41 জন দেখেছেন
"ইসলাম" বিভাগে করেছেন (53 পয়েন্ট)
এমন অবস্থা যে পেশাবের ফোটা বের হবে।এক্ষেত্রে সেটা বের করে টিসু দিয়ে মুছে আর পানি দিয়ে না ধুলে কি পাক হবে?নামাজ পড়া যাবে?

3 উত্তর

2 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (4,423 পয়েন্ট)
টিস্যু দ্বারা পরিপূর্ণ পরিষ্কার হলে পবিত্রতা অর্জন হবে। তবে পানি ব্যবহার করা উত্তম। একারণে নামাযের মধ্যে কোনরূপ ক্ষতি হবে না।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (3,782 পয়েন্ট)
হ্যাঁ, নামায হবে। কারণ শুধু মাটির ঢিলা বা টিস্যু ব্যবহার করলেই পবিত্রতা অর্জন হয়ে যায়। পানি না ব্যবহার করলেও সমস্যা হয় না। তবে পানি ব্যবহার করা উত্তম এবং সুন্নাত।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (552 পয়েন্ট)

হ্যাঁ, কোন নাপাকি লেগে না থাকলে নামাজ  হয়ে যাবে৷ 

পবিত্রতা অর্জনে রাসুল সাঃ অধিক যত্নশীল ছিলেন৷ ব্যক্তি অপবিত্র হয়ে যদি পবিত্রতা অর্জন না করে তার উপর ফেরেস্তা লা’নত করতে থাকে। যারা ভালোভাবে পবিত্রতা অর্জন করেনা তাদের জন্য রয়েছে ধমকি!

যেমন হযরত আব্দুল্লাহ বিন আব্বাস রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন
عَنِ ابْنِ عَبَّاسٍ، قَالَ: مَرَّ النَّبِيُّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بِقَبْرَيْنِ، فَقَالَ: ” إِنَّهُمَا لَيُعَذَّبَانِ، وَمَا يُعَذَّبَانِ فِي كَبِيرٍ، أَمَّا أَحَدُهُمَا: فَكَانَ لَا يَسْتَنْزِهُ مِنَ البَوْلِ – قَالَ وَكِيعٌ: مِنْ بَوْلِهِ – وَأَمَّا الْآخَرُ: فَكَانَ يَمْشِي بِالنَّمِيمَةِ .
অর্থ, হযরত আব্দুল্লাহ বিন আব্বাস রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, একদা রাসূল সাঃ দু’টি কবরের পাশ দিয়ে অতিক্রম করছিলেন। বললেন, এ দু’টি কবরে আযাব হচ্ছে। কোন বড় কারণে আজাব হচ্ছে না। একজনের কবরে আজাব হচ্ছে সে পেশাব থেকে ভাল করে ইস্তিঞ্জা করতো না। আরেকজন চোগোলখুরী করতো। (মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং-১৯৮০, বুখারী, হাদীস নং-১৩৬১)

উপরের আলোচনা থেকে প্রতিয়মান হয় যে পবিত্রতা অর্জণ কতটা জুরুরী।

কোন ব্যক্তি পেশাব/পায়খানা করার পর তাকে অবশ্যই পবিত্রতা অর্জণ করতে হবে। চাই সেটা ঢিলা/টিস্যু ব্যবহার করে হোক কিংবা পানি ব্যবহার করে।
কেউ শুধু পানি ব্যবহার করার দ্বারা পবিত্র হয়ে যায়, তার পেশাব ঝরেনা। আবার কারো একটু হাটাহাটি করলে পেশাব ঝরা বন্ধ হলে তাকে টিসু ব্যবহার করতে হয়। যার যেভাবে পবিত্র হয় সে সেভাবে পবিত্রতা অর্জন করবে। তবে ঢিলা/টিস্যু ব্যবহার করার পর পানি ব্যবহার করা উত্তম। মসজিদে কোবার বাসিন্দারা অধিক পবিত্রতা অর্জন করতেন। আল্লাহ তা’য়ালা তাদের প্রশংসা করে বলেন,
فيه رجال يحبون ان يتطهروا والله يحب المطهرين

হুজুরে পাক (সঃ) ইরশাদ করেন
قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: إِذَا بَالَ أَحَدُكُمْ فَلْيَنْتُرْ ذَكَرَهُ ثَلَاثَ مَرَّات
অর্থ, হযরত ঈসাব বিন ইয়াযদাদ আলইয়ামানী তার পিতা থেকে বর্ণনা করেন। রাসূল সাঃ ইরশাদ করেছেন, যখন তোমাদের কেউ পেশাব করে, তখন সে যেন তার লজ্জাস্থানকে তিনবার ঝেড়ে নেয় বা পবিত্র করে নেয়।
(সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-৩২৬)

উল্লিখিত আলোচনার আলোকে আমরা এই কথা বলতে পারি যে, টিসু ব্যবহার করার পর পানি ব্যবহার করা জরুরী বিষয় না। তবে পানি ব্যবহার করা হলো উত্তম। কেউ যদি পানি ব্যবহার না করে তাহেলে তারে কোন গুনাহ হবে না।

টি উত্তর
২১ জানুয়ারি ২০১৯ "ক্যারিয়ার" বিভাগে উত্তর দিয়েছেন Ariful (৬৩৭৩ পয়েন্ট )
টি উত্তর

এ সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন খুঁজে পাওয়া গেল না

282,863 টি প্রশ্ন

367,152 টি উত্তর

110,540 টি মন্তব্য

152,543 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...