করলে আপনার স্ত্রীও করবে না।  হালাল মানুষের হালাল স্ত্রী   । আর হারাম মানুষের হারাম স্ত্রী  ।
1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (164 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
দেখুন সুখ বিষয়টা আভ্যন্তরীন বিষয়। সুন্দরী একটি মেয়ে অনার্স  2য় বর্সে  পড়ে আর প্রেম করেনি এমনটা আশা করা বোকামী হবে। তবে আপনার ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রমও হতে পারে। এক্ষেত্রে আপনাকে  অবশ্যই ছাড় দিতে হবে।  বিয়ের আগে কয়টা প্রেম করেছে বা আদৌ করেছে কিনা এটা কোন কথা  না। মেইন বিষয়টা হলো আপনাকে বিয়ে করার পর অন্য কারো সাথে রিলেশন করছে কি না।
টি উত্তর
২১ জানুয়ারি ২০১৯ "ক্যারিয়ার" বিভাগে উত্তর দিয়েছেন Ariful (৬৩৭৩ পয়েন্ট )
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

5 টি উত্তর
08 জানুয়ারি 2016 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন kaucher hamid (8 পয়েন্ট)
1 উত্তর
04 এপ্রিল 2014 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Dip Roy (698 পয়েন্ট)

288,121 টি প্রশ্ন

373,414 টি উত্তর

112,909 টি মন্তব্য

156,778 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...