বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
176 জন দেখেছেন
"ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে করেছেন (4,425 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

2 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (7,631 পয়েন্ট)
তালাকের অধিকার মূলত পুরুষদের বা স্বামীদের দেওয়া হয়েছে। নারীরা তালাক দিতে পারে না।

তবে একটি বিষয় ইসলামে অনুমোদন দেওয়া আছে। সেটা হলো যদি কোনো কারণে কোনো স্ত্রী মনে করেন যে তাঁর হক নষ্ট হচ্ছে অথবা তাঁর ওপর জুলুম করা হচ্ছে অথবা ব্যক্তিগত কোনো কারণে এখানে সংসার করতে চাচ্ছেন না, সে ক্ষেত্রে স্ত্রীর জন্য জায়েজ আছে স্ত্রী স্বামীর সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে খোলা করতে পারবেন। খোলাও এক প্রকার তালাকই। কিন্তু সেটা হচ্ছে, স্বামীর সঙ্গে আলোচনা করে দাম্পত্য সম্পর্ক থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেওয়া, মুক্ত করে নেওয়া।

আরেকটি সুযোগ হচ্ছে, যদি স্বামী খোলা করতে রাজি না হন এবং তালাকের ক্ষমতা যেহেতু স্বামীর হাতে, তখন স্ত্রীকে এর থেকে বড় ক্ষমতার দিকে যেতে হবে। সেটি হলো, স্ত্রী তাঁর এ বিষয়টি নিয়ে আদালতে যাবেন এবং স্ত্রীর যে অধিকারগুলো নষ্ট হচ্ছে, সেগুলো আদালতে পেশ করবেন। আদালত তখন তাঁর স্বামীকে তলব করে জানতে চাইবেন, এই অভিযোগগুলো সত্য কি না এবং স্বামী যদি তা স্বীকার করেন, তখন আদালত এই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদের নির্দেশ দেবেন। তখন আর স্বামী বা স্ত্রীর পক্ষ থেকে তালাকের প্রয়োজন হবে না।
0 টি পছন্দ
করেছেন (761 পয়েন্ট)
ইসলামে নারী কখনোই স্বামীকে তালাক দিতে পারেনা।তালাক একমাত্র স্বামীর অধিকার।তবে হ্যাঁ! স্বামী যদি স্ত্রীকে তালাকের অধিকার দেন তাহলে স্ত্রী নিজের উপর তালাক নিতে পারবে।

সূরা বাকারার ২৩০/৩১/৩২ নং আয়াতে লক্ষ্য করলে বিষয়টি স্পষ্ট প্রতীয়মান হয়।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
0 টি উত্তর

312,745 টি প্রশ্ন

402,308 টি উত্তর

123,566 টি মন্তব্য

173,287 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...