72 জন দেখেছেন
"ইসলাম" বিভাগে করেছেন (53 পয়েন্ট)
আমি আশঙ্কা করছি যে আমার চরিত্র খারাপ হয়ে যাবে,আমি ব্যভিচারের পথে ধাবিত হওয়ার পথে তবে এখনো কোনো অবৈধ সম্পর্কে জড়াইনি।আমি কুমার।আমি ভয় পাচ্ছি খারাপ কাজ হওয়ার।এখন মৃত্যুবরণ করা কি এর চেয়ে উত্তম হবে?যেমন আমি খারাপ কাজ থেকে বাঁচার উদ্দেশ্যে আল্লাহর কাছে দ্রুত মৃত্যু চাইলাম ঈমানের সাথে।এটা করা জায়েয হবে কি?আমি এখনো ভালো ছেলে আছি।খারাপ হওয়ার চেয়ে মৃত্যুবরণ করা কি অধিক শ্রেয় কি না জানাবেন।আমি নিজের ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলছি।

3 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (5,658 পয়েন্ট)

 ইসলাম  কোনভাবেই আত্বহত্যা কে অনুমোদন করেনা। যেহেতু আপনি বুঝতে পারতেছেন যে আপনি পাপের দিকে অগ্রসর হচ্ছেন সেহেতু আপনার উচিৎ কোন ভালো আলেম বা পীরের কাছে সমস্যা খুলে বলা এবং তার দেওয়া উপদেশ অনুযায়ী চলা । আপাতত যেসকল বিষয়গুলো পাপের দিকে ধাবিত করে সেসকল বিষয় থেকে বিরত থাকুন।                        

করেছেন (8,728 পয়েন্ট)
ভাইয়া আপনি পির কে বিশ্বাস করেন।  হ্যা, না উত্তর দিবেন।
করেছেন (5,658 পয়েন্ট)
অবশ্যই যারা হক্কানী পীর তাদের বিশ্বাস করি। এবং হক্কানী পীরের মুরিদ হওয়া সকলের উচিৎ।          
করেছেন (8,728 পয়েন্ট)
তাই।।রেফারেন্স দিন তো আমিও দেখি। রেফারেন্স অবস্বই পবিত্র   কোরআন থেকে হবে
করেছেন (5,658 পয়েন্ট)
হাদিস, এজমা কেয়াস মানেন? 
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (3,782 পয়েন্ট)
আত্মহত্যা কোন সমাধান নয়। আর ইসলামী শরীয়ত আত্মহত্যাকে কঠিন গুনাহ বলে আখ্যায়িত করেছে। আর একটা গুনাহ থেকে বাঁচার জন্য অন্য একটা গুনাহে লিপ্ত হওয়াও জায়েয নেই। সুতরাং আপনার এখন করণীয় হলো, আপনি কোন আল্লাহওয়ালা বুযুর্গ ব্যক্তির সাহচার্য অর্জন করুন। অথবা দীনী পরিবেশে কিছুদিন সময় ব্যয় করুন। এজন্য আপনি তাবলীগে ৪০ দিন সময় দিতে পারেন। আশা করি আপনার ফিতনায় পড়ার সম্ভাবনা কমে যাবে এবং পড়লেও সেখান থেকে নিজেকে রক্ষা করার মত আত্মিক শক্তি আপনি পেয়ে যাবেন। আর আপনি সারা জীবনের জন্য একজন আল্লাহওয়ালা বুযুর্গের পরামর্শে চলার চেষ্টা করেন। তাহলে আপনার সকল সমস্যার সমাধান পেয়ে যাবেন আশা করি। আল্লাহ তা‘আলা আপনাকে সঠিক পথে চলা তাওফীক দান করুন। আমীন।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (5,681 পয়েন্ট)
আত্মহত্যা মহাপাপ। কোনো অবস্থাতেই মৃত্যু কামনা করা বৈধ নয়। খারাপ হওয়ার চেয়ে মৃত্যুবরণ করা মোটেই কাম্য নয়। কেননা খারাপ হওয়ার পর তওবা করে সঠিক পথে আসতে পারবেন। মৃত্যুবরণ করার পর আর দুনিয়ার জীবনে ফেরা অসম্ভব। তাই খারাপ কাজ থেকে বাঁচার জন্য শয়তানের কুমন্ত্রনা থেকে বাঁচার জন্য তাবুজ, দোয়া, ইস্তেগফার পাঠ করুন। এছাড়া ইসলামী বিধান মেনে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করুন।

হজরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, তোমরা কোনো বিপদের কারণেই কোনো অবস্থাতেই মৃত্যু কামনা করো না। যদি একান্ত এর আকাঙ্ক্ষা করতেই হয় এবং এ ছাড়া কোনো গত্যন্তর না থাকে তবে এতটুকু বলবে, হে আল্লাহ! যতদিন আমার জীবন উত্তম হয় ততদিন জীবিত রাখুন, আর যখন মৃত্যু উত্তম হয় তখন মৃত্যুর মুখে পতিত করুন। (বুখারি ও মুসলিম)
টি উত্তর
২১ জানুয়ারি ২০১৯ "ক্যারিয়ার" বিভাগে উত্তর দিয়েছেন Ariful (৬৩৭৩ পয়েন্ট )
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

283,200 টি প্রশ্ন

367,639 টি উত্তর

110,740 টি মন্তব্য

152,797 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...